১৩  আষাঢ়  ১৪২৯  বুধবার ২৯ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

এবার যৌনপল্লির সঙ্গে জড়ানো হল বিবেকানন্দের নাম!

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: December 13, 2016 9:12 am|    Updated: December 13, 2016 9:12 am

Ghatal’s Red Light Area To Be Known As Vivekananda More

শ্রীকান্ত পাত্র: ঘাটালের পতিতাপল্লির নাম বদলে হচ্ছে বিবেকানন্দ মোড়৷ ঘাটাল শহরের পরিচিত ময়রাপুকুর মোড় পতিতাপল্লি নামেই পরিচিত৷ এই পল্লিতে ৫০ জনের বেশি যৌনকর্মী ব্যবসায় যুক্ত৷ তাঁরা সবাই পরিবার-পরিজন নিয়েই থাকেন৷ স্থানীয়দের দাবি, অন্তত ৭০ থেকে ৮০ বছর ধরে এই পরিবারগুলি এখানে নিজেদের ব্যবসা করে আসছেন৷ ঘাটাল-পাঁশকুড়া রাজ্য সড়কের উপর শ্যামপুরে ঘাটালের বিখ্যাত ময়রাদের পুকুর রয়েছে৷ বিশাল এই পুকুরের পাড়েই গড়ে উঠেছে যৌনকর্মীদের আবাসস্থল৷ এই জায়গা একসময় ময়রাদের দোকান থেকে শুরু করে বিভিন্ন ব্যবসার কেন্দ্রস্থল ছিল৷ যা আজও রয়েছে৷ শুধু তাই নয়, এই মোড়ে ঘাটাল-পাঁশকুড়া রাজ্য সড়কের পাশে গড়ে উঠেছে প্রচুর বাস-লরির যন্ত্রাংশের দোকান ও গ্যারাজ৷ ফলে বেশ জনবহুল এলাকাই বলা যায়৷ একদিকে চলে গিয়েছে চন্দ্রকোনা এবং অন্যদিকে চলে গিয়েছে পাঁশকুড়াগামী বাস রাস্তা৷ আর একটি চলে গিয়েছে ঘাটাল শহরের প্রাণকেন্দ্র তথা পুরসভামুখী রাস্তা৷ রয়েছে ঘাটাল-মেদিনীপুর বাস স্ট্যান্ড৷ এই তেমাথার মোড়েই গড়ে উঠেছে এই যৌনপল্লি৷ কলকাতার সোনাগাছির দুর্বার মহিলা সমিতির একটি শাখাও রয়েছে এখানে৷ ময়রাপুকুর মোড়ের পরিচিতি জেলা ছাড়িয়ে অন্য জেলায়ও চলে গিয়েছে৷ কিন্তু এই নামবদল কেন?
ঘাটালের ময়রাপুকুর মোড় গেলেই চোখের সামনে যৌনপল্লির ছবি ভেসে ওঠে৷ এই ছবিই চলে আসছে বছরের পর বছর৷ ঘাটাল পুরসভার দুই নম্বর ওয়ার্ডের অন্তর্গত এই যৌনপল্লি৷ এখানে যৌনকর্মীরা ছাড়াও প্রচুর সাধারণ পরিবার যেমন রয়েছে, তেমনি রাজ্য সরকারের কয়েকটি অফিস রয়েছে৷ রয়েছে অনেক বেসরকারি অফিসও৷ অদূরেই রয়েছে ঘাটাল থানা৷ রয়েছেন প্রচুর ব্যবসায়ীও দোকানদার৷ জানা গিয়েছে, স্থানীয় বাসিন্দারা নিজেদের ময়রাপুকুর মোড়ের বাসিন্দা বলতে সংকোচ বোধ করেন৷ লজ্জায় অনেকে জায়গার নাম পর্যন্ত উচ্চারণ করতে চান না৷ বিষয়টি ঘাটাল পুর কর্তৃপক্ষের নজরেও আসে৷ তারপরই পুর কর্তৃপক্ষ নামবদলের উদ্যোগ নেয় বলে জানা গিয়েছে৷ ঘাটাল পুরসভার চেয়ারম্যান বিভাস ঘোষ বলেন, “লজ্জা-সংকোচে অনেকে নিজেদের ময়রাপুকুর মোড়ের নাম বলতে চান না৷ তাই আমরা ওই জায়গার নাম পরিবর্তন করে বিবেকানন্দ মোড় নাম দিতে চাইছি৷ তার প্রক্রিয়াও শুরু হয়েছে৷”
জানা গিয়েছে মোড়েই বসবে ছয় ফুট উচ্চতার ব্রোঞ্জের বিবেকানন্দ মূর্তি৷ কিন্তু বিবেকানন্দর নাম কেন? বিভাসবাবু বলেন, “বিবেকানন্দ চেয়েছিলেন সমাজের সবচেয়ে পিছিয়ে পড়া মানুষজন সামনের সারিতে আসুক৷ তাঁরা সমাজে মর্যাদা পান৷ তাই ওই মোড়ের বিবেকানন্দ মোড় নামকরণ করতে চেয়েছি৷” পুর কর্তৃপক্ষের ওই উদ্যোগকে শহরের সর্বস্তরের মানুষ সাধুবাদ জানিয়েছেন৷ কী বলছেন যৌনকর্মী সন্ধ্যা, শেফালি, ললিতা, চন্দনারা? সন্ধ্যাদেবী বললেন, “একজন মহাপুরুষের নামে আমাদের পাড়ার নামকরণ হবে এ তো ভাল কথা৷ আশা করি এবার আমাদের আর বেশ্যা বলে কটাক্ষ করবে না কেউ৷ আমরা পুর কর্তৃপক্ষকে সেলাম জানাচ্ছি৷”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে