৭  আশ্বিন  ১৪২৯  রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ঝাড়খণ্ড থেকে জঙ্গলমহলে মাওবাদী আনছে বিজেপি, বিস্ফোরক অভিযোগ মুখ্যমন্ত্রীর

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: August 9, 2018 3:53 pm|    Updated: July 29, 2019 12:21 pm

Mamata attacks BJP in Jhargram

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পঞ্চায়েত ভোটে ঝাড়গ্রাম তথা পুরুলিয়ায় বিজেপির ফলাফলে চমকে গিয়েছিল অনেকেই। দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসা শুধু নয়, গ্রামীণ স্তরের নির্বাচনে গেরুয়া শিবির শাসক তৃণমূলকে রীতিমতো টক্কর দিয়েছে জঙ্গলমহলের এই জেলায়। জঙ্গলমহলের বিজেপির এই বাড়বাড়ন্ত যে শাসকদলকে চিন্তায় রেখেছে তা বোঝা গিয়েছে ভোটের পরই।দলের সাংগঠনিক কাঠামোয় রদবদলের পাশাপাশি দলনেত্রী নিজে নিয়মিত এই দুই জেলার পরিস্থিতি খতিয়ে দেখেছেন। তাই আদিবাসী দিবসের মঞ্চ থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপির বিরুদ্ধে সুর চড়াবেন তা প্রত্যাশিতই ছিল। প্রত্যাশামতোই আদিবাসী দিবসের মঞ্চে বিজেপিকে চড়া সুরে বিঁধলেন তৃণমূলনেত্রী। সেই সঙ্গে নিজের করা উন্নয়েনের ফিরিস্তিও দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

[চাকদহে আক্রান্ত শমীক ভট্টাচার্য, বিজেপি নেতার গাড়ি ভাঙচুর]

পরিকল্পনা করেই আদিবাসী দিবস পালনের মঞ্চ হিসেবে ঝাড়গ্রামকেই বেছে নিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ঝাড়গ্রামের জনসভা থেকে বিজেপিকে কটাক্ষের সুরে বিঁধে মমতা বলেন, “বেলপাহাড়ির কিছু এলাকায় জিতে অনেকে ঝাড়খণ্ড থেকে মাওবাদী আনার চেষ্টা করছে। ওরা শান্তি চায় না। মানুষের মধ্যে বিভেদ চায়, ওরা উন্নয়ন চায় না, শান্তি বজায় না থাকলে উন্নয়ন হয় না।” ভোটের জন্য বিজেপি মানুষের মধ্যে ভেদাভেদ সৃষ্টি করছে বলেও অভিযোগ করেন তৃণমূলনেত্রী। তিনি বলেন, ভোটে জিততে বিজেপি মাহাতোদের সঙ্গে আদিবাসীদের, আদিবাসীদের সঙ্গে মাহাতোদের দ্বন্দ্ব বাঁধানোর চেষ্টা করছে, হিন্দু মুসলিমদের মধ্যেও বিভেদের রাজনীতি করার অভিযোগে বিজেপিকে কাঠগড়ায় তোলেন মমতা। তৃণমূলনেত্রীর স্পষ্ট বার্তা, ”আমাকে ছাড়া কাউকে বিশ্বাস করবেন না, আমি যতদিন আছি আমি মানুষের ক্ষতি হতে দেব না। আমরা ভাগাভাগি করি না।”

[মেদিনীপুর কাণ্ড থেকে শিক্ষা, অমিতের সভার মঞ্চ বাঁধবে রাঁচির ডেকরেটর্স]

বিজেপিকে আক্রমণের পাশাপাশি আদিবাসীদের জন্য কল্পতরু ভূমিকায় অবতীর্ণ হলেন মুখ্যমন্ত্রী। ঘোষণা করলেন ঝাড়গ্রামে তৈরি হবে নয়া বিশ্ববিদ্যালয়। জঙ্গলমহলের আদিবাসী ছাত্রছাত্রীদের আর অন্য জেলায় যেতে হবে না উচ্চশিক্ষার জন্য। অলচিকি ভাষায় শিক্ষাদান রাজ্যে আগেই শুরু হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী এদিন ঘোষণা করলেন এবার বিশ্ববিদ্যালয় স্তর পর্যন্ত পড়ানো হবে অলচিকিতে। অলচিকিতে নতুন ২০০০ শিক্ষক নিয়োগের কথাও ঘোষণা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ঝাড়গ্রামে সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল, স্টেডিয়াম তৈরি করা থেকে শুরু করে কন্যাশ্রী, রূপশ্রী সবই ঠাঁই পেয়েছিল মুখ্যমন্ত্রীর এদিনের বক্তব্যে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে