BREAKING NEWS

১৪ মাঘ  ১৪২৮  শুক্রবার ২৮ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

নাবালিকা প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ায় যুবককে বেধড়ক মার, কেটে নেওয়া হল চুল!

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: February 23, 2020 12:45 pm|    Updated: February 23, 2020 1:56 pm

Mob beaten up a youth and cuts his hair in East burdwan's bhatar on saturday

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নাবালিকা প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ায় বেধড়ক মারধর করা হল এক যুবককে। মারধরের পর তাঁর চুলও কেটে নেওয়া হয় বলে অভিযোগ। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানের ভাতারে। এই ঘটনার খবর সংগ্রহ করতে গিয়ে আক্রান্ত হন সংবাদ প্রতিদিনের প্রতিনিধি ধীমান রায়। বেধড়ক মারধর করা হয় তাঁকেও।

ঘটনার সূত্রপাত বেশ কিছুদিন আগে। পূর্ব বর্ধমানের ভাতারের বাসিন্দা এক মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর সঙ্গে প্রণয়ের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিল কাটোয়া রাজোয়া গ্রামের এক যুবক। পরীক্ষার কিছুদিন আগে প্রেমিকের হাত ধরে ঘর ছাড়ে ওই নাবালিকা। জানাজানি হতেই মেয়েকে ফিরিয়ে আনে পরিবারের সদস্যরা। কিন্তু তা সত্ত্বেও যোগাযোগ ছিল ওই যুগলের মধ্যে। জানা গিয়েছে, নাবালিকা যে কেন্দ্রে মাধ্যমিক পরীক্ষা দিচ্ছে প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করতে শনিবার সেখানে হাজির ওই যুবক। তখনই স্থানীয় কয়েকজন তাঁকে দেখে ফেলে। অভিযোগ, এরপরই জোরপূর্বক ওই যুবককে এলাকার তৃণমূলের একটি কার্যালয়ে নিয়ে গিয়ে আটকে ফেলা হয়। সেখানে রেখে বেধড়ক মারধরের পর কেটে নেওয়া হয় চুল। ঘুঁটের মালা পরিয়ে পাশের গ্রামে নিয়ে গিয়ে তাঁকে ঘোরানোর পরিকল্পনা করে অভিযুক্তরা।

[আরও পড়ুন: বেতন বাড়ল রাজ্যের এই দপ্তরের কর্মীদের, আনুষ্ঠানিক ঘোষণা মন্ত্রীর]

এই পরিস্থিতিতে এলাকারই এক যুবক খবর দেয় পুলিশে। এরপরই ভাতার থানার পুলিশ তাঁকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়। ঘটনায় জড়িত সন্দেহে গ্রেপ্তার করা হয় ৪ জনকে। এরপরই অভিযুক্তদের মুক্তির দাবিতে ক্ষোভে ফেটে পড়েন স্থানীয় ও তৃণমূল নেতৃত্বের একাংশ। দলীয় পতাকা হাতে বর্ধমান-কাটোয়াগামী সড়ক অবরোধ বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে তারা।

TMC-AGI

সেই খবর সংগ্রহ করতে গেলে ছবি তুলতে বাধা দেওয়া হয় সংবাদমাধ্যমের একাংশকে। মারধর করা হয় এক সাংবাদিককে। খবর পেয়ে ফের ঘটনাস্থলে যায় বিশাল পুলিশ বাহিনী। দীর্ঘক্ষণের চেষ্টায় আয়ত্তে আসে পরিস্থিতি। পুলিশ সূত্রে খবর ধৃতদের বিরুদ্ধে যুবককে মারধর ও অবরোধ-এর জন্য দুটি ভিন্ন ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনার পর দীর্ঘক্ষণ পেরিয়ে গেলেও এখনও থমথমে এলাকা।

[আরও পড়ুন:  কলকাতায় ‘ব্ল্যাক স্পট’ চিহ্নিত করে বসাতে হবে সিসিটিভি, প্রত্যেক থানাকে নির্দেশ পুলিশ কমিশনারের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে