৪ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ট্রেলারের ধাক্কায় স্কুলছাত্রী-সহ ৩ টোটো যাত্রীর মৃত্যু, উত্তেজনা এলাকায়

Published by: Shammi Ara Huda |    Posted: September 15, 2018 3:11 pm|    Updated: September 17, 2019 6:17 pm

An Images

ছবি: প্রতীকী

দেবব্রত মণ্ডল, দক্ষিণ ২৪ পরগনা:  ট্রেলারের ধাক্কায় স্কুলছাত্রী-সহ তিন টোটো যাত্রীর মৃত্যু। ঘটনার জেরে উত্তেজনা দক্ষিণ ২৪ পরগনার রামনগর কলতলাহাট এলাকায়। কাগজ বোঝাই ট্রেলারটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে যাত্রী বোঝাই টোটোতে ধাক্কা মারতেই দুর্ঘটনাটি ঘটে। ধাক্কার অভিঘাতে টোটোটি উলটে যায়। চলন্ত টোটো থেকে ছিটকে পড়েন যাত্রীরা। সেই যাত্রীদের উপর থেকেই চলে যায় ঘাতক ট্রেলারের চাকা। পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তিনজনের। মৃতদের মধ্যে একজন স্কুলছাত্রীও রয়েছে। মৃত ছাত্রী সায়নী হালদার। একাদশ শ্রেণির ছাত্রী সায়নীর বাড়ি স্থানীয় সরিষা এলাকায়। সহযাত্রী শ্রীকান্ত গায়েন, বাড়ি সরারহাট এলাকায়। তৃতীয়জন হলেন কাকলি চক্রবর্তী, বাড়ি কলতলাহাট এলাকায়। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় সায়নীর। অন্য দু’জনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ডায়মন্ড হারবার জেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন।

জানা গিয়েছে, যাত্রীবোঝাই টোটো ফলতার দিকে যাচ্ছিল। রামনগরের কাছে রাস্তায় ভিড় থাকায় টোটোর গতি শ্লথ ছিল। এইসময় ফলতাগামী কাগজ বোঝাই ট্রেলারটি ঝড়ের বেগে সেই ভিড়ের মধ্যে ঢুকে পড়ে। তীব্র গতির কারণে চালক নিয়ন্ত্রণ রাখতে পারেনি। সোজা টোটোতে ধাক্কা মারে। ট্রেলারের ধাক্কায় টোটো উলটে যেতেই যাত্রীরা রাস্তায় পড় যান। তাঁদের পিষে দিয়ে বেরিয়ে যায় ট্রেলার।

[ছেলের মৃত্যুর পর বউমা-নাতির সঙ্গে মানসিক দূরত্ব, ট্যুরিস্ট লজে আত্মঘাতী বৃদ্ধ]

বেলার দিকে ঘটনাটি ঘটায় রামনগর মোড়ে স্থানীয় জনতার ভিড় ছিল। তাঁরাই ঘাতক ট্রেলারটিকে রুখে দেন। বেগতিক বুঝে পালানোর চেষ্টা করেছিল চালক। তবে লাভ কিছু হয়নি। উত্তেজিত জনতা চালককে মারধর করে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে। এদিকে দুর্ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় ডায়মন্ড হারবার থানার পুলিশ। ঘাতক ট্রেলার ও চালককে আটক করে। সেই সঙ্গে তড়িঘড়ি দুই আহত যাত্রীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। মৃত ছাত্রী সায়নীর দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্যা পাঠানো হয়েছে। ওই ছাত্রী স্থানীয় ডায়মন্ড হারবার হাইস্কুলের একাদশ শ্রেণিতে পাঠরতা। গোটা ঘটনায় ক্ষুব্ধ জনতা রামনগর মোড়ে অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে। এর জেরে যানজটের সৃষ্টি হয়। গোটা রাস্তাতেই ফলতাগামী গাড়ির লাইন পড়ে যায়। পুলিশ ক্ষুব্ধ জনতাকে বুঝিয়ে বিক্ষোভ তুলে দিলে ধীরে ধীরে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। দিনের ব্যস্ত সময়ে এহেন মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমেছে।

[অন্তর্বাসে নেশার ক্যাপসুল! বাগডোগরায় ধৃত বিমানযাত্রী]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement