৩০ ভাদ্র  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

শুভদীপ রায় নন্দী, শিলিগুড়ি:  চলন্ত ট্রেনে অগ্নিকাণ্ড, পুড়ে ছাই ইঞ্জিন ও একটি বগি। আতঙ্কে ট্রেন থেকে ঝাঁপ গিয়ে দু’জন যাত্রীর মৃত্যু। আহত বহু। শুক্রবার সকালে দুর্ঘটনা ঘটল শিলিগুড়ির কাছে ফাঁসিদেওয়ায়। শেষ খবর অনুযায়ী, দমকলের চারটি ইঞ্জিনের সাহায্যে ট্রেনের আগুন নিভিয়ে ফেলা গিয়েছে। কিন্ত, যাত্রীদের জন্য এখনও বিকল্প ট্রেনের ব্যবস্থা করা যায়নি।

[পাড়ার আড্ডায় বচসা, বন্ধুর হাতে খুন যুবক]

অসমের ডিব্রুগড় থেকে থেকে পাঞ্জাবের চণ্ডীগড়ের দিকে যাচ্ছিল চণ্ডীগড়-ডিব্রুগড় এক্সপ্রেস। যাত্রীরা জানিয়েছেন, শুক্রবার সকালে সাড়ে এগারোটা নাগাদ ট্রেন যখন শিলিগুড়ি লাগোয়া ফাঁসিদেওয়ার চটহাটের স্টেশনের কাছে পৌঁছায়, তখন আচমকাই বিকট শব্দ শোনা যায়। আগুন ধরে যায় ট্রেনের ইঞ্জিন ও একটি বগিতে। ছড়িয়ে পড়ে আতঙ্ক। চেন টেনে ট্রেনটিকে থামান যাত্রীরা। এরপর আতঙ্কে ট্রেন থেকে ঝাঁপ দিতে শুরু করেন তাঁরা। ট্রেন থেকে পড়ে এখনও পর্যন্ত দু’জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। আহত হয়েছেন বহু যাত্রী। চণ্ডীগড়-ডিব্রুগড় এক্সপ্রেসে অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় দমকলের চারটি ইঞ্জিন। এখনও পর্যন্ত যা খবর, ট্রেনের আগুন নিয়ন্ত্রণে চলে এসেছে। তবে ইঞ্জিন ও একটি বগি ভষ্মীভূত হয়ে গিয়েছে। এই ঘটনায় রীতিমতো আতঙ্ক ছড়িয়েছে শিলিগুড়ির লাগোয়া ফাঁসিদেওয়ার চটহাটি স্টেশনে।  শেষ খবর অনুযায়ী, অভিশপ্ত ডিব্রুগড়-চণ্ডীগড় এক্সপ্রেস এখনও ফাঁসিদেওয়ার চটহাট স্টেশনেরই কাছেই দাঁড়িয়ে রয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে রেলের অনুমান, যান্ত্রিক গোলযোগের কারণেই আগুন লেগে গিয়েছিল ডিব্রুগড়-চণ্ডীগড় এক্সপ্রেসে।

 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং