২৩ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১০ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

২৩ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১০ ডিসেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

অর্ণব আইচ: লটারিতে পুরস্কার দেওয়ার নাম করে প্রতারণা। পিছনে পাকিস্তানের চক্র। এমনকী, পাক চর আইএসআইয়ের মদতে এই চক্র চলছে, এমন সম্ভাবনাও পুলিশ উড়িয়ে দিচ্ছে না। এবার এই চক্র সম্পর্কে রাজ্যবাসীকে সতর্ক করল সিআইডি। চালু হল নতুন হেল্পলাইন নম্বর। হেল্পলাইন ২৪৪৮৭ বা ০৩৩২৪৪৯০২৫৩ নম্বরে ফোন করলেই মিলবে পুলিশের সাহায্য।

“আপনি লাকি ড্র তে জিতেছেন। মোটা পুরস্কার আপনার হাতে। কিছু টাকা ফি দিলেই আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে পাঠিয়ে দেওয়া হবে পুরস্কারের টাকা।” হিন্দিতে আসা এই ফোন পেয়ে অনেকেই ফাঁদে পড়েছেন প্রতারকদের। কলকাতা ও রাজ্যে অনেকের কাছেই এই ফোন এসেছে। ফোনগুলির শুরু ০০৯২ বা +৯২ দিয়ে। আবার কখনও ‘মোডাস অপারেন্ডি’ পাল্টে প্রতারকরা হোয়াটস অ্যাপ কলও করে তারা। বরং যিনি অচেনা নম্বর দেখে ফোন ধরে না, তাঁর কোনও সমস্যা হয় না। কিন্তু ওই ফোন ধরলেই প্রতারকরা ফঁাদে ফেলতে শুরু করে। তারা ওই ব্যক্তি বা মহিলাকে বলে, তিনি লাকি ড্র বা একটি লাইভ শো-এর মাধ্যমে লটারি জিতেছেন। কয়েক লক্ষ টাকা তাঁর প্রাপ্য। আবার কখনও মূল্যবান গাড়ির টোপও দেওয়া হয়। এতে পা দেন অনেকে। সিআইডি সূত্র জানিয়েছে, গত জানুয়ারি মাসে এভাবেই পূর্ব মেদিনীপুরের এগরার এক বাসিন্দা প্রতারকের ফাঁদে পা দেন। এ ছাড়াও আরও রাজ্যের  অনেকেই এই ধরনের প্রতারণার জালে পড়েছেন বলেও পুলিশের কাছে খবর আসে।

অনেক সময় প্রতারকরা মিসড কলও দেয়। তাতে সাড়া দিয়ে অনেকে আবার পাল্টা ফোনও করেন। দেখা গিয়েছে, প্রতারকরা বলে, পুরস্কারের টাকা পেতে গেলে একটি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে কিছু টাকা জমা দিতে হবে। অনেকেই সেই ফাঁদে পা দিয়ে সেই অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠান। কিন্তু মাসের পর মাস চলে গেলেও সেই টাকা তাঁরা ফেরত পান না, অ্যাকাউন্টেও এসে পৌঁছয় না পুরস্কারের টাকা। আবার এও দেখা গিয়েছে, যে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে প্রতারকদের টাকা পাঠানো হয়েছে, সেই অ্যাকাউন্টের বিস্তারিত তথ্য জেনে হানা দিয়েছে প্রতারকরা। অ্যাকাউন্ট থেকে তুলে নিয়েছে প্রচুর টাকা। তদন্ত করে দেখা গিয়েছে, এই পুরো চক্রের পিছনে রয়েছে পাকিস্তানের কয়েকটি চক্র। এমনকী, এই চক্রগুলি আইএসআই নিয়ন্ত্রণ করছে, এমন সম্ভাবনাও পুলিশ উড়িয়ে দিচ্ছে না। সেই কারণেই সিআইডি-র পক্ষ থেকে চালু করা হয়েছে হেল্পলাইন নম্বর। সিআইডি-র সতর্কবার্তা অনুযায়ী, কারও কাছে যদি ০০৯২ বা +৯২ অথবা ৯২ দিয়ে শুরু বারোটি সংখ্যার কোনও নম্বর থেকে ফোন আসে, তবে তঁারা যেন ফোন না ধরেন। এভাবেই পাকিস্তানের প্রতারণা চক্রের হাত থেকে রাজ্যবাসী বাঁচতে পারেন। তবে যদি কেউ ভুল করে ফোন ধরেও ফেলেন, তবে তাঁরা হেল্পলাইনে ফোন করলেই সাহায্য পাবেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

[আরও পড়ুন: ঢেউয়ের সঙ্গে পাড়ে লাফিয়ে এল ইলিশ, দিঘার সৈকতে শোরগোল]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং