৩১ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

রাজা দাস, বালুরঘাট: অন্তঃসত্ত্বাকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ উঠল দেওরের বিরুদ্ধে। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ দিনাজপুরের বালুরঘাটের কুমারগঞ্জ থানার জাকিরপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের দোরাহার এলাকায়। বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পর রবিবারই অভিযুক্তের বিরুদ্ধে কুমারগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন নির্যাতিতার স্বামী। তবে এখনও বেপাত্তা অভিযুক্ত।

[আরও পড়ুন: তৃণমূল কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ, প্রতিবাদে রেল অবরোধ বিজেপির]

জানা গিয়েছে, রবিবার ভোরে ঘর থেকে বের হন ওই মহিলা। অভিযোগ, সেসময় হঠাৎ তাঁর পথ আটকায় অভিযুক্ত মানিকজার মণ্ডল। তিনি সম্পর্কে ওই বধূর দেওর। অভিযোগ, সেই সময় জোরপূর্বক ওই বধূকে আটকে রাখার চেষ্টা করে অভিযুক্ত। এরপর হাতে আঁঠা লাগিয়ে ওই মহিলাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে সে। সেই সময় বধূর চিৎকার শুনতে পেয়ে ঘটনাস্থলে যান বধূর স্বামী। জানা গিয়েছে, অন্তঃসত্ত্বা ওই বধূ আতঙ্কেই সংজ্ঞাহীন হয়ে পড়েন। সেই অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করে প্রথমে কুমারগঞ্জ গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁকে বালুরঘাট সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে।  

[আরও পড়ুনবিজেপিকে ভোট দিলে কন্যাশ্রী থেকে বাদ, তৃণমূল নেতার নিদানে বিতর্ক]

ইতিমধ্যেই বধূর স্বামী আবুল খায়ের মণ্ডল তাঁর ভাইয়ের বিরুদ্ধে কুমারগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযুক্তের সন্ধানে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। যদিও এখনও খোঁজ মেলেনি অভিযুক্তের। নিগৃহীতার স্বামী জানিয়েছেন, এদিন সকালে স্ত্রীর আর্তনাদ শুনে তিনি অনুমান করেন, তাঁর বাবা অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। বাইরে বেরিয়েই দেখেন সংজ্ঞাহীন অবস্থায় পড়ে রয়েছে তাঁর স্ত্রী। নিগৃহীতার বক্তব্যের ভিত্তিতেই অভিযুক্তের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তবে ঘটনার পিছনে পারিবারিক কোনও সমস্যা ছিল কিনা তা নিয়ে ধন্দে পুলিশ।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং