৮ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৬  বুধবার ২২ মে ২০১৯ 

Menu Logo নির্বাচন ‘১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

ক্ষীরোদদীপ্তি ভট্টাচার্য: কমিশনের কোপে সময়সীমা কমেছে প্রচারের। শুক্রবারের বদলে বৃহস্পতিবার রাত ১০ টা পর্যন্ত প্রচারের সময়সীমা বেধে দিয়েছে কমিশন। অর্থাৎ হাতে সময় আজকের দিনটাই। সেই কারণে সপ্তম দফার আগে সকাল সকাল ভোট প্রচারে নেমে পড়েছেন দমদমের সিপিআইএম প্রার্থী নেপালদেব ভট্টাচার্য। তাঁর সঙ্গে রয়েছেন সীতারাম ইয়েচুরি। মিছিল থেকেই দলের বার্তা সকলের সামনে তুলে ধরেন বাম নেতারা। 

আরও পড়ুন: কুরুচিকর ভুয়ো ভিডিও ফেসবুকে ছড়ানোর অভিযোগ, পুলিশের দ্বারস্থ সাজদা আহমেদ

ছ’দফা নির্বাচন শেষ। আগামী রবিবার সপ্তম দফা অর্থাৎ শেষ দফায় দমদম লোকসভা আসনে ভোট। প্রতিপক্ষকে এক ইঞ্চি জমি ছাড়তেও রাজি নয় শাসক-বিরোধী কোনও শিবিরই। তাই শেষলগ্নের প্রচার চালাচ্ছে সব দলই। একইভাবে প্রচার চালাচ্ছে বাম শিবিরও। বৃহস্পতিবার সকালে বরানগর থেকে হুডখোলা গাড়িতে করে মিছিল শুরু করেন দমদম লোকসভা কেন্দ্রের সিপিএম প্রার্থী নেপালদেব ভট্টাচার্য। তাঁর সঙ্গে ছিলেন সিপিআইএম নেতা সীতারাম ইয়েচুরি। দমদমের প্রার্থীর হয়ে এদিন ভোট প্রার্থনা করেন তিনিও। মিছিলের শুরু থেকেই ভিড় জমিয়েছিলেন প্রচুর বাম কর্মী, সমর্থকরা। হুডখোলা গাড়ি থেকেই সকলের থেকে আশীর্বাদ চেয়ে নেন বাম প্রার্থী। পাশপাশি, দলের বার্তা সকলের সামনে তুলে ধরেন পোড়খাওয়া এই সিপিএম নেতা। 

আরও পড়ুন: প্রকৃতি বাঁচাতে বনাঞ্চল তৈরি, বনদপ্তরের উদ্যোগে দক্ষিণ দিনাজপুরে সবুজায়ন

এদিনের প্রচারের শুরু থেকেই বেশ আত্মবিশ্বাসী ভূমিকায় দেখা যায় বাম প্রার্থীকে। দমদম কেন্দ্রে বামেদের জয় নিশ্চিত, এমনটাই জানান প্রার্থী। পরোক্ষভাবে তিনি বুঝিয়ে দেন প্রায় চার লক্ষ ব্যবধানে জয় পাবে তাঁদের দল। প্রসঙ্গত, দমদম কেন্দ্রে নেপালদেব ভট্টাচার্যের বিরুদ্ধে লড়াই করছেন বিজেপির শমীক ভট্টাচার্য, তৃণমূলের সৌগত রায়, কংগ্রেসের সৌরভ সাহা। বিজেপি ও তৃণমূলের প্রার্থী দীর্ঘদিনের দুঁদে রাজনীতিবিদ। তাই দমদম কেন্দ্র সকলের কাছেই প্রেস্টিজ ফাইট। কিন্তু শেষ পর্যন্ত কার দখলে  থাকবে দমদম। তা বোঝা যাবে ২৩ মে। তাই এখনও সেদিকেই তাকিয়ে শাসক-বিরোধী উভয় শিবির।   

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং