৫ মাঘ  ১৪২৫  রবিবার ২০ জানুয়ারি ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফিরে দেখা ২০১৮ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংগ্রাম সিংহরায়, শিলিগুড়ি: ঋতু অনুযায়ী টয়ট্রেনের জঙ্গল সাফারির সময় পরিবর্তনের দাবি উঠে গেল। গরমের সময় বিকেল সাড়ে তিনটেতে এবং শীতকালে সেটি এগিয়ে দুপুর দেড়টায় শুরু করার দাবি জানিয়ে উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলওয়ে এডিআরএম পার্থপ্রতিম রায়কে স্মারকলিপি দিল হিমালয়ান হসপিটালিটি অ্যান্ড ট্যুরিজম ডেভলপমেন্ট নেটওয়ার্কের সদস্যরা। বুধবার এডিআরএম-এর সঙ্গে দেখা করে তাঁর কাছে এটি ছাড়াও আরও বেশ কিছু দাবি তারা জানান। যাতে এই সাফারিকে আরও বেশি আকর্ষণীয় ও মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়া যায়।

সাফারি চালু হওয়ার পর যথেষ্ট পরিমাণে তার প্রচার করা হয়নি বলে অভিযোগ তুলে তাঁরা আরও বেশি বিভিন্ন গণমাধ্যমে তা প্রচারের দাবি রাখেন। পাশাপাশি জঙ্গল সাফারির সময় পুরনো হেরিটেজ কোচগুলি বহাল রাখার দাবিও রাখেন তাঁরা। সংগঠনের তরফে সাধারণ সম্পাদক সম্রাট সান্যাল বলেন, “আমরা জঙ্গল সাফারি এবং টয়ট্রেনকে আরও বেশি মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে আগ্রহী। রেলের উদ্যোগ ছাড়া তা সম্ভব নয়। গোটা দেশের মধ্যে দার্জিলিংয়ের এই হেরিটেজ সম্পত্তি একটা বিশেষ আকর্ষণের জায়গায় রয়েছে তাকে আরও বেশি করে মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে পারলে তাতে আখেরে লাভ সব স্টেকহোল্ডারদেরই। এতে রেল কর্তৃপক্ষ যেমন লাভ করতে পারবে, তেমনি রাজ্য পর্যটন দপ্তর থেকে শুরু করে স্থানীয় পর্যটন ব্যবসায়ী এবং সমস্তরকম লোকই তা থেকে লাভ ওঠাতে পারবেন। পেশাদার গাইড নিয়োগ করে জঙ্গল সাফারি সময় বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলি তুলে ধরলে তা মনোগ্রাহী হয়ে উঠবে। পাশাপাশি যারা রাইডে চড়বেন, তাদের জন্য একটি স্মারক উপহার রাখলে তা বাড়তি আকর্ষন যোগ করবে বলে তাঁদের ধারণা। পাশাপাশি রাইডের মূল্য আয়ত্ত্বের মধ্যে রাখার দাবিও জানানো হয়। সমস্ত বিষয় খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন এডিআরএম পার্থপ্রতিম রায়।

[রজ্জুপথে মসৃণ পাহাড়ের পর্যটন ভাগ্য, রোজের যাতায়াতেও রোপওয়ের ভাবনা]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং