BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

পরিবহণ ব্যবস্থাকে ‘স্মার্ট’ করে শহর-শহরতলিকে জুড়ছে মেট্রো

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 27, 2016 9:59 am|    Updated: June 27, 2016 10:03 am

An Images

নব্যেন্দু হাজরা: হাঁটবেন এবার মেট্রোর সুড়ঙ্গ ধরে৷ ভাবছেন এমনটাও হয় নাকি! আরে হয়৷ বদলে যাচ্ছে মেট্রো৷ তাই বদলাবে অভ্যাসও৷ শহর হচ্ছে স্মার্ট৷ বদলে যাচ্ছে পরিবহণ ব্যবস্থাই৷ অত্যাধুনিক প্রযুক্তিকে সম্বল করে এসপ্ল্যানেডকে জংশন করে শহর-শহরতলিকে জুড়ছে মেট্রো৷ তবে নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করেই৷ এখন যেমন সুড়ঙ্গে মেট্রো আটকালে বুকের ভিতর একটু দুরুদুরু করে, তা আর  হবে না৷ সুড়ঙ্গের মাঝে মেট্রো আটকালেও আর ভয় পাবেন না৷ লাইনের পাশে থাকা টানেল ধরেই হাঁটতে থাকুন৷ ভেণ্টিলেশন শ্যাফট থাকবে যাত্রীদের উপরে ওঠার জন্য৷ এসবই বাস্তব৷ তবে শুধু পাতালপথ নয়৷ পাতালের সঙ্গে সড়ককে জুড়তে মহানগরেও চালু হবে ইণ্টিগ্রেটেড ট্রান্সপোর্ট সিস্টেম৷ ঝরঝরে ভাঙা বাস নয়৷ অ্যাপসেই জানবেন বাসের সময়সূচি৷ জানবেন রুট৷ বাতানুকূল বাসে আপনি থাকবেন গোপন ক্যামেরায় নজরবন্দি৷ মেট্রো থেকে বেরিয়েই মিলবে অটো, ক্যাব৷ সবকিছুই সিস্টেমেটিকালি৷ আর তাতেই বদলে যাবে শহরের গোটা ট্রান্সপোর্ট সিস্টেম৷ মেট্রোকে কেন্দ্র করেই আবর্তিত হবে শহরের যানবাহন৷

পরিকল্পনা ছিল তৎকালীন রেলমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের৷ তিনি চেয়েছিলেন শহর-শহরতলিকে মেট্রোর মাধ্যমে জুড়ে ফেলতে৷ সেই পরিকল্পনাই ধীরে ধীরে বাস্তবে রূপ পেতে চলেছে৷ যাতে করে যানজট এড়িয়ে অল্পসময়ে যাত্রীরা চলে যাবে এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্ত৷ অনেক স্বাচ্ছন্দ্য সম্বল করে মেট্রো ছুটবে ঝড়ের গতিতে৷ আড়াই মিনিট অন্তর চলবে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো৷ ২০১৮ সালের জুন মাসেই চলবে শিয়ালদহ থেকে সেক্টর ফাইভের পরিষেবা৷ আগামী বছরের সেপ্টেম্বর মাস থেকে নতুন রেক আসা শুরু করবে৷ প্রথম ধাপের জন্য আসছে মোট ১৪টি রেক৷ ছ’টি করে কামরা থাকবে একেকটি রেকে৷

গঙ্গার নিচ দিয়ে যাবে মেট্রো৷ যাঁরা এটাকে ‘স্বপ্ন’ ভেবেছিলেন৷ আর বছর দুয়েক পর তাঁরাই যেতে পারবেন সেই পথে৷ গঙ্গার জলের স্তরের ২৬ মিটার নিচ দিয়ে টানেল যাবে৷ টানেল হবে ৫২০ মিটার চওড়া৷ নতুন এই মেট্রোপথে মোবাইলে টাওয়ার সব সময় ধরবে৷ হেড ওয়্যারলেস সিস্টেমের মাধ্যমে যাঁরা কানে কম শোনেন, তাঁরাও শুনতে পাবেন৷ মেট্রোর চালক, কর্মী, স্টেশন ম্যানেজার প্রত্যেকে নিজেদের মধ্যে সবসময় মোবাইলের মাধ্যমে একসূত্রে থাকবেন৷ যাতে কোনও সমস্যা হলে দ্রূত মেট্রো কর্মীরা নিজেদের মধ্যে কমিউনিকেশন করতে পারেন৷ জট কাটিয়ে কাজ চলছে বাকি আরও পাঁচ মেট্রো প্রকল্পের৷ তবে কিছুটা সময় লাগবে সেই কাজ শেষ হতে৷ সে যা-ই হোক, উত্তর-দক্ষিণ মেট্রোই এতদিন ছিল শহরের লাইফলাইন৷ বাকি পাঁচ প্রকল্প বাস্তবায়িত হওয়ার পর মেট্রোহীন জীবন কার্যত ভাবতেই পারবেন না শহরবাসী৷ এমনটাই দাবি মেট্রো কর্তাদের৷

 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement