BREAKING NEWS

০২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

পুরু বরফে ঢাকল নাথুলার রাস্তা, দার্জিলিংয়েও তুষারপাতের সম্ভাবনা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: November 30, 2017 6:15 am|    Updated: September 21, 2019 4:53 pm

Gangtok to Nathula Road towards Sherethang has been closed due to heavy snowfall

ব্রতীন দাস, শিলিগুড়ি: তীব্র তুষারপাতের জেরে সাময়িকভাবে বন্ধ হয়ে গেল নাথুলা যাওয়ার রাস্তা। বুধবার রাত থেকেই ভারী তুষারপাত হচ্ছে সিকিমে। বরফে ঢাকা ছাঙ্গু লেক। তবে মরশুমের প্রথম ভারী তুষারপাতে খুশির হাওয়া বেড়াতে যাওয়া পর্যটকদের মধ্যে। বরফ পড়ার খবর পেয়ে বুধবার গ্যাংটক থেকে ছাঙ্গু, বাবা মন্দিরের পথে রওনা দেন বহু পর্যটক। কিন্তু তাঁদের জন্য দুঃসংবাদ, নাথুলা যাওয়ার রাস্তা আপাতত বন্ধ। পর্যটকদের গাড়ি যাচ্ছে ছাঙ্গু পর্যন্তই।

সেনাবাহিনীর তরফে বরফ কেটে রাস্তা স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করার চেষ্টা চলছে। মঙ্গলবার রাতে বৃষ্টির জেরেই পাহাড়ের তাপমাত্রা একধাক্কায় অনেকটাই নেমে যায়। তারই জেরে শুরু হয় তুষারপাত। মঙ্গলবারের পর বুধবারও সিকিমে ভারী তুষারপাত হয়েছে। পরিস্থিতি যা তাতে শৈলশহর দার্জিলিংয়েও তুষারপাতের সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা। ঠান্ডায় কাঁপছে দার্জিলিং।

[ছাঙ্গু লেক-নাথুলায় ব্যাপক তুষারপাত, উচ্ছ্বসিত পর্যটকরা]

হাড়হিম করা ঠান্ডার দাপটে এদিন দার্জিলিংয়ের রাস্তায় বাসিন্দাদের আগুন পোহাতে দেখা যায়। রাতের তাপমাত্রা যেভাবে নামছে তাতে সান্দাকফু, ফালুট, টাইগার হিলে তুষারপাত হতে পারে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা। আর এতেই আশায় বুক বেঁধেছেন দার্জিলিংয়ে বেড়াতে আসা পর্যটকরা। অনেকে আবার এদিনই দার্জিলিং থেকে সিকিম চলে গিয়েছেন তুষারপাতের খবর শুনে। বরফের টুকরো হাতে খেলায় মেতে ওঠেন তাঁরা।

আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন, পশ্চিমি ঝঞ্ঝার দাপটে সিকিমে মঙ্গলবার রাত থেকে ভারী তুষারপাত হচ্ছে। ঠান্ডায় কাবু শৈলশহর। উত্তরের সমতলে উত্তুরে হাওয়ার দাপট চলছে। ফলে পারদ সেভাবে না নামলেও শিলিগুড়ি সহ উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় সকাল থেকেই অনুভূত হচ্ছে শিরশিরানি ঠাণ্ডার আমেজ। হাওয়া অফিস সূত্রে খবর, ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহ থেকেই জাঁকিয়ে ঠান্ডা পড়ার সম্ভাবনা উত্তরবঙ্গে। আরও শক্তিশালী হবে উত্তুরে হাওয়া। একটি দুর্বল পশ্চিমি ঝঞ্ঝা সিকিম-সহ উত্তরবঙ্গের উপর দিয়ে বয়ে গিয়েছে। এর ফলেই মঙ্গলবার রাতে শিলিগুড়ি-সহ উত্তরবঙ্গের কয়েকটি জায়গায় হালকা বৃষ্টি হয়।

[ডার্বি দেখতে যাওয়া হল না মোহনবাগান ভক্ত রাজীবের, আক্ষেপ বন্ধুদের]

বৃষ্টি হয়েছে কালিম্পং এবং সিকিমেও। ভারী তুষারপাত হয়েছে উত্তর সিকিম-সহ পূর্ব সিকিমের উঁচু পাহাড়ি এলাকায়। ছাঙ্গু, বাবা মন্দির সহ নাথুলার পথ বরফে মুড়ে যায়। সিকিমের আবহাওয়াবিদ গোপীনাথ রাহা বলেন, পশ্চিমি ঝঞ্ঝার প্রভাবে বৃষ্টি হয়েছে। পাহাড়ে তুষারপাতও হয়েছে। উত্তুরে হাওয়া দাপট দেখালেও এই অঞ্চলে জাঁকিয়ে ঠান্ডা পড়তে আরও দু’সপ্তাহ লাগবে। বুধবার উত্তরবঙ্গের সমতলে সর্বনিম্ন পারদ ছিল ১৫-১৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। মালদহ এবং কোচবিহারে ছিল ১৫ ডিগ্রি, শিলিগুড়ি এবং জলপাইগুড়িতে ১৭ ডিগ্রি। কালিম্পংয়ের দশ ডিগ্রি। দার্জিলিংয়ে সাত, গ্যাংটকে তাপমাত্রার পারদ আট ডিগ্রির ঘরে।

বরফ দেখে মহাখুশি পর্যটকরা...
বরফ দেখে মহাখুশি পর্যটকরা

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে