২৬ বৈশাখ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ১৭ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বঙ্গে প্রচারে জোর, ঝাড়গ্রামে বুথ কর্মীদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্স মোদির

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: February 28, 2019 5:13 pm|    Updated: February 28, 2019 5:13 pm

PM addresses party workers in Bengal

সুনীপা চক্রবর্তী, ঝাড়গ্রাম: ভোটের প্রচারে একাধিক কর্মসূচি নিয়েছে বিজেপি। তার মধ্যে অন্যতম ‘মেরা বুথ, সবসে মজবুত’-এর মাধ্যমে জনসংযোগ শুরু করে দিলেন নরেন্দ্র মোদি। ভোটের আগে এই কর্মসূচিতে মূলত বুথ স্তরের কর্মীদের কার্যপদ্ধতি ঠিক করে দেওয়া হবে। বাংলায় নিজেদের মাটি শক্ত করতে বৃহস্পতিবার ঝাড়গ্রাম থেকে শুরু হল কাজ। এদিন জেলা বিজেপি কার্যালয়ে পাঁচ মিনিট ধরে জেলার নেতাদের সঙ্গে আলোচনা হয় তাঁর। গোপীবল্লভপুর ১ নং ব্লকের বিজেপি নেতা গৌরব রাজ কুণ্ডুই ছিলেন মূল সংযোগকারী। আসন্ন লোকসভা ভোটে জেলা স্তরে বিজেপির রণকৌশল কী হবে, সে বিষয়ে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে তাঁদের পরামর্শ দিয়েছেন মোদি।

[৮ দিন পর নিরুদ্দেশ মাকে খুঁজে পেলেন ছেলে, সৌজন্যে সোশ্যাল মিডিয়া]

সূত্রের খবর, গোপীবল্লভপুরের বিজেপি নেতা গৌরবের প্রশ্ন ছিল, বিরোধীরা যে একজোট হচ্ছে, তার মোকাবিলায় কি আলাদা কোনও কর্মসূচি আছে? তাতে মোদি জানিয়েছেন, বিরোধীরা অস্তিত্বের সংকটে পড়ে জোটের তোড়জোড় করছে। বিশেষত কংগ্রেস। এটা অনেকটা তেল-জলের মিশ্রণের মতো। এনিয়ে আলাদা করে ভাবনার কিছু নেই বলে তাঁদের জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। বুথ স্তরে যেভাবে বিজেপি কাজ করছে, তাতেই আরও জোর দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন মোদি। রাজ্যের নেতাদের সঙ্গে এই প্রথমবার ভিডিও কনফারেন্সে কথা বললেন প্রধানমন্ত্রী। রাজ্য বিজেপি সূত্রে খবর, ঝাড়গ্রামে বিশেষ নজর দেওয়ার জন্য মেরা বুথ, সবসে মজবুত কর্মসূচি শুরু হল ঝাড়গ্রাম থেকে। এরপর রাজ্যের অন্যান্য বুথের কর্মীদের সঙ্গেও একইভাবে কথা বলবেন নরেন্দ্র মোদি।

[অপ্রাপ্তবয়সে পালিয়ে বিয়ে, বাড়ির চাপে আত্মহত্যার চেষ্টা দম্পতির]

নতুন দলে যোগ দেওয়ার পর এই প্রথম দলীয় কর্মসূচিতে দেখা গেল ঝাড়গ্রামের প্রাক্তন পুলিশ সুপার ভারতী ঘোষকে। এদিনের ভিডিও কনফারেন্সে উপস্থিত ছিলেন তিনি। ঝাড়গ্রাম বহু পরিচিত জায়গা। তাই কি সেখান থেকেই রাজনৈতিক কেরিয়ার শুরু করতে চান? সাংবাদিকদের এই প্রশ্নের উত্তরে ভারতী ঘোষ জানিয়েছেন, দল তাঁকে যেখানকার দায়িত্ব দেবে, সেখানে কাজ করতেই তিনি প্রস্তুত। তবে ঝাড়গ্রামকে বাড়তি গুরুত্ব দিচ্ছে বিজেপি। সেদিক থেকে তিনি ঝাড়গ্রামে কাজ করতে আগ্রহী বলে জানিয়েছেন ভারতী ঘোষ। ফলে রাজনৈতিক মহলের একাংশের মত, ঝাড়গ্রামে ভারতী ঘোষের দীর্ঘ চেনা পরিচিতিকে রাজনৈতিক কাজে লাগাতে পারে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। ফলে এই অঞ্চলে তৃণমূলকে জোর টেক্কা দিতে চলেছে বিজেপি।এদিনের আলোচনায় ছিলেন রাজ্যে বিজেপির পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়।

bharati-ghosh

ছবি: প্রতীম মৈত্র

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে