২৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  শনিবার ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

রাজা দাস, বালুরঘাট: রাজ্যের সীমান্তবর্তী জেলাগুলিতে এনআরসি বিরোধী আন্দোলন ক্রমশই জোরদার হচ্ছে। দক্ষিণ দিনাজপুরের গঙ্গারামপুরে রবিবার সেই মঞ্চে উপস্থিত হয়ে জাতীয় নাগরিকপঞ্জির বিরোধিতায় সরব হলেন বাম ছাত্রনেতা কানহাইয়া কুমার। বিঁধলেন কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকারকে। তাঁর বক্তব্য, অনুপ্রবেশকারীদের হঠানোর নামে দেশের মানুষকে ‘বিদেশি’ তকমা দেওয়ার চেষ্টা চলছে। এভাবে দেশের মানুষকে ভুল বুঝিয়ে চলেছে বিজেপি। কানহাইয়ার মতে, এভাবে এনআরসি লাগু করা সম্ভব নয়।

kanhaiya-sdin-1
রবিবার দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার গঙ্গারামপুরে নাগরিকপঞ্জি বিরোধী যুক্তমঞ্চের সভায় যোগ দেন সিপিআই নেতা কানহাইয়া। এদিন গঙ্গারামপুরের রবীন্দ্রভবনে একটি সমাবেশের আয়োজন করা হয়। কানহাইয়া কুমার ছাড়াও ছিলেন প্রাক্তন মন্ত্রী তথা সিপিআই নেতা শ্রীকুমার মুখোপাধ্যায়, ছিলেন প্রসেনজিৎ বসু, অনিমেষ সাহা, অশেষ সরকার। গঙ্গারামপুরে নাগরিকপঞ্জি বিরোধী যুক্তমঞ্চের সভা থেকে কানাইয়া কুমার বলেন, ‘মানুষ যদি একবার রাস্তায় নেমে আসে তাহলে সরকারকে মাথা নিচু করতে হবে। মানুষ কেন নিজেদের নাগরিকত্বের তথ্যপ্রমাণ জমা করবেন? সরকার নিজেই খুঁজে নিক, কে নাগরিক আর কে নয়। সারা দেশের মানুষ যদি একজোট হয়ে যায়, তাহলে এনআরসি লাগু করতে পারবে না বিজেপি সরকার।’

[আরও পড়ুন: প্রতিশ্রুতি ভঙ্গের অভিযোগ, খড়গপুরে ভোট প্রচারে গিয়ে বিক্ষোভের মুখে দিলীপ ঘোষ]

তিনি আরও বলেন, ‘ভয় দেখিয়ে কোনদিন জয়ী হওয়া যায় না। ভারত একটি স্বাধীন দেশ। আর এই দেশের মানুষদের সকলেরই বসবাস করার সমান অধিকার রয়েছে। নিজের দেশের মানুষকে শরণার্থী বানিয়ে দিতে চাইছে বিজেপি। ইতিমধ্যে শরণার্থী শিবির তৈরীর প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে বলে শোনা যাচ্ছে।’ নোট বাতিলের নামে যেভাবে সাধারণ মানুষজনকে হয়রান করা হয়েছিল, তেমনই এনআরসির নামে সাধারণ মানুষের ভোগান্তি ডেকে আনা হয়েছে বলে কানহাইয়া কুমার কেন্দ্রকে সরকার আক্রমণ করেন।

[আরও পড়ুন: হোম থেকে নিখোঁজ ৭ নাবালক, কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানেই উদ্ধার তিন আবাসিক]

উদ্বাস্তু, সংখ্যালঘু, দলিত, আদিবাসী ও সাধারণ মানুষের নাগরিকত্ব কেড়ে নেওয়ার চক্রান্ত চলছে, এই অভিযোগে পাহাড় থেকে সাগর, এনআরসির যাত্রা শুরু হয়েছে যুক্তমঞ্চের তরফে। গত ১৫ নভেম্বর থেকে নাগরিকপঞ্জি বিরোধী মঞ্চ এই কর্মসূচি নিয়েছে। দার্জিলিং থেকে কাকদ্বীপ, বকখালি হয়ে ৮ ডিসেম্বর কলকাতায় মহাসমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। তার আগে পাহাড় থেকে এই সমাবেশ শুরু হয়েছে। এনআরসির বিরোধিতায় টানা ২৩ দিন ধরে সভা, সমাবেশ চলবে রাজ্যে।

শুনুন কানহাইয়ার বক্তব্য: 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং