BREAKING NEWS

৫ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ১৯ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

নোটের বলি আদিবাসী ভাগচাষি

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: November 22, 2016 12:14 pm|    Updated: November 22, 2016 12:14 pm

Modi’s surgical strike took another life

স্টাফ রিপোর্টার: নোটের বলি হলেন এক আদিবাসী ভাগচাষী৷ নোট-সঙ্কটের জেরে আত্মঘাতী হলেন এক ভাগচাষী৷ হাতে টাকা ভাঙাতে পারেননি৷ সমবায় থেকে টাকাও তুলতে পারেননি৷ এদিকে মজুরদের তাগাদায় জেরবার হচ্ছিলেন৷ তা থেকে মানসিক অবসাদগ্রস্ত হয়ে তিনি আত্মঘাতী হয়েছেন বলে দাবি পরিজনদের৷ একই দাবি করেছেন বর্ধমান জেলা পরিষদের সভাধিপতি দেবু টুডুও৷ সোমবার ঘটনাটি ঘটেছে তাঁরই নির্বাচনী ক্ষেত্র মধ্যে৷ কালনা-২ ব্লকের কল্যাণপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের রাহাতপুর গ্রামের শিবু মাণ্ডি (৬১) এদিন আত্মঘাতী হয়েছেন৷

এদিন বাড়ির অদূরে একটি গাছ থেকে শিবুর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়৷ সভাধিপতি দেবু টুডু বলেন, “মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মোদি সরকারের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ করছিলেন৷ কৃষক, শ্রমিকদের স্বার্থে নোট বাতিল করা হয়নি৷ এই ঘটনাই সেটা প্রমাণ করেছে৷ কৃষক-মারা কেন্দ্রীয় সরকারের সিদ্ধান্তের বলি হতে হল এই গরীব মানুষটিকে৷ আমরা পুরো বিষয়টি মুখ্যমন্ত্রীকে জানিয়েছি৷” এদিন রাতে মৃতের বাড়িতে যান তৃণমূল জেলা সভাপতি (গ্রামীণ) তথা রাজ্যের ক্ষুদ্র ও কুটিরশিল্প মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ৷ মৃতের পরিজনদের সান্ত্বনা দেন তিনি৷ সবরকম সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন তিনি৷

মৃতের স্ত্রী ও তিন ছেলে বর্তমান৷ মৃতের ছেলে অর্জুন মাণ্ডি এদিন জানন, দেড়বিঘা জমি ভাগে নিয়ে পেঁয়াজ চাষ করেছিলেন তাঁর বাবা৷ তিনি বলেন, “চাষ করতে গিয়ে শ্রমিকদের মজুরি বকেয়া হয়ে গিয়েছিল৷ সমবায় থেকে টাকা বদল করতে বা তুলতে পারেননি বাবা৷ কিন্তু মজুররা বারবার বাবাকে টাকার জন্য তাগাদা দিচ্ছিল৷ সেই নিয়ে গত কয়েকদিন ধরে মানসিক অশান্তিতে ভুগছিলেন বাবা৷” আর এক ছেলে নাগর মাণ্ডি বলেন, “জমিতে সার দেওয়ারও প্রয়োজন ছিল৷ পুরনো নোটে সার কিনতে পারছিলেন না৷ সমবায় থেকেও টাকা পাচ্ছিলেন৷ তার জন্য ফসল নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছিল৷ বাবাকে আরও হতাশাগ্রস্ত করে তুলেছিল৷” এদিন সকালে মাঠে যাওয়ার নাম করে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান শিবু৷ সকাল সাড়ে ১১টার পর বাড়ির কাছে একটি গাছে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় তাঁর দেহ ঝুলতে দেখেন স্থানীয় বাসিন্দারা৷ পরে পুলিশ দেহ উদ্ধার করে৷ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নোট বাতিল ও পর্যাপ্ত পরিমাণ টাকা ব্যাঙ্ক থেকে না তুলতে পারার সিদ্ধান্তে চাষি, শ্রমিকরা সমস্যায় পড়ছেন বলে কয়েকদিন ধরেই বলে আসছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তাঁদের সমস্যার কথা তুলে ধরেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী৷ সভাধিপতি বলেন, “কেন্দ্রের ভুল সিদ্ধান্তের বলি হতে হলে এক আদিবাসী চাষিকে৷ আমরা আন্দোলনে নামার সিদ্ধান্ত নিয়েছি৷”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে