১৬ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শুক্রবার ৩ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

রাজ্য কমিটি থেকে বাদ বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য, বয়সের কারণে নেই শ্যামল-দীপক-মদন

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: March 8, 2018 5:07 pm|    Updated: September 13, 2019 2:59 pm

Ex-CM Buddhadeb Bhattacharya leaves CPM state committee

বুদ্ধদেব সেনগুপ্ত: শারীরিক কারণে সক্রিয় রাজনীতি থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন। দীর্ঘদিন ধরে দলের রাজ্য কমিটিতেও আর থাকতে চাইছিলেন না বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। শেষপর্যন্ত, তাঁর ইচ্ছাপূরণ হল। রাজ্য কমিটির দায়িত্ব থেকে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীকে অব্যাহতি দিল সিপিএম। বাদ পড়লেন মদন ঘোষ, দীপক সরকার ও শ্যামল চক্রবর্তীও। সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র জানিয়েছেন, বয়সজনিত কারণে ওই চারজন প্রবীণ বামপন্থী নেতাকে রাজ্য কমিটিতে আর না রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বস্তুত, বয়স ৭৫ পেরোলে ভবিষ্যতে আর কোনও নেতাই সিপিএমের রাজ্য কমিটি স্থান পাবেন না।

[শ্যামাপ্রসাদের মূর্তি শোধন ঘিরে বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষ, ধুন্ধুমার কেওড়াতলায়]

বুধবার রাতে আলিমুদ্দিন স্ট্রিটে বৈঠকে বসেছিলেন সিপিএমের রাজ্য কমিটির সদস্যরা। বৈঠকের বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য জানিয়ে দেন, তিনি অসুস্থ। নিয়মিত রাজ্য কমিটির বৈঠকেও আসতে পারেন না। তাই তাঁকে যেন আর রাজ্য কমিটিতে রাখা না হয়। যদিও অভিজ্ঞতার দোহাই দিয়ে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীকে প্রস্তাব ফিরিয়ে নেওয়ার অনুরোধ জানান সম্পাদকমণ্ডলীর অন্য সদস্যরা। যদিও বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যকে টলানো যায়নি। তিনি বলেন, যেকোনও প্রয়োজনে দলের পাশে থাকবেন। কিন্তু, শারীরিক কারণে রাজ্য কমিটিতে থাকতে আগ্রহী নন। বৈঠক চলাকালীন ফোনে বিষয়টি সিপিএম সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরিকে জানানো হয়। বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যকে ফোন করে ফের প্রস্তাব ফিরিয়ে নেওয়ার অনুরোধও করেন তিনি। কিন্তু, লাভ হয়নি। শেষপর্যন্ত অসুস্থ প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীকে রাজ্য কমিটি সদস্যপদ থেকে অব্যবহতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় সিপিএম। তবে আজীবন সিপিএমের রাজ্য কমিটির আমন্ত্রিত সদস্য থাকবেন বুদ্ধবাবু।

[‘মাওবাদীরা শ্যামাপ্রসাদের মূর্তি ভেঙেছে, সরকারকে দোষারোপ কেন?’]

প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী নিজেই সরে দাঁড়িয়েছেন। তবে বয়সজনিত কারণে রাজ্য কমিটি থেকে বাদ পড়েছেন মদন ঘোষ, দীপক সরকার ও শ্যামল চক্রবর্তী। একইকারণে রাজ্য কমিটিতে থাকছেন না আর ২০ জন। সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র জানিয়েছেন, ভবিষ্যতে ৭৫ পেরোনো আর কোনও নেতাকেই রাজ্য কমিটি রাখা হবে না। তবে তাৎপর্যের বিষয় হল, অভিজ্ঞতা ও বামপন্থী রাজনীতিতে অবদানে কারণে পদে থেকে গেলেন ৭৭ বছরের বিমান বসু।

[আর্তের সহায়তায় সদা প্রস্তুত, রাসবিহারীর মোড়ে নিত্য সেবায় গীতা দে]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে