৯ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

রাজ্যে জোড়া উপনির্বাচন, কড়া নিরাপত্তায় ভোটগ্রহণ উলুবেড়িয়া ও নোয়াপাড়ায়

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 29, 2018 4:16 am|    Updated: January 29, 2018 4:26 am

An Images

সন্দীপ মজুমদার ও আকাশনীল ভট্টাচার্য: একই দিনে রাজ্যে জোড়া উপনির্বাচন। সকাল থেকেই কড়া নিরাপত্তায় ভোটগ্রহণ চলছে উলুবেড়িয়া লোকসভাকেন্দ্র ও নোয়াপাড়া বিধাসভাকেন্দ্রে। নোয়াপাড়ায় বিক্ষিপ্ত কিছু অশান্তির ঘটনা ঘটলেও, মোটের উপর শান্তিতেই চলছে ভোটগ্রহণ পর্ব। অন্যদিকে, উলুবেড়িয়ায় বেশ কয়েকটি বুথে বিরোধী দলের এজেন্টদের বসতে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ। বিরোধীদের দাবি, আমতা, উদয়নারাণপুর-সহ বেশ কয়েকটি জায়গায় পর্যাপ্ত কেন্দ্রীয়ও বাহিনীও নেই।

[মুর্শিদাবাদে ভয়াবহ পথ দুর্ঘটনা, নদীতে তলিয়ে গেল যাত্রীবাহী বাস]

২০০৯ সালে হাওড়া উলুবেড়িয়া লোকসভাকেন্দ্র থেকে সাংসদ নির্বাচিত হয়েছিলেন তৃণমূলের সুলতান আহমেদ। গত লোকসভা ভোটে দু’লাখের বেশি ভোটে জিতেছিলেন তিনি। কিন্তু, মাস পাঁচেক আগে আচমকাই প্রয়াত হন তৃণমূল সাংসদ সুলতান আহমেদ। উপনির্বাচনে উলুবেড়িয়া লোকসভা কেন্দ্রে প্রয়াত সাংসদের স্ত্রী সাজদা বেগমকেই প্রার্থী করেছে তৃণমূল। এই কেন্দ্রে প্রার্থী দিয়েছে সিপিএম, কংগ্রেস ও বিজেপিও। সকাল সাতটা থেকে শুরু হয়ে গিয়েছে ভোটগ্রহণ। প্রতিটি বুথ ও লাগোয়া মোতায়েন করা হয়েছে কেন্দ্রীয় বাহিনী। তবে সকালে দিকে কোনও বুথেই ভোটারদের লম্বা লাইন চোখে পড়েনি। সকালে নির্দিষ্ট বুথে গিয়ে ভোট দিয়েছেন তৃণমূল প্রার্থী সাজদা বেগম। এদিকে,  এখনও পর্যন্ত অশান্তির খবর না থাকলেও, বেশ কয়েকটি এজেন্টদের বসতে দেওয়া হয়নি এবং উদয়নারায়ণপুর ও আমতার বিভিন্ন এলাকায় পর্যাপ্ত কেন্দ্রীয় বাহিনী নেই বলে অভিযোগ করেছে বিরোধীরা। এরইমধ্যেই আবার ২৩১ নম্বর বুথে এভিএম খারাপ থাকা বেশ কিছুক্ষণ বন্ধ ছিল ভোটগ্রহণ।

[ঘরে দাদার রক্তাক্ত মৃতদেহ, বারান্দায় পায়চারি করছে ভাই]

তবে শুধু উলুবেড়িয়া লোকসভাকেন্দ্রেই শুধু নয়, এদিন সকাল থেকে ভোটগ্রহণ চলছে উত্তর ২৪ পরগনার নোয়াপাড়া বিধানসভা কেন্দ্রেও। এই কেন্দ্রটি তৃণমূলের দখলেই ছিল। কিন্তু, ২০১৬ সালে বিধানসভায় ভোটে নোয়ারাড়া থেকে নির্বাচিত হন বিরোধী জোটের প্রার্থী কংগ্রেসের মধুসুদন ঘোষ। কিন্তু, বিধানসভার মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই প্রয়াত হন বিধায়ক। তাই উলুবেড়িয়ার সঙ্গে এখানে উপনির্বাচন হচ্ছে। ভোটগ্রহণ পর্বে অশান্তি এড়াতে প্রায় মোতায়েন প্রায় ৫ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী। প্রতিটি বুথেই কড়া নজরদারিতে চলছে ভোটগ্রহণ। সকালে গাড়ুলিয়া পুর এলাকা ৪ নম্বর ওয়ার্ডে বিজেপিকে এজেন্টকে মারধরের অভিযোগকে কেন্দ্র করে সাময়িক উত্তেজনা ছড়িয়েছিল। তবে বিচ্ছিন্ন কিছু ঘটনা বাদ দিলে, নোয়াপাড়া বিধানসভাকেন্দ্রের উপনির্বাচনে ভোটগ্রহণ এখনও পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ।

[বিরল পরিযায়ীদের কলরবে মুখরিত গজলডোবা ব্যারেজ, উচ্ছ্বসিত পর্যটকরা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement