১৫ ফাল্গুন  ১৪২৭  সোমবার ১ মার্চ ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

১১ বছর ধরে নিখোঁজ, তামিল যুবককে পরিবার খুঁজে দিল হ্যাম রেডিও

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: August 18, 2019 4:33 pm|    Updated: May 18, 2020 4:00 pm

An Images

নিজস্ব সংবাদদাতা, বনগাঁ: রাজ্য হ্যাম রেডিও ক্লাবের সদস্যদের সহযোগিতায় ১১ বছর বাড়ি ফিরলেন নিখোঁজ এক ব্যক্তি। প্রায় ১ বছর ধরে বনগাঁ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। ওয়েস্টবেঙ্গল হ্যাম রেডিও ক্লাবের সদস্যদের প্রায় তিন মাসের চেষ্টায় খোঁজ মেলে ওই ব্যক্তির পরিবারের।

[আরও পড়ুন:‘দিদিকে বলো’ নম্বরে ফোন করেই মুশকিল আসান, বাড়ি পেলেন কাটোয়ার মহিলা]

জানা গিয়েছে, বছর খানেক আগে রেললাইনের ধারে ওই ব্যক্তিকে পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা। খবর পেয়ে পুলিশ তাঁকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে ভরতি করেন। কিন্তু ওই ব্যক্তি মানসিক ভারসাম্যহীন হওয়ায় তাঁর থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে খোঁজখবর চালিয়েও কারও হদিশ পাননি পুলিশ আধিকারিকরা। তাঁর ভাষাও বুঝতে পারছিলেন না কেউ। এরপর পরিবারের খোঁজ পেতে হ্যাম রেডিও ক্লাবের সদস্যদের গোটা ঘটনার কথা জানানো হয়। পরিচয়ের সন্ধানে তদন্ত শুরু করে ক্লাব কর্তৃপক্ষ। তিন মাস পর অবশেষে সন্ধান মেলে ওই ব্যক্তির পরিবারের। এরপর ওই ব্যক্তির ছবি তাঁর বাড়িতে পাঠালে দেখে তাঁকে শনাক্ত করেন পরিবারের সদস্যরা।

জানা গিয়েছে, রেল লাইনের পাশ থেকে উদ্ধার হওয়া ওই ব্যক্তির নাম জানকি। বছর ৪৭। তামিলনাড়ুর ভুল্লাপুরার বাসিন্দা ওই ব্যক্তি পেশায় ছিলেন দিনমজুর। হাসপাতাল সূত্রে খবর, আর্থিক স্বচ্ছলতা না থাকলেও জোনাকির বাড়ির লোকেরা খবর পাওয়া মাত্র তাঁকে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য রওনা হয়েছেন। হ্যাম রেডিও ক্লাবের সম্পাদক অম্বরীশ নাগ বিশ্বাস জানান, “ওই যুবক ১১ বছর আগে নিখোঁজ হয়েছিলেন। মোবাইলে ওর ভাষা রেকর্ড করে তামিল ভাষা জানা এক ব্যক্তিকে দিয়ে ওর সঙ্গে কথা বলিয়ে ওর নাম ঠিকানা আমরা উদ্ধার করি।” দীর্ঘদিন পর অবশেষে জানকির পরিবারের হদিশ মেলায় খুশির হাওয়া বনগাঁ মহকুমা হাসপাতালেও। হাসপাতাল সুপার শংকরপ্রসাদ মাহাতো জানান, “প্রয়োজন হলে জানকির পরিবারকে আর্থিকভাবে সাহায্য করে তাঁর বাড়ি ফেরার ব্যবস্থা করা হবে।”

[আরও পড়ুন:তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের নোংরা জলে বাড়ছে বিপদ, কোলাঘাটে বিক্ষোভে গ্রামবাসীরা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement