২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৬ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

করোনা আবহে রাজ্যে বন্ধ স্কুল, মার্চের বদলে জুনে হতে পারে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা?

Published by: Sayani Sen |    Posted: September 23, 2020 8:07 pm|    Updated: September 23, 2020 8:07 pm

An Images

দীপঙ্কর মণ্ডল: করোনা আতঙ্কে গত মার্চ থেকেই বন্ধ রয়েছে রাজ্যের সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। আনলক ফোরের গাইডলাইন অনুযায়ী নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত ক্লাস চালুর কথা জানায় কেন্দ্র। তবে সেই সিদ্ধান্তের সঙ্গে সহমত হতে পারেনি রাজ্য সরকার। তাই তাদেরও ক্লাস শুরু হয়নি। এই পরিস্থিতিতে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার (Higher Secondery Exam) দিনক্ষণ বদলের সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। শিক্ষামহলের অন্দরে কান পাতলে শোনা যাচ্ছে এমনই জল্পনা।

আগামী বছর কবে মাধ্যমিক (Madhyamik) এবং উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা কবে হবে তা নিয়ে এখনও সিদ্ধান্ত হয়নি। মধ্যশিক্ষা পর্ষদ এবং উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ এ নিয়ে প্রাথমিক আলোচনা শেষ করেছে। স্বশাসিত দুই সংস্থা সূত্রে খবর, আগামী বছর রাজ্যের বিধানসভা ভোটের কথা মাথায় রেখে ফেব্রুয়ারি মাসে পরীক্ষা নেওয়ার কথা ভাবা হচ্ছে। মার্চেই সাধারণত উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা হয়। ২০২১ সালে যারা মাধ্যমিক দেবে, তাদের আড়াই মাসের মতো ক্লাস হয়েছে। তবে ২১ সালের উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের একদিনও ক্লাস হয়নি স্কুলে। ফলে তাদের স্কুলে পঠনপাঠনই হয়নি। সে কারণেই কীভাবে সিলেবাস শেষ হবে এবং কীভাবেই বা পরীক্ষা নেওয়া হবে তা নিয়ে চলছে জোর আলোচনা। উচ্চমাধ্যমিকের ক্ষেত্রে সিলেবাস অপরিবর্তিত রেখে পিছনো হতে পারে পরীক্ষা। কারণ, কলেজের প্রথম বর্ষের পড়ুয়াদের শিক্ষাবর্ষ শেষ হচ্ছে আগস্টে। সেক্ষেত্রে উচ্চমাধ্যমিক জুন মাস পর্যন্ত পিছিয়ে দেওয়ার ভাবনা রয়েছে। তবে আলোচনা হলেও এ বিষয়ে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।

[আরও পড়ুন: চলতি বছরেই মেটাতে হবে বকেয়া ডিএ, রাজ্যকে নির্দিষ্ট সময় বেঁধে দিল SAT]

কয়েকদিন আগে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের সভাপতি কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায় করোনা (Coronavirus) আক্রান্ত হওয়ায় আলোচনা আপাতত বন্ধ। তার পরিবর্তে মাত্র দু’দিন আগে পর্ষদ সভাপতির দায়িত্ব নিয়েছেন কার্তিক চন্দ্র মান্না। তাই তিনিও মাধ্যমিক নিয়ে কোনও সিদ্ধান্ত নিতে পারেননি। সর্বভারতীয় বোর্ডগুলি সিলেবাস কাটছাঁটের কথা ইতিমধ্যেই ঘোষণা করেছে। তবে পর্ষদ এবং সংসদের তরফে এ নিয়ে এখনও সিদ্ধান্ত ঘোষণা হয়নি। রাজ্যের স্কুলশিক্ষা বিশেষজ্ঞ কমিটি এই বিষয়ে কয়েকটি ভারচুয়াল বৈঠক করেছে। কমিটির চেয়ারম্যান অভীক মজুমদার জানিয়েছেন, সিলেবাস কমানো হতে পারে, তবে তা নিয়ে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। শিক্ষামহলের একটি অংশ দাবি করেছে, শিক্ষাবর্ষ পিছিয়ে আগের মতো এপ্রিল থেকে মার্চ করা হোক।

[আরও পড়ুন: রাজনীতির ঊর্ধ্বে প্রাণ! হাবড়ার তৃণমূল নেতাকে প্লাজমা দিতে হাসপাতালে ছুটলেন CPM নেতা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement