BREAKING NEWS

৯ মাঘ  ১৪২৮  রবিবার ২৩ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

সুতির ৩ করোনা আক্রান্তের দিল্লি যোগ নিশ্চিত করল স্বাস্থ্যদপ্তর, নজরে অ্যাম্বুল্যান্স চালক

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: May 12, 2020 2:40 pm|    Updated: May 12, 2020 4:08 pm

Corona Virus scare spread allover Mursidbad district in last few days

শাহাজাদ হোসেন, ফরাক্কা: মুর্শিদাবাদের সুতির তিন করোনা আক্রান্তের দিল্লি যোগ নিশ্চিত স্বাস্থ্য দপ্তর। এবার নজর দিল্লি থেকে যে অ্যাম্বুল্যেন্সে তাঁরা বাড়ি ফিরেছিলেন তার চালকের উপর। মঙ্গলবারই স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে জঙ্গিপুর হাসপাতালে। ইতিমধ্যেই তাঁর নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে মুর্শিদাবাদ মেডিক্যালে। রিপোর্টের অপেক্ষায় ফরাক্কাবাসী।

ঘটনার সূত্রপাত বেশ কিছুদিন আগে। কিছুদিন আগে একাধিক উপসর্গ থাকায় সুতির বাসিন্দা তিন ব্যক্তির নমুনা পরীক্ষা করলে রিপোর্ট আসে পজিটিভ। এরপর তাঁদের সংস্পর্শে আসা জঙ্গিপুর হাসপাতালের এক স্বাস্থ্যকর্মীর শরীরেও মেলে করোনার জীবাণু। তাঁদের চিকিৎসা শুরুর পাশাপাশি আক্রান্তের সংস্পর্শে আর কারা এসেছিলেন তাঁদের খোঁজ শুরু করে জেলা প্রশাসন। সেখানেই প্রকাশ্যে আসে এই অ্যাম্বুল্যান্স চালকের কথা। এরপরই তাঁকে ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়। স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয় জঙ্গিপুর হাসপাতালে। তাঁর থেকেই জানা গিয়েছে যে, আদতে ফরাক্কার গোহালবাড়ির বাসিন্দা হলেও দীর্ঘদিন ধরে কর্মসূএে দিল্লিতে থাকতেন তিনি। দিল্লি গেটে এলএনজিপি হাসপাতালের অ্যাম্বুল্যান্স চালক ছিলেন তিনি। ৩ মে বেলা সাড়ে তিনটে নাগাদ দিল্লির জাহাঙ্গির পুরি থেকে মুর্শিদাবাদের সুতির খানাবাড়ি ও মহেশাইলের তিন ব্যক্তি তাঁর অ্যাম্বুল্যান্সে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হন। ৫ মে মধ্যরাতে সুতির ঔরঙ্গাবাদের তিন ব্যক্তিকে বাড়িতে নামিয়ে নিজের বাড়ি যান তিনি। এরপরই দিল্লি ফেরত ওই ব্যক্তিদের করোনা সংক্রমণের খবর প্রকাশ্যে আসে।

[আরও পড়ুন: লকডাউন অমান্য করে বসিরহাটে শুটিং, গ্রেপ্তার পরিচালক-সহ ২৫]

মঙ্গলবার নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানোর পর অ্যাম্বুল্যান্স চালক জানান, এদিন সকালেই দিল্লি ফেরত তিন আক্রান্তের পরিবারের সঙ্গে মোবাইলে কথা হয়েছেন তাঁর। তাঁরা জানিয়েছেন, আক্রান্তদের তিনজনের প্রথম পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ এলেও দ্বিতীয় পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ। দিন তিনেকের মধ্যে তাদের হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হবে। এ প্রসঙ্গে ফরাক্কা ব্লকের বিএমওএইচ (BMOH) সজলকুমার পণ্ডিত জানান, অ্যাম্বুল্যান্স চালককে আপাতত হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তাঁর লালারস সংগ্রহ করে করোনা পরীক্ষার জন্য মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট হাতে না পাওয়া পর্যন্ত কিছু বলা সম্ভব নয়। দিল্লি ফেরত ব্যক্তিদের করোনা সংক্রমণের জেরে ঘরে ফেরা পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে কপালে চিন্তার ভাঁজ মুর্শিদাবাদ স্বাস্থ্য দপ্তরের।

[আরও পড়ুন: শিলিগুড়িতে বামফ্রন্টেই আস্থা সরকারের, পুরনিগমের মুখ্য প্রশাসক হতে চলেছেন অশোক ভট্টাচার্য]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে