BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

নেতাজিকে নিয়ে কুরুচিকর পোস্ট, মথুরাপুরের যুবককে পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দিল আদালত

Published by: Bishakha Pal |    Posted: June 10, 2020 5:28 pm|    Updated: June 10, 2020 5:28 pm

An Images

সুরজিৎ দেব, ডায়মন্ডহারবার: সোশ্যাল মিডিয়ায় দেশবরেণ্য নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুকে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ ও দেশবিরোধী মন্তব্য করায় গ্রেপ্তার করা হল এক যুবককে। বুধবার তাকে আদালতে তোলা হয়। আদালতে তোলার সময় এদিন অভিযুক্তকে ঘিরে তুমুল বিক্ষোভ দেখায় বিজেপি ও তৃণমূল কংগ্রেস। পুলিশের সামনেই অভিযুক্তকে কান ধরে অন্যায় স্বীকার করায় দুই দলের কর্মীরা। আদালত ওই যুবককে পুলিশ হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছে।

দক্ষিণ ২৪ পরগনার মথুরাপুর থানার গুঞ্জিরপুরের বাসিন্দা এক যুবক রাজিবুল মোল্লা বেশ কিছুদিন ধরেই নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে অশ্রাব্য ভাষা ব্যবহার করে কখনও নেতাজি সুভাষচন্দ্র, কখনও ভারতীয় সেনাবাহিনী ও কখনও আবার বিজেপি নেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায়কে নিয়ে একের পর এক কুরুচিকর পোস্ট করে যাচ্ছিল বলে অভিযোগ। ওই যুবকের সেই সব পোস্ট সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। মঙ্গলবার দিনভর বিষয়টি নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। অনেকেই ভাইরাল হওয়া সেসব পোস্ট দেখে কলকাতা পুলিশ ও রাজ্য পুলিশের সদর দপ্তরে অভিযোগ জানান। যুবককে অবিলম্বে গ্রেপ্তারের দাবিও জানানো হয়। প্রোফাইলে সে জয়নগরের বাসিন্দা বলে ভুয়ো ঠিকানা দিয়েছিল। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে অভিযুক্তের বাড়ি জয়নগর নয়, মথুরাপুরে। সঙ্গে সঙ্গে সুন্দরবন জেলা পুলিশ ওই যুবকের হদিশ পেতে ময়দানে নামে। মঙ্গলবার রাতেই পুলিশ তাকে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৫৩ (এ), ২৯৫ (এ) ও ৫০৫ (১ বি) ধারায় মথুরাপুর থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

[ আরও পড়ুন: হারিয়ে যায়নি মানবিকতা, বাঁদরকে ভাত খাইয়ে দিচ্ছেন মহিলা, বাঙালি পরিবারকে কুর্নিশ নেটদুনিয়ার ]

বুধবার তাকে ডায়মন্ডহারবার এসিজেএম আদালতে তোলা হলে বিচারক মনোদীপ সাহারায় ওই অভিযুক্তকে ১১ দিনের জন্য পুলিশ হেফাজতে পাঠান। বিজেপি নেতা ও ডায়মন্ডহারবার ফৌজদারি আদালতের আইনজীবি দেবাংশু পাণ্ডা জানান, এদিন আদালতের কোনও আইনজীবীই অভিযুক্তের জামিনের পক্ষে সওয়াল করেননি। আদালতের বার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও তৃণমূল নেতা সুদীপ চক্রবর্তী অভিযুক্তের জামিনের জন্য কোনও আইনজীবীই আবেদন না জানানোয় ধন্যবাদ জানিয়েছেন। এদিকে অভিযুক্ত যুবককে এদিন আদালতে আনার সময় তৃণমূল ও বিজেপি কর্মীরা পুলিশের গাড়ি আটকে তুমুল বিক্ষোভ দেখান। পুলিশের গাড়ির মধ্যেই যুবককে কান ধরে অন্যায় স্বীকারে বাধ্য করান দুই দলের সদস্যরা।

[ আরও পড়ুন: কথা রাখলেন তৃণমূল নেতা, শর্তপূরণ হতেই শাড়ি নিয়ে হাজির বনগাঁর করোনামুক্ত আদিবাসী পাড়ায় ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement