BREAKING NEWS

০৯ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

কাটল জট, শ্রমিকদের মুখে হাসি ফুটিয়ে দরজা খুলল দেবপাড়া চা বাগানের

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: March 12, 2019 8:57 am|    Updated: March 12, 2019 2:49 pm

Devpara tea garden open from today

অরূপ বসাক, মালবাজার :  সপ্তাহখানেকের জট কাটিয়ে মঙ্গলবার সকাল থেকেই ফের খুলে গেল ডুয়ার্সের দেবপাড়া চা বাগান। সোমবার বিকেলে শিলিগুড়ি শ্রম দপ্তরের জয়েন্ট লেবার কমিশনার চন্দন দাশগুপ্তের দপ্তরে আয়োজিত ত্রিপাক্ষিক বৈঠকে বাগান খোলার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। ফের কাজ ফিরে পেয়ে হাসি ফুটেছে বাগান কর্মীদের মুখে। এবার থেকে সব ঠিকমতো চলবে বলেই নতুন আশায় বুক বাঁধছে ১২০০ শ্রমিক পরিবার। 

[অটো-পিকআপ ভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষ, মৃত ২] 

দীর্ঘদিন  ধরেই  কাজের সময়সীমা ও বকেয়া নিয়ে দেবপাড়া বাগান কর্তৃপক্ষের সঙ্গে অশান্তি চলছিল শ্রমিকদের । দুপক্ষের টানাপোড়েনে এর আগেও একাধিকবার চা বাগান বন্ধের মতো পরিস্থিতি হয়েছিল।  এরপর চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে কারখানা বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় বাগান কর্তৃপক্ষ। কারণ হিসেবে জানা যায়, শীতের মরসুম শেষে চা বাগানে পুনরায় কাজ শুরু করেছিলেন শ্রমিকরা। তবে বেশ কিছুদিন ধরেই অর্ধদিবস কাজ করছিলেন তাঁরা। বাগান কর্তৃপক্ষ জানিয়েছিল, মার্চের পয়লা তারিখ থেকে শ্রমিকদের দু’বেলা কাজ করতে হবে। শ্রমিকেরা তাতে রাজি হননি। কারণ, চুক্তি অনুযায়ী শ্রমিকদের প্রাপ্য প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটি-সহ অন্যান্য যে সব সুযোগসুবিধা বাগান কর্তৃপক্ষ দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছিল, তা মেটানো হয়নি। এই নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই শ্রমিকদের সঙ্গে বাগান কর্তৃপক্ষের টানাপোড়েন চলছিল। সমাধানে মালিকপক্ষের সঙ্গে একাধিকবার বৈঠকেও বসেন শ্রমিকরা । কিন্তু তাতে কোনও সমাধান সূত্র মেলেনি। এরপর বাগান বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় বাগান কর্তৃপক্ষ। বাগান বন্ধের নোটিস পেয়েই গেটে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন তাঁরা। এরপরই মালিক পক্ষের বিরুদ্ধে সোচ্চার হন মালিকেরা। বাগান কর্তৃপক্ষ জানায়,শ্রমিকেরা দাবি না মানায়, তাদের পক্ষে বাগান চালানো সম্ভব হচ্ছে না।   

[ কুপ্রস্তাব মানেননি ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক, বেধড়ক মারধর আশাকর্মীর ]

এরপর কয়েকদিন টানাপোড়েন চলে দু’পক্ষের। কয়েকদিনে বাগান কর্তৃপক্ষ ও  শ্রমিকদের মধ্যে এই নিয়ে দফায় দফায় বৈঠক হয়। পরে সোমবার  শিলিগুড়ি শ্রম বিভাগের জয়েন্ট লেবার কমিশনার চন্দন দাশগুপ্তের দপ্তরে আয়োজিত বৈঠকে বাগান খোলার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। মঙ্গলবার থেকে ফের খুলে গেল কারখানা । সপ্তাখানেক পরে কাজে ফিরে স্বভাবতই উচ্ছ্বসিত কর্মীরা।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে