BREAKING NEWS

২৮ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

অতীতের সব রেকর্ড ভাঙল সংক্রমণ, রাজ্যে একদিনে করোনা আক্রান্ত ৭৪৩ জন

Published by: Sayani Sen |    Posted: July 4, 2020 7:56 pm|    Updated: July 4, 2020 8:19 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আনলক টু’র (Unlock 2) চতুর্থ দিনে আবারও উদ্বেগ বাড়াল করোনা পরিস্থিতি। সংক্রমণের নিরিখে অতীতের সমস্ত রেকর্ডকে ভেঙে দিল রাজ্যের করোনা গ্রাফ। গত ২৪ ঘণ্টায় বাংলায় সংক্রমিত হয়েছেন ৭৪৩ জন। মৃত্যু হয়েছে ১৯ জনের। বাংলায় করোনা আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যার উর্ধ্বমুখী গ্রাফ বাড়াচ্ছে উদ্বেগ।

করোনা সংক্রমণ রুখতে জারি ছিল লকডাউন। তবে গত মাস থেকেই ধীরে ধীরে আনলক পর্বের মধ্যে দিয়ে স্বাভাবিক ছন্দে ফেরার চেষ্টা করছেন সকলেই। এই সময়েই সংক্রমণ বৃদ্ধির ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি, তা আগে জানিয়েছিলেন বিশেষজ্ঞরা। করোনা গ্রাফও যেন বিশেষজ্ঞদের সেই তত্ত্বেই সিলমোহর দিয়েছে। শনিবার রাজ্যের স্বাস্থ্যদপ্তরের তরফে প্রকাশিত মেডিক্যাল বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ৭৪৩ জন। তার ফলে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ২১ হাজার ২৩১ জন। এখনও পর্যন্ত রাজ্যে অ্যাকটিভ কেস ৬ হাজার ৩২৯। সংক্রমণের পাশাপাশি গত ২৪ ঘণ্টায় মৃতের সংখ্যাও ক্রমশই বাড়াচ্ছে দুশ্চিন্তার পারদ। একদিনে রাজ্যে মৃত্যু হয়েছে ১৯ জনের। তার ফলে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৭৩৬ জন। করোনা সংক্রমণের নিরিখে যদিও এ রাজ্যে সুস্থতার হার বেশ ভাল। রাজ্যে সুস্থতার হার ৬৬.৭২ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা যুদ্ধে জয়ী হয়েছেন ৫৯৫ জন। তার ফলে রাজ্যে মোট করোনা জয়ীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১৪ হাজার ১৬৬ জন। 

[আরও পড়ুন: লকডাউনে চিকিৎসায় মগ্ন, সাংসদ কাকলি ও বিধায়ক স্বামীর হাত ধরে জন্ম IVF শিশুদের]

লকডাউন জারি রেখে হয়তো সংক্রমণ কমানো সম্ভব হত। তবে অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে মন্দার মুখে পড়েছিলেন অনেকেই। তাই আনলকের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। করোনা সংক্রমণকে রোখার পাশাপাশি অর্থনৈতিক পরিস্থিতিকে সচল রাখার জন্য বর্তমানে লড়াই চলছে। এই পরিস্থিতিতে বাইরে বেরলে অনেক বেশি সাবধান থাকার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। যদিও সমাজে উদাসীন মানুষের অভাব নেই। তাই প্রায়শই মাস্ক ছাড়া রাস্তায় বেরতে দেখা যাচ্ছে অনেককেই। বাধ্য হয়ে তাই কঠোর নিয়ম জারি করেছে রাজ্য সরকার। এবার থেকে মাস্ক না পরলে ফের বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া হবে ওই ব্যক্তিকে। শুধু তাই নয়, ওই উদাসীন ব্যক্তির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থাও নেওয়া হতে পারে। এমনকী তাঁকে আদালতে গিয়ে মাস্ক না পরার কারণও বর্ণনা করতে হতে পারে। এখন দেখার নিয়ম জারি হওয়ার পরেও আদৌ ক’জন সচেতন হন।  

[আরও পড়ুন: পৌষমেলা বন্ধের সিদ্ধান্তে মিশ্র প্রতিক্রিয়া শান্তিনিকেতনে, বিশ্বভারতীকে সাহায্যের আশ্বাস অনুব্রতর]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement