Advertisement
Advertisement

Breaking News

হুগলি থেকে গ্রেপ্তার খাগড়াগড় বিস্ফোরণে জড়িত দুই জেএমবি জঙ্গি

রাজমিস্ত্রির ছদ্মবেশে গা ঢাকা দিয়েছিল দুই জঙ্গি৷

 Khagragarh blast: 2 accused held
Published by: Tanujit Das
  • Posted:January 29, 2019 9:54 am
  • Updated:January 29, 2019 10:27 am

অর্ণব আইচ: খাগড়াগড় কাণ্ডে বড়সড় সাফল্য এনআইএ-র৷ ওই নাশকতার সঙ্গে যুক্ত আরও দুই  জামাত-উল-মুজাহিদিন জঙ্গিকে গ্রেপ্তার করলেন জাতীয় তদন্তকারী সংস্থার অফিসাররা৷ ধৃত দুই জঙ্গির নাম কদর কাজি ও সজ্জাদ আলি৷ সোমবার রাজ্য পুলিশের সঙ্গে হুগলিতে যৌথ অভিযান চালায় এনআইএ৷ ওই অভিযানে আরামবাগের ডোঙ্গল এলাকা থেকে দুই জঙ্গিকে  পাকড়াও করা হয়৷ তদন্তকারীরা জানিয়েছেন, পুলিশের নজর এড়াতে ওই এলাকায় রাজমিস্ত্রি সেজে  গা ঢাকা দিয়েছিল জঙ্গিরা৷ তাদের জীবনযাপনও ছিল অত্যন্ত সাধারণ মানের৷

[‘বিশ্বাসঘাতক’ মৌসমকে হারাতে গনি আবেগই ভরসা কংগ্রেসের, প্রার্থী হচ্ছেন ডালুর ছেলে ]

Advertisement

খাগড়াগড় কাণ্ডের তদন্তে নেমে কদর কাজি ও সজ্জাদ আলির নাম জানতে পারেন এনআইএ তদন্তকারীরা৷ দীর্ঘদিন ধরেই এদের খোঁজ করছিলেন তাঁরা৷ কিন্তু নানা ভাবে তদন্তকারীদের চোখে ধুলো দিয়ে পালিয়ে বেরাচ্ছিল দুই জঙ্গি৷ গত বছরই এনআইএ জালে ধরা পড়ে খাগড়াগড় কাণ্ডের মাস্টারমাইন্ড কওসর৷ তার কাছ থেকেও কদর কাজি ও সজ্জাদ আলি সম্পর্কে অনেক তথ্য পান এনআইএ অফিসাররা৷ সূত্রের খবর, তাঁরা জানতে পারেন কওসরের মতোই দক্ষিণ ভারতে গা ঢাকা দিয়ে রয়েছে কদর কাজি ও সজ্জাদ আলি৷ এরপরই জঙ্গিদের খোঁজে নিজস্ব চরদের সক্রিয় করেন এনআইএ তদন্তকারীরা৷ তাঁদের মাধ্যমেই তদন্তকারীদের কাছে খবর পৌঁছেছিল যে আবারও রাজ্যে ফিরেছে কদর কাজি ও সজ্জাদ আলি৷ এরপরই আরও সক্রিয় হয়ে ওঠে এনআইএ৷

Advertisement

[তৃণমূলের পথে হেঁটে লোকসভায় বামেদের হাতিয়ারও ‘ওয়ান ইজ টু ওয়ান’]

জানা গিয়েছে, কয়েকদিন আগেই তদন্তকারীদের কাছে খবর আসে আরামবাগের ডোঙ্গল এলাকায় এদের দেখা গিয়েছে৷ সে মতো এলাকায় নজরদারি শুরু করে এনআইএ৷ কদর কাজি ও সজ্জাদ আলি নজরে এলে দীর্ঘদিন ধরে এদের গতিবিধির উপর নজর রাখেন তদমন্তকারীরা৷ অবশেষে সোমবার আরামবাগ থানাকে সঙ্গে নিয়ে যৌথ অভিযান চালিয়ে কদর কাজি ও সজ্জাদ আলিকে গ্রেপ্তার করেন তাঁরা৷ ধৃতদের কাছ থেকে ঘড়ি ও প্রচুর তার উদ্ধার হয়েছে৷ এনআইএ তদন্তকারীদের অনুমান, আবার কোনও বড়সড় নাশকতার চালানোর ছকেই এ রাজ্যে ফিরে এসেছিল কদর ও সজ্জাদ৷ নতুন করে আবারও নিজেদের মডিউলকে সক্রিয় করে তুলেছিল তারা৷ কদরের বাড়ি বর্ধমানের মঙ্গলকোটে এবং সজ্জাদের বাড়ি কান্দিতে৷ ধৃতদের সঙ্গে বীরভূমের প্রবল যোগ রয়েছে৷ সজ্জাদ নলহাটির একটি মাদ্রাসার ছাত্র এবং কদরেরও এক আত্মীয়ের বাড়ি বীরভূমেই৷ ধৃতের বোমা তৈরিকে সিদ্ধহস্ত বলে এনআইএ-র তদন্তকারীরা জানিয়েছেন৷ ধৃতদের হেফাজতে নেওয়ার জন্য মঙ্গলবার আদালতে পেশ করবেন এনআইএ তদন্তকারীরা৷

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ