BREAKING NEWS

১৫ মাঘ  ১৪২৯  বুধবার ১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

অপরাধ লুকানোর হাতিয়ার মোমো! কিশোরের অস্বাভাবিক মৃত্যুতে চাঞ্চল্য বর্ধমানে

Published by: Tanumoy Ghosal |    Posted: September 2, 2018 9:52 am|    Updated: September 2, 2018 10:44 am

East Burdwan: boy commits suicide at Nadanghat

সৌরভ মাজি, বর্ধমান: দিন কয়েক আগে স্রেফ মজা করে মোমোর মেসেজ পাঠিয়ে বিপদে পড়েছিলেন এক ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ুয়া৷ তাঁকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ৷ আর এবার সম্পর্কে টানাপোড়েনে আত্মহত্যাকে মোমো গেম খেলতে গিয়ে মৃত্যু বলে চালানোর চেষ্টা করলেন মৃতের পরিবার! ঘটনাস্থল সেই পূর্ব বর্ধমান৷

[বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের জের, গৃহবধূ ও তাঁর সঙ্গীর মাথা মুড়িয়ে গ্রামে ঘোরাল মাতব্বররা]

রাজ্যে এখন নয়া আতঙ্কের নাম মোমো চ্যালেঞ্জ গেম৷ প্রায় রোজই রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে কলেজ ও স্কুল পড়ুয়াদের মোবাইলে মোমো মেসেজ আসার খবর মিলছে৷ শনিবার খাস কলকাতায় কসবায় এক যুবকের মোবাইলে মারণগেম খেলার প্রস্তাব দিয়ে মেসেজ এসেছে বলে জানা গিয়েছে৷ ব্যতিক্রম নয় পূর্ব বর্ধমান জেলাও৷ আর এবার নাদনঘাটে এক কিশোরের অস্বাভাবিক মৃত্যুতে মোমোকেই দায়ী করলেন পরিবারের লোকেরা৷ যদিও প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ একপ্রকার নিশ্চিত, মোমো গেম নয়, প্রেমের সম্পর্কে টানাপোড়েনেই আত্মহত্যা করেছে ওই কিশোর৷

মৃতের নাম সুজন দাস৷ শুক্রবার গভীর রাতে পূর্ব বর্ধমানের নাদনঘাটের নোয়াপাড়া এলাকার একটি মন্দির থেকে তাঁর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করে পুলিশ৷ নিয়মমাফিক মৃতদেহটির ময়নাতদন্তও হয়েছে কালনা মহকুমা হাসপাতালে৷ মৃতের পরিবারের দাবি, গত কয়েক দিন ধরেই দিনরাত মোবাইল নিয়েই ব্যস্ত থাকত সুজন৷ মোমো গেমের খপ্পরে পড়েছিল সে৷ মারণগেমটি খেলতে গিয়ে প্রথমে ব্লেড দিয়ে নিজের হাত কেটে ফেলেছিল সুজন৷ পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেছে সুজন দাসের পরিবার৷ যদিও মোমো গেম খেলতে গিয়ে যে ওই কিশোরের মৃত্যু হয়েছে, প্রাথমিক তদন্তে অন্তত তেমন কোনও প্রমাণ পায়নি পুলিশ৷ তদন্তকারীদের দাবি, নদিয়ার নবদ্বীপের এক তরুণীর সঙ্গে সম্পর্ক ছিল সুজনের৷ সেই সম্পর্কে টানাপোড়েনের কারণেই আত্মহত্যা করেছে সে৷ এমনকী, অপরাধমূলক কাজ ধামাচাপা দিতে মোমো তত্ত্ব খাড়ার করার সম্ভাবনাও উড়িয়ে দিচ্ছে না পুলিশ৷

[ মৃত্যুশয্যায় শ্মশানেই উঠে বসলেন মহিলা, শোরগোল ত্রিবেণী ঘাটে]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে