BREAKING NEWS

২৮ আষাঢ়  ১৪২৭  বুধবার ১৫ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

প্রতিবাদের ভিন্ন অস্ত্র, ডিনার প্লেটের টিস্যু পেপারেও CAA-NRC বিরোধী স্লোগান!

Published by: Paramita Paul |    Posted: December 30, 2019 11:51 am|    Updated: December 30, 2019 4:45 pm

An Images

রাহুল চক্রবর্তী: খাসির মাংস, দই কাতলা পাতে পড়তে তখন শুধু সময়ের অপেক্ষা। পরিবেশনের জন্য তৈরি ক্যাটারিং বয়রাও। কিন্তু তার আগে প্লেটের পাশে থাকা টিস্যু পেপারটাই বারকয়েক উলটেপালটে দেখতে ব্যস্ত আমন্ত্রিতরা। ফ্রায়েড রাইস পাতে পড়ার আগে সরগরম ডিনার টেবিল। আলোচনার মধ্যমণি ওই টিস্যু পেপারে এনআরসি বিরোধী প্রতিবাদ!

নাগরিকত্ব আইন নিয়ে এখন দেশ তোলপাড়। শাসক-বিরোধী পরস্পরকে বর্ষশেষেও আক্রমণ করতে ছাড়ছে না। নাগরিকত্ব আইন বা CAA নিয়ে পক্ষে-বিপক্ষে চলছে মিটিং-মিছিল। আর এই পরিসরে বিয়ের রিসেপশন পার্টিতেও এনআরসি বিরোধী প্রতিবাদকে নতুন আঙ্গিকে নিয়ে গেলেন পাত্র। হাতিয়ার করলেন ডিনার প্লেটের টিস্যু পেপারকে।

[আরও পড়ুন : পাওনা টাকার আদায়ে যুবককে বেধড়ক মার, বাঁচাতে গিয়ে মৃত বাবা]

মুর্শিদাবাদ জেলার লালগোলার বাসিন্দা জামালউদ্দিন। বড়দিন অর্থাৎ ২৫শে ডিসেম্বর শাহনাজ বেগমের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। পেশায় ব্যবসায়ী জালালউদ্দিন। রাজনৈতিক পরিচয়ও আছে তাঁর। লালগোলা উত্তর লোকাল কমিটির ডিওয়াইএফআই—এর সভাপতি তিনি। রাস্তায় নেমে এনআরসি বিরোধী প্রতিবাদ করেছেন বেশ কয়েক দফা। এবার নিজের বিয়ের খাওয়াদাওয়ার পর্বেও সেই প্রতিবাদকে অন্যভাবে তুলে ধরলেন তিনি। ২৭ ডিসেম্বর প্রীতিভোজের অনুষ্ঠান ছিল। সেখানে কাগজের বদলে ছিল কাপড়ের তৈরি টিস্যু পেপার। তাতে এক জোড়া পায়রায় বর-কনের নাম। আর নিচে লাল অক্ষরে লেখা – ‘নো সিএএ, নো এনপিআর, নো এনআরসি’। জামালউদ্দিনের বক্তব্য, “রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ যেমন চলছে, তেমনই প্রতিবাদকে মানুষের হাতে হাতে পৌঁছে দিতেই বিয়ের রিসেপশন পার্টিতে টিস্যু পেপারকে ব্যবহার করেছি। একটাই স্লোগান, এনআরসি মানছি না, মানব না।”

[আরও পড়ুন : পকেট ডায়েরিতে উন্নয়নের খতিয়ান, পুরুলিয়ার ৫২টি প্রকল্পের বিবরণ প্রকাশ]

আমন্ত্রিত ছিলেন প্রায় বারোশো। আর কাপড়ের টিস্যু পেপার ছাপানো হয়েছিল প্রায় দু’হাজার। আমন্ত্রিতরা যাতে এই প্রতিবাদপত্রটি রেখে দিতে পারেন, তার জন্য আলাদাভাবে সাদা টিস্যু পেপারও দেওয়া ছিল। জামালউদ্দিন বলছেন, “এই টিস্যু পেপার দেখে অধিকাংশ আমন্ত্রিত সাধুবাদ জানিয়েছেন। আগামী বৈবাহিক জীবনের আশীর্বাদের সঙ্গে মিলেছে পাশে থাকার বার্তা।”

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement