BREAKING NEWS

২৯ শ্রাবণ  ১৪২৭  শনিবার ১৫ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

জাতীয় সড়কে ধসের নেপথ্যেও কাটমানি! কাঠগড়ায় তৃণমূল

Published by: Tanumoy Ghosal |    Posted: August 1, 2019 5:19 pm|    Updated: August 1, 2019 5:39 pm

An Images

সুরজিৎ দেব, ডায়মন্ড হারবার:  ডায়মন্ড হারবারে যখন গঙ্গা সৌন্দর্যায়নের কাজ চলছে, ঠিক তখন নদীগর্ভে তলিয়ে গেল জাতীয় সড়ক একাংশ। এই ঘটনায় রাজ্যের শাসকদলকেই কাঠগড়ায় তুলেছে বিরোধীরা। সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তীর অভিযোগ, মাটি পরীক্ষা কিংবা নদী বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ ছাড়াই স্রেফ কাটমানির লোভে সাধারণ মানুষকে বিপদে ফেলেছেন তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা-মন্ত্রীরা। ঘটনার নিরপেক্ষ তদন্তের দাবি করেছে বিজেপিও।

[আরও পড়ুন: ধসে নদীগর্ভে জাতীয় সড়কের একাংশ, বন্ধ কলকাতা-কাকদ্বীপ যোগাযোগ ব্যবস্থা]

বৃহস্পতিবার সাতসকালে ডায়মন্ড হারবারের জেটিঘাটের কাছে ১১৭ নম্বর জাতীয় সড়কে ধস নামে। নদীগর্ভে তলিয়ে গিয়েছে রাস্তার একটি বড় অংশ। বিপর্যস্ত সড়ক পরিবহণ। কলকাতা থেকে নামখানাগামী বাসগুলি এখন আমতলার শিরাকোল দিয়ে ঘুরপথে চলছে। বিপাকে পড়েছে নিত্যযাত্রীরা। শুধু তাই নয়, জাতীয় সড়কের ধসের কারণে গঙ্গার জল এলাকায় ঢুকে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন ডায়মন্ড হারবার শহরের ৫,৬ ও ১০ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দারা। আপাতত রাস্তার ধসে যাওয়া অংশে বালির বস্তা দিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করছে প্রশাসন। এলাকায় রীতিমতো মাইকিং করে স্থানীয় বাসিন্দাদের সতর্কও করা হচ্ছে। প্রশাসনের দাবি, আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ১১৭ নম্বর জাতীয় সড়ক দিয়ে হালকা যানচলাচল শুরু করা যাবে।

কিন্তু জায়মন্ড হারবারে জাতীয় সড়কে ধস নামল কেন?  গত কয়েক দিন ধরে এলাকায় গঙ্গার সৌন্দর্যায়নের কাজ চলছে। স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, ভারী মেশিনের কম্পনে মাটি সরে গিয়েই বিপত্তি ঘটেছে। বুধবার বেলার দিকে ডায়মন্ড হারবারে গিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন বিধায়ক ও বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী। তাঁর প্রশ্ন, গঙ্গার সৌন্দর্যায়নের কাজ শুরুর আগে কি মাটি পরীক্ষার ব্যবস্থা করেছিল প্রশাসন? নদী বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ কি নেওয়া হয়েছিল?  যদি মাটি পরীক্ষা বা নদী বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নেওয়া হয়ে থাকে, তাহলে সেই রিপোর্ট অবিলম্বের প্রকাশ্যে আনার দাবি তুলেছেন যাদবপুরের সিপিএম বিধায়ক। যদি সব নিয়ম মেনে গঙ্গায় সৌন্দর্যায়নের কাজ হয়ে থাকে, তাহলে জাতীয় সড়কে ধস নামল কেন?  প্রশ্ন তুলেছেন বিজেপির ডায়মন্ড হারবার মণ্ডলের সভাপতি দেবাংশু পাণ্ডাও। ঘটনার নিরপেক্ষ তদন্ত করে দোষীদের শাস্তিও দাবি তুলেছেন তিনি।

এদিকে বিরোধীর যাবতীয় অভিযোগ ‘হাস্যকর’  বলে উড়িয়ে দিয়েছেন  তৃণমূল পরিচালিত দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা পরিষদের সভাধিপতি শামিমা শেখ। তাঁর সাফাই, নিয়ম মেনে মাটি পরীক্ষা করে ডায়মন্ড হারবারে গঙ্গা সৌন্দর্যায়নের কাজ শুরু হয়েছে। সাধারণ মানুষকে উত্ত্যক্ত করার জন্য মিথ্যা কথা বলছে বিরোধীরা। এদিন ডায়মন্ড হারবারে দ্রুত রাস্তা মেরামত করা নিয়ে কলকাতায় বৈঠক করেন সেচ দপ্তর ও পূর্ত দপ্তরের আধিকারিকরা।

[ আরও পড়ুন: পদোন্নতির দাবিতে সরব জুনিয়র কনস্টেবলরা, সোশ্যাল মিডিয়ায় বাড়ছে ক্ষোভ]

     

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement