BREAKING NEWS

১১ কার্তিক  ১৪২৭  বুধবার ২৮ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

স্বস্তি দিয়ে রাজ্যে বাড়ছে সুস্থতার হার, মোট করোনা জয়ীর সংখ্যা ২ লক্ষের কাছাকাছি

Published by: Sayani Sen |    Posted: September 21, 2020 8:17 pm|    Updated: September 21, 2020 8:24 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কিছুটা হলেও মিলল স্বস্তি। রবিবারের তুলনায় সোমবার কিছুটা হলেও কমল করোনা (Coronavirus) সংক্রমিতের সংখ্যা। তবে সামান্য বাড়ল দৈনিক মৃতের সংখ্যা। কঠিন পরিস্থিতিতেও আমজনতাকে স্বস্তি জোগাচ্ছে সুস্থতার হার। কারণ, গত ২৪ ঘণ্টায় ফের বাড়ল সুস্থতার হার। বর্তমানে রাজ্যে সুস্থতার হার বেড়ে দাঁড়াল ৮৭.১৬ শতাংশ।

রাজ্য স্বাস্থ্যদপ্তরের সোমবারের বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ১৬৫ জন। তার মধ্যে কলকাতায় আক্রান্ত ৫২৮ জন। মোট সংক্রমিতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ২ লক্ষ ২৮ হাজার ৩০২ জন। তবে দৈনিক মৃতের সংখ্যা রবিবার তুলনায় সামান্য বেড়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৬২ জনের। মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৪ হাজার ৪২১ জন। করোনা গ্রাফের দৈনিক ওঠাপড়া লেগেই রয়েছে। তবে অর্থনৈতিক পরিস্থিতির সঙ্গে তাল মেলাতে বাড়ি থেকে বেরতে হচ্ছে অনেককেই। তাঁরা প্রত্যেকেই যেন সংক্রমণের সম্ভাবনা রয়েছে জেনেও উপার্জনের আশায় বাড়ির বাইরে যেতে বাধ্য হচ্ছেন। তাঁদের মনের জোর জোগাচ্ছে রাজ্যের সুস্থতার হার। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাকে হারিয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৩ হাজার ১১ জন। তার ফলে মোট কোভিড জয়ীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১ লক্ষ ৯৮ হাজার ৯৮৩ জন। রাজ্যে বেড়েছে সুস্থতার হারও। করোনা জয়ীর হার বেড়ে দাঁড়াল ৮৭.১৬ শতাংশ।

[আরও পড়ুন: ‘বাংলাকে দু’টুকরো করতে চাইছে বিজেপি’, সাংসদ রাজু বিস্তার মন্তব্যের বিরুদ্ধে সরব বিরোধীরা]

ভ্যাকসিন তৈরির লক্ষ্যে দিনরাত গবেষণা করে চলেছেন বিজ্ঞানীরা। কবে তা আসবে, সেদিকে তাকিয়ে গোটা বিশ্ব। এই পরিস্থিতিতে টেস্টিং ছাড়া ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র ভাইরাসকে রোখা সম্ভব নয়। তাই যত সম্ভব পরীক্ষা বাড়ানোর দিকে নজর রাজ্য প্রশাসনের। সোমবার করোনা পরীক্ষা হয়েছে ৪৩ হাজার ৩১৩ জনের। তার ফলে মোট কোভিড টেস্টের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ২৭ লক্ষ ৯০ হাজার ৫১৮। তবে তার মধ্যে পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে ৮.০৬ শতাংশ। তাই অযথা আতঙ্কিত না হয়ে সাবধানে থাকারই পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের।

[আরও পড়ুন: গর্ভস্থ শিশুর মৃত্যুতে কালনা হাসপাতালে তাণ্ডব, চিকিৎসক-নার্সকে মার রোগীর পরিবারের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement