১ শ্রাবণ  ১৪২৬  বুধবার ১৭ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

শান্তনু কর, জলপাইগুড়ি: জোড়া ইলিশ৷ দাম মাত্র ১০০ টাকা৷ টাকা ফেললেই আকাশ পথে হাজির হবে পদ্মার রুপোলি ইলিশ৷ তবে শর্ত একটাই, নিজের দায়িত্বে লুফে নিতে হবে৷ বেহাত হলে বিক্রেতার কোনও দায় থাকবে না! এহেন শর্ত মানলে সীমান্তে ওপার থেকে উড়ে আসবে প্লাস্টিক বন্দি ইলিশ৷ তবে, কেনার আগে দাম-দর করাটা জরুরি৷ কেননা, বিদেশি বিক্রেতা তো৷ যদি দাম বেশ দাম হাঁকিয়ে বসে!

প্রতি বছরই পয়লা বৈশাখের দিন জলপাইগুড়ির ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের নজরদারি শিথিল করে বিএসএফ৷ পয়লা বৈশাখের দিনে ভোলাপাড়া ও ভাটপাড়া সীমান্তের বাসিন্দারা সীমান্তে মিলিত হন৷ কাঁটাতারের ভিতর দিয়েই দেখা করেন একে অপরের সঙ্গে৷ চলে উপহার ও কুশল বিনিময়৷

[ঝড়ের দাপটে মন্দিরের চূড়া ভেঙে মৃত ২, আহত ২০]

দু’পারের সীমান্তে এই উৎসবকে কেন্দ্র করে গোপনে চলে ব্যবসা৷ সীমান্ত শিথিলতার কারণে দু’পার জুড়ে চলতে থাকে ইলিশ বিক্রির রমরমা৷ বিএসএফের ভোলাপাড়া সীমান্ত প্রায় দশ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে৷ এই মিলন মেলা উদযাপিত হয় সকাল দশটা থেকে দুপুর দুটো পর্যন্ত৷

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, প্রতি বছর পয়লা বৈশাখ উপলক্ষে দু’দেশের মানুষের ভাব বিনিময়ের জন্য খানিকটা ছাড় দিয়ে থাকে বিএসএফ ও বিডিআর৷ আর সেই সুযোগে চলতে থাকে ইলিশ পাচারের কাজ৷ বিএসএফের নিরাপত্তায় সেই সুযোগে গলে কাঁটাতারের বেড়ার ফাঁক ওপারের স্বজনের জন্য চলে যাচ্ছে শাড়ি, কাপড়, বিস্কুট, কেক, মিষ্টি, চকোলেট-সহ আরও কত কী৷ বাংলাদেশি স্বজনদের থেকে আসছে প্যাকেট প্যাকেট ইলিশ৷

[রেললাইনে মহিলার দ্বিখণ্ডিত দেহ, খুনের অভিযোগে গ্রেপ্তার স্বামী]

তবে, দেদার ইলিশ বিক্রি চললেও পুরোটাই যে বেআইনি, তা খুব ভালভাবেই জানেন দু’পারের বাসিন্দারা৷ এই মুহূর্তে ইলিশ ধরা পুরোপুরি বেআইনি৷ কারণ, এখন ইলিশের প্রজননের সময়৷ এই সময়ে ইলিশ ধরার উপরও বাংলাদেশ সরকারের নিষেধাজ্ঞা রয়েছে৷ তবে, নিয়ম-কানুন শিকেয় তুলে কীভাবে সীমান্ত ইলিশ বিক্রি হচ্ছে, তা নিয়ে রীতিমতো চিন্তায় পরিবেশকর্মীরা৷ যদিও, এই নিয়ে সচেতনতা বাড়াতে শেখ হাসিনা নিজেই ইলিশের বদলে শুটকি মাছ খাওয়া পরামর্শ দিয়েছেন৷ কিন্তু, কোথায় কী? সব নিষেধাজ্ঞা উড়িয়ে বৈশাখীতেও মিলল আকাশপথে ইলিশ৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং