BREAKING NEWS

২২  মাঘ  ১৪২৯  সোমবার ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

লেটারহেডে আচার্য মনমোহন সিং! ফের বিতর্কে বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: December 29, 2017 6:43 am|    Updated: December 29, 2017 6:43 am

Manmohan Singh’s name on Visva-Bharati University letter pad sparks row

ভাস্কর মুখোপাধ্যায়, বীরভূম: মনমোহন সিং তো কবেই প্রাক্তন হয়ে গিয়েছেন। মোদি জমানায়ও ফের একটি লোকসভা ভোটের সময়ও হয়ে এল। কিন্তু, কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের লেটারহেডে এখনও আচার্য মনমোহন সিং-ই। এমনকী, উপাচার্যের নামে জায়গায়ও প্রাক্তনই বর্তমান। পুরনো লেটারহেড ব্যবহার করে ফের বিতর্কে বিশ্বভারতী

[গঙ্গাসাগরে নজিরবিহীন নিরাপত্তা, ৫০০ ক্যামেরায় নজরদারি প্রশাসনের]

রীতিমাফিক দেশের প্রধানমন্ত্রী কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য হন। সেই নিয়মেই ইউপিএ জমানায় বোলপুরের বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য ছিলেন তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং। কিন্তু, তারপর অজয় নদ দিয়ে অনেক জল গড়িয়ে গিয়েছে। ২০১৪ সালে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কুর্সিতে বসেছেন নরেন্দ্র মোদি। রীতিমাফিক কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয় বিশ্বভারতীর আচার্য এখন তিনিই। যদিও রাজ্যের ঐতিহ্যবাহী বিশ্ববিদ্যালয়টির লেটারহেডে অবশ্য কোনও বদল হয়নি। লেটারহেড অনুযায়ী, বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য মনমোহন সিং। শুধু তাই নয়, বিশ্ববিদ্যালয় যিনি পরিচালনা করেন, সেই উপাচার্যের নামেও ভুল। লেটারহেডে উপাচার্য হিসেবে সুশান্ত দত্তগুপ্তের নাম লেখা আছে। কিন্তু ঘটনা হল সুশান্ত দত্তগুপ্ত অনেক দিন আগেই পদত্যাগ করেছেন। এখন বিশ্বভারতীর ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য স্বপন দত্ত।

[জীবিতকে মৃত বলে ঘোষণা করে স্কুলে শোকপালন, ২ দিন ছুটি!]

বিশ্ববিদ্যালয়ের লেটারহেডে এই ভুল কীভাবে ধরা পড়ল? বহু টানাপোড়েনের পর রীতি মেনে এবারও পৌষমেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে বিশ্বভারতীতে। শুক্রবারই মেলার শেষ দিন। তবে আনুষ্ঠানিকভাবে বৃহস্পতিবারই পৌষমেলার সমাপ্তি ঘোষণা করে দিয়েছে বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ। নির্বিঘ্নেই মেলা আয়োজনে সাহায্য করার জন্য বীরভূমের জেলাশাসক ও পুলিশ সুপার বিশ্ববিদ্যালয়ের লেটারহেডে একটি চিঠি পাঠানো হয়। আর তাতেই ঘটে বিপত্তি! নজরে আসে, চিঠিটি পাঠানো হয়েছে পুরানো লেটারহেডে। সেই লেটারহেডে বিশ্বভারতী আচার্য হিসেবে মনমোহন সিং এবং উপাচার্য হিসেবে সুশান্ত দত্তগুপ্তের নাম রয়েছে। দু’জনেই এখন প্রাক্তন। এই ঘটনায় নিজেদের ভুল স্বীকার করে নিয়েছেন বিশ্বভারতীর ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য স্বপন দত্ত। তাঁর দাবি, বিষয়টি নজরে আসার পরই লেটারহেড বদলে ফের চিঠি পাঠানো হয়েছে।

[জানেন কি, ১ টাকার ছোট কয়েন না নিলে হতে পারে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড?

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে