BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মন্ত্রী গৌতম দেবকে বাধা, পুলিশের গাড়িতে হামলা মোর্চার

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 13, 2017 9:39 am|    Updated: July 13, 2017 9:43 am

An Images

তরুণকান্তি দাস ও ব্রতীন দাস: ভানুভক্তের জন্মদিনেও পাহাড় জুড়ে মোর্চার তাণ্ডব জারি। পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেবকে কবির জন্মদিন পালনে দফায় দফায় বাধা দেওয়া হয়। মন্ত্রী চলে যাওয়ার পর পুলিশের গাড়িতে হয় হামলা। মোর্চাকে খুশি করতে এবার রাজ্য সরকারের দেওয়ার পুরস্কার, সম্মান ফিরিয়ে দেওয়ার ঘটা পাহাড়ে। তিনজন শিল্পী পুরস্কার ফিরিয়েছেন। এই আবহে দার্জিলিং পুরসভার একমাত্র তৃণমূল কাউন্সিলর যোগ দিলেন মোর্চায়। গোর্খাল্যান্ড ইস্যুতে বিমল গুরুংয়ের হাত শক্ত করতে এবার আন্দোলনকে সমর্থনের কথা জানিয়েছেন ডুয়ার্সের আদিবাসী নেতা জন বারলা।

[ফের অশান্তি পাহাড়ে, সুকনা ও ম্যালে সরকারি ভবনে আগুন]

নেপালি কবি ভানুভক্তের প্রতি আলাদা অনুভূতি রয়েছে পাহাড়বাসীর। বৃহস্পতিবার ছিল ভানুভক্তের জন্মদিন। কবির জন্মদিনে আবেগ উসকে দিতে মোর্চা এদিন সংহতি দিবস পালন করে। ভানুভক্তের জন্মদিনে কার্শিয়াংয়ের পানিঘাটায় কর্মসূচি ছিল পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেবের। পাহাড়ের পাদদেশে রাজ্য সরকারের তরফে তিনি কবি জন্মদিন পালন করতেন। এদিন সকালে গৌতম দেব অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যাওয়ার সময় বাধার মুখে পড়েন। গাছের গুঁড়ি, পাথর ফেলে রাস্তা আটকানো হয়। পানিঘাটা বাজারে রাস্তার মাঝখানে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ দেখান মোর্চা সমর্থকরা। অবস্থা বেগতিক বুঝে মন্ত্রী পিছু হটেন। বাধ্য হয়ে রাস্তার পাশে ভানুভক্তের প্রতিকৃতিতে গৌতম দেব মাল্যদান করেন। খবর পেয়ে সেখানেও মোর্চা সমর্থকরা জড়ো হন। অভিযোগ মন্ত্রী চলে যাওয়ার পর পুলিশের গাড়িতে হামলা চালায় মোর্চা সমর্থকরা। কয়েকজনকে মারধর করা হয়। এরপর ব্যাঙডুবির কাছে মন্ত্রী ভানুভক্তের জন্মদিন পালন করেন। মোর্চার এই গুন্ডামি নিয়ে মন্ত্রী বলেন, আমরা যুদ্ধ করতে আসিনি। পাহাড়ে আন্দোলনে মদত দিচ্ছে কেন্দ্র। স্থানীয় বিজেপি সাংসদ পিছন থেকে উসকানি দিচ্ছেন। চাইলেও কেন্দ্র সরকার বাহিনী পাঠাচ্ছে না। মন্ত্রীকে জন্মদিনে পালনে বাধা দেওয়ার বিষয়ে মোর্চা দায় এড়িয়েছে।

[পাহাড়ে টানা বনধে কেন্দ্র-রাজ্যের ভূমিকায় ক্ষুব্ধ কলকাতা হাই কোর্ট]

মোর্চার নিশানায় পাহাড়ের উন্নয়ন গঠিত ১৫টি পর্ষদের পদাধিকারীরা। শুক্রবার সন্ধে ৬টার মধ্যে তাদের পদ ছাড়তে হবে। এই মর্মে হুঁশিয়ারি দিয়েছে মোর্চা। কথা না শুনলে তাদের নামের পাশে গোর্খাল্যান্ডবিরোধী বলে দাগিয়ে দেওয়া হবে হুমকি দিয়েছে গুরুংয়ের দল। ঘোলা জলে নেমে এদিন আচমকা মোর্চার আন্দোলনকে সমর্থনের কথা ঘোষণআ করেছেন আদিবাসী নেতা জন বারলা। তাঁর বক্তব্য, এবার আর বিরোধ নয়, মিলেমেশে আন্দোলন হবে। বারলার ধারণা, আলাদা রাজ্য হলে ডুয়ার্সের উন্নতি হবে। তবে আদিবাসী বিকাশ পরিষদের রাজ্য সভাপতি বিরসা তিরকে এই প্রসঙ্গে জানান, মোর্চা ডুযার্স ও তরাইয়ে অশান্তি পাকাতে চাইলে বরদাস্ত করা হবে না। প্রয়োজনে রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ হবে। ডুয়ার্স থেকে সমর্থনের অক্সিজেন পেয়েছে মোর্চা। পাশাপাশি তারা শাসক দলেও হাত বাড়িয়েছে। দার্জিলিং পুরসভার একমাত্র কাউন্সিলর চুনচুন ভুটিয়া মোর্চায় যোগ দিয়েছেন। মোর্চার হুঁশিয়ারিতে রাজ্য সরকারের দেওয়া পদক ও পুরস্কার ফেরাচ্ছেন বিশিষ্টরা। বৃহস্পতিবার ভানুভক্ত স্মৃতি পুরস্কার ফেরান কৃষ্ণ সিং মুক্তান, সঙ্গীত সম্মান ফেরান কর্মন ইয়ানজন, শিক্ষারত্ন পুরস্কার ছেড়ে দিয়েছেন প্রভাত প্রধান। এদিন দুপুরে বাংলা-সিকিম সীমানায় রংপো পুলিশ ফাঁড়ি ঘেরাও করে মোর্চা।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement