BREAKING NEWS

২৭ আষাঢ়  ১৪২৭  রবিবার ১২ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল, চিকিৎসার জন্য কলকাতার পথে মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: November 17, 2019 3:41 pm|    Updated: November 17, 2019 5:07 pm

An Images

বিক্রম রায়, কোচবিহার: উন্নত চিকিৎসার জন্য রবিবার মুখ্যমন্ত্রীর উদ্যোগে কোচবিহার থেকে কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতালের উদ্দেশ্যে রওনা দিলেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। তাঁর সঙ্গে কলকাতা আসছেন পরিবারের সদস্যরাও। বুকে ব্যাথা নিয়ে শনিবার সকালে কোচবিহারের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভরতি হয়েছিলেন মন্ত্রী। সেখানেই চলছিল তাঁর চিকিৎসা।

শুক্রবার সকালেই দলের কাজ সেরে কলকাতা থেকে কোচবিহার ফিরেছিলেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী। এরপর সারাদিন এলাকায় বিভিন্ন জায়গায় বৈঠক করেন। কর্মীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। সোমবার কোচবিহার যাবেন মুখ্যমন্ত্রী। ইন্ডোর স্টেডিয়ামে বৈঠক করবেন তিনি। সেই কারণে শুক্রবার স্টেডিয়াম পর্যবেক্ষণ করেন উন্নয়নমন্ত্রী। ঘুরে দেখেন রাসমেলা স্থল। সারাদিনের কাজ শেষে কোচবিহারের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের বাড়িতে ফেরেন তিনি। এরপর খাওয়াদাওয়া সেরে ঘুমোতে যান রবীন্দ্রনাথবাবু। পরিবারের সদস্যরা জানান, এরপর মধ্যরাত অর্থাৎ ৩ টে নাগাদ আচমকা অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। বুকে ব্যথা শুরু হয় তাঁর। বেশ কিছুক্ষণ পরও তাঁর অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় তাঁকে কোচবিহারের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভরতি করা হয়।

rabindranath-2

[আরও পড়ুন: ‘বিজেপি হাত-পা ভাঙলে আপনারাও ভাঙুন’, হুগলির সভায় হুংকার কল্যাণের]

রবিবার দুপুর পর্যন্ত কোচবিহারের ওই হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন ছিলেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। শনিবার থেকেই হাসপাতালে ছিলেন মন্ত্রীর পরিবারের সদস্য ও তৃণমূলের কর্মী-সমর্থকরা। চিকিৎসকরা জানিয়েছিলেন, আগের থেকে অনেকটাই সুস্থ রয়েছেন মন্ত্রী। কিন্তু কয়েকদিন তাঁকে পর্যবেক্ষণে রাখা হবে। এরপরই মুখ্যমন্ত্রীর উদ্যোগে মন্ত্রীকে উন্নতমানের চিকিৎসার জন্য কলকাতা নিয়ে আসার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সেই মতো রবিবার দুপুরে এয়ার অ্যাম্বুল্যান্সে এসএসকেএমের উদ্দেশে রওনা দেন রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। কলকাতার উদ্দেশে রওনা হওয়ার সময়েও দলীয় কর্মী-সমর্থকদের ঢল ছিল তাঁর চারিপাশে। প্রসঙ্গত, অল্প বয়সেই রাজনীতিতে হাতেখড়ি হয়েছিল মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষের। ২০১১ সাল থেকে নাটাবাড়ি বিধানসভার বিধায়ক নির্বাচিত হন তিনি। এরপর ২০১৬ সালে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী পদের দায়িত্ব গ্রহণ করেন।

[আরও পড়ুন: কাঁসাইয়ের গর্ভে জৈন স্থাপত্যের সন্ধান, খননকার্যের জন্য প্রশাসনের দ্বারস্থ স্থানীয়রা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement