BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

পেট্রোলে মিশছে ইথানল, ক্ষতির মুখে ক্রেতারা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 29, 2016 10:04 am|    Updated: July 29, 2016 10:04 am

An Images

ক্ষীরোদ ভট্টাচার্য: রোগ সারাতে কড়া ওষুধ না টোটকা- তা ঠিক করতে তুমুল ব্যস্ততা ক্রেতা সুরক্ষা দফতরে৷
ব্যাপারটা এইরকম৷ শোরুম থেকে সদ্য কেনা গাড়ি৷ ট্যাঙ্ক ভর্তি পেট্রোল৷ কিন্তু আচমকা মাঝরাস্তায় গাড়ি থেমে গেল৷ কোনওরকমে কাছাকাছি মেকানিকের কাছে গেলেন৷ গাড়ি চলল ঠিকই৷ কিন্তু আপনি জানতে পারলেন পেট্রোলের গুণমান ঠিক ছিল না৷ তাই ভোগান্তি৷ জুন-জুলাই মাস ধরে এমন অসংখ্য অভিযোগ জমা পড়েছে ক্রেতাসুরক্ষা দফতরে৷ অভিযোগ জমা পড়েছে ওয়েস্ট বেঙ্গল পেট্রোলিয়াম ডিলারস অ্যাসোসিয়েশনের কাছে৷ এইসব অভিযোগ খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নিতে সম্প্রতি ক্রেতা সুরক্ষা দফতরে ইন্ডিয়ান অয়েল, হিন্দুস্তান পেট্রোলিয়াম-সহ সব তেল সংস্থার শীর্ষকর্তাদের ডেকে পাঠান ক্রেতা সুরক্ষা দফতরের মন্ত্রী সাধন পাণ্ডে৷ পেট্রোলিয়াম ডিলারস অ্যাসোসিয়েশনের অভিযোগ, তেলের সঙ্গে মেশানো হয় এক ধরনের রাসায়নিক৷ যার নাম ইথানল৷ ইথানলে জল থাকে৷ ইথানল মেশানো পেট্রোল গাড়ির ইঞ্জিনে মিশলে যে কোনও ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে গাড়িতে৷
পরিসংখ্যান বলছে, রাজ্যের পেট্রোল পাম্পগুলিতে অন্তত ১০ শতাংশ হারে ইথানল মেশানো হয়৷ তেল সংস্থাগুলির দাবি, কেন্দ্রীয় পেট্রোলিয়াম মন্ত্রকের অনুমতি সাপেক্ষে ইথানল মেশানো হচ্ছে পেট্রোলে৷ কিন্তু মন্ত্রী সাধন পাণ্ডে বলেছেন, ‘‘এমন কোনও অনুমতি তেল সংস্থার প্রতিনিধিরা দেখাতে পারেনি৷ একই অভিযোগ, ডিলার সংগঠনগুলিরও৷ তাই সমস্ত বিষয়টি কেন্দ্রীয় পেট্রোলিয়াম মন্ত্রীকে জানানো হবে৷” একইসঙ্গে মন্ত্রী জানিয়েছেন, আগামী দু’সপ্তাহের মধ্যে এই নিয়ে বিস্তারিত রিপোর্ট জমা দিতে হবে তিনটি তেল সংস্থাকে৷ সেই রিপোর্ট পাঠানো হবে নবান্নে মুখ্যমন্ত্রীর দফতরে৷ তার পরই ঠিক হবে ভবিষ্যতে ইথানল মেশানো হবে কি না৷ অথবা কতটা মেশানো হবে৷
তেল সংস্থার প্রতিনিধিদের বক্তব্য, উত্তরপ্রদেশে পেট্রোলে ইথানল মেশানো হয়৷ ইথানল মেশানো পেট্রোলের দামও কিছুটা কম৷ কিন্তু এই দাবি খারিজ করেছেন পেট্রোলিয়াম ডিলারস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি তুষারকান্তি সেন৷ তুষারবাবু বলেছেন, “কেন্দ্র থেকে এমন কোনও নির্দেশিকা দেখাতে পারেনি পেট্রোল সংস্থাগুলি৷” তুষারবাবু আরও বলেছেন, ‘‘পশ্চিমবঙ্গের জলবায়ুতে আর্দ্রতা বেশি৷ আবার ১০ শতাংশ হারে ইথানল মেশানো হচ্ছে পেট্রোলে৷ তাতে গাড়ির ইঞ্জিন ও অন্যান্য যন্ত্রাংশ নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা বেশি৷” ফলে ক্রেতারা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন৷ এমন প্রচুর অভিযোগ এসেছে তাঁদের কাছে৷ তাই সমস্যা মেটাতেই ক্রেতা সুরক্ষা দফতরের মন্ত্রীর কাছে গোটা বিষয়টি অভিযোগ আকারে জানান তিনি৷
মন্ত্রী সাধন পাণ্ডে জানান, চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত না নেওয়া পর্যন্ত ৫ শতাংশ হারে ইথানল মেশানো যেতে পারে৷ তবে তা দীর্ঘকালীন নয়৷ এদিকে রাজ্যের পেট্রোল পাম্পগুলির রিজার্ভারগুলির ঢাল ফের খতিয়ে দেখার পরামর্শ দেন এ দিন মন্ত্রী৷ সাধন পাণ্ডে বলেছেন, “ডিলাররা যে পরিমাণ তেল কিনছেন তার ওজন ঠিক আছে কি না তাও যাচাই করে দেখা উচিত পেট্রোল পাম্প মালিকদের৷ কারণ পাম্পগুলির রির্জাভার অনেক পুরনো৷”

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement