১৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  রবিবার ৫ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ভিভিপ্যাট ব্যবহার নিয়ে এবার ভোটারদের পাঠ দেবে নির্বাচন কমিশন

Published by: Tanujit Das |    Posted: March 19, 2019 9:36 am|    Updated: April 17, 2019 2:50 pm

How to cast your vote with the help of VVPAT tech before Loksabha

স্টাফ রিপোর্টার: শেষ সুযোগ। কীভাবে ভোট দিতে হয়, হাতে কলমে শিখে নিন। তামাম রাজ্যবাসীর কাছে এই আবেদন রাখল রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের দপ্তর (সিইও অফিস)। ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে গোটা দেশে ভোটদানের জন্য ইভিএমের পাশাপাশি প্রথমবার ব্যবহার হবে ভোটার্স ভেরিফায়েবেল পেপার অডিট ট্রেল বা ভিভিপ্যাট। কিন্তু কী এই ভিভিপ্যাট? সাধারণ মানুষকে তা চেনাতে অনেক আগে থেকেই প্রচার শুরু করেছে কমিশন। ইতিমধ্যে অনেকেই জেনে গিয়েছেন ভিভিপ্যাট হল এমন একটি মেশিন, যেখানে ভোটদাতা কাকে ভোট দিয়েছেন তা ছাপানো অক্ষরে দেখা যাবে। কিন্তু কীভাবে তা কাজ করে এখনও অনেকেরই অজানা। সেজন্যই এবার রাজ্যের সমস্ত বুথে (৭৮ হাজার) আগামী ১৯ ও ২০ তারিখ রাজ্যবাসীকে ‘নকল ভোট’ দেওয়ার সুযোগ করে দিচ্ছে কমিশন।

[গোয়ার পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী প্রমোদ সাওয়ান্ত? জোটসঙ্গীদের সন্তুষ্ট রাখতে নয়া ভাবনা বিজেপির]

সমস্ত ভোটারকে এই প্রক্রিয়ায় অংশ নেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছে কমিশন। সোমবার রাজ্যের অতিরিক্ত মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক সঞ্জয় বসু বলেন, “ইভিএম—ভিভিপ্যাট একসঙ্গে কিভাবে কাজ করে তা এই দু’দিন বুথে গিয়ে হাতে কলমে দেখে নিতে পারবেন ভোটাররা। ফলে ভোটের দিন আর কোনও অসুবিধায় পড়তে হবে না।” সোমবারই সিইও অফিসের তরফে জেলাগুলিকে এই মর্মে নির্দেশ পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। এই প্রচারাভিযানে জেলার মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক (ডিইও), রিটার্নিং অফিসার (আরও), বিডিও ও সাব ডিভিশনার অফিসারদের উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট এলাকার রাজনৈতিক দলের কর্মীদেরও এই পরিকল্পনায় যুক্ত করতে জেলাগুলিকে নির্দেশ দিয়েছে মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের দপ্তর।

[বিদায় পারিকর, জনতা পরিবৃত শোভাযাত্রার পর পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শেষকৃত্য]

এদিকে প্রথম ও দ্বিতীয় দফার বিজ্ঞপ্তি জারি করে দিল কমিশন। অর্থাৎ সোমবার থেকে শুরু হয়ে গিয়েছে মনোনয়ন জমা দেওয়ার পালা। এবার গোটা মনোনয়নপর্ব ভিডিওগ্রাফি করার নির্দেশ দিয়েছে কমিশন। তাঁদের তরফে জানান হয়েছে, বিভিন্ন মিটিং মিছিলের আয়োজনের অনুমতি পেতে ইতিমধ্যেই ‘সুবিধা’ নামে একটি অ্যাপ চালু রয়েছে। রাজনৈতিক দলগুলিকে সেই অ্যাপ ব্যবহারের আবেদন জানিয়েছে কমিশন। এছাড়াও এবার ফটো ভোটার স্লিপ ভোটদানের জন্য গ্রহণযোগ্য নথির তালিকা থেকে বাদ পড়েছে। অর্থাৎ, এবার আর ফটো ভোটার স্লিপ দেখিয়ে ভোট দেওয়া যাবে না। কিন্তু সেসব সত্ত্বেও ফটো ভোটার স্লিপ বিলি করা বন্ধ করছে না কমিশন। অতিরিক্ত মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকা সঞ্জয় বসু জানিয়েছেন, প্রতিবারের মতো এবারও ভোটের পাঁচ দিন আগে ফটো ভোটার স্লিপ বিলি করা হবে৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে