BREAKING NEWS

২৩ শ্রাবণ  ১৪২৭  শনিবার ৮ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

গরমে গরম হবে পিঁয়াজের বাজারও, মাথায় হাত মধ্যবিত্তর

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: February 25, 2018 10:43 am|    Updated: September 16, 2019 3:46 pm

An Images

শ্রীষিতা ঘোষ: ঝাঁজে নয়। সামনের গরমে পিঁয়াজের দামে জল আসতে চলেছে আম আদমির চোখে।

খুচরো বাজারে এখন থেকেই ৪০ থেকে ৪২ টাকা কিলো দরে পিঁয়াজ বিকোচ্ছে। কৃষি বিপণন দফতর সূত্রে খবর, নাসিক, রাজস্থান, দক্ষিণ ভারত থেকে পিঁয়াজের উপযুক্ত জোগানের অভাবেই এই অগ্নিমূল্য। গরমের শুরুতে পিঁয়াজের দর আরও বাড়তে চলেছে। আগামী কয়েক মাস তা কমার সম্ভাবনাও প্রায় নেই বললেই চলে। ফলে পিঁয়াজ নিয়ে এখন থেকেই ঘোর চিন্তায় মধ্যবিত্ত।

কেন পিঁয়াজের দাম ঊর্ধ্বমুখী?

[বেল্টের নিচে তিন কোটি টাকার সোনা! পাচারের পথে জালে তিন ট্রেন যাত্রী]

রাজ্য সরকারের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণে তৈরি টাস্ক ফোর্সের সদস্য রবীন্দ্রনাথ কোলে জানিয়েছেন, রাজ্যের পেঁয়াজের চাহিদার সিংহভাগই জোগান দেয় মহারাষ্ট্র ও রাজস্থানের পিঁয়াজ। বিশেষ করে মহারাষ্ট্রের নাসিকের পিঁয়াজের চাহিদা বাংলার বাজারে খুবই বেশি। কিন্তু এবার সেখানেও পিঁয়াজের টানাটানি চলছে। ওই রাজ্যগুলিতে উৎপাদন বেশ কম হয়েছে এবার। এদিকে রাজ্যের পরিবেশে শুধুমাত্র জানুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত তিন মাস পিঁয়াজের ফলন হয়। বাকি ৯ মাস অন্য রাজ্য থেকে আমদানি করেই চাহিদা মেটাতে হয়।

গত বছর ডিসেম্বরে অকালবর্ষণের কারণে রাজ্যে শীতের সবজির আকাল দেখা গিয়েছিল। উৎপাদনও হয়েছে কম। আর তাই এখনও আকাশছোঁয়া সবজির দাম। চড়া দাম টম্যাটোরও। মাঝে হঠাৎ করে একধাক্কায় দাম বেড়েছিল ডিমেরও। সেই তালিকায় এবার নাম লিখিয়েছে সাধের পিঁয়াজ। গত কয়েক মাসে বেশ কয়েকবার পিঁয়াজের দাম ওঠানামা করেছে। পাইকারি থেকে খুচরো বাজার। পেঁয়াজের ঝাঁঝে জেরবার রাজ্যের মানুষ।

খুচরো ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, বর্ষার আগে ও রবিতে মহারাষ্ট্র ও গুজরাটে যে পিঁয়াজ চাষ হয় তার উৎপাদন এবার অনেকটাই মার খেয়েছে। সাধারণত যত উৎপাদন হয়ে থাকে তার ৪০ শতাংশও এবার হয়নি। ফলে সেখান থেকে পিঁয়াজ আমদানি হচ্ছে না। সেখানকার চাহিদা মেটাতেই ওই পিঁয়াজ চলে যাচ্ছে। স্বাভাবিকভাবে জোগান কম থাকার দরুণ খুচরো বাজারে দাম বাড়ছে পিঁয়াজের। রবীন্দ্রনাথ কোলের কথায়, উত্তরোত্তর পিঁয়াজের দাম বৃদ্ধি নিয়ে উদ্বিগ্ন টাস্ক ফোর্স। জোগান যদি না বাড়ে, তাহলে দাম আরও বাড়বে। এ বিষয়ে খোঁজখবর করে দেখা হচ্ছে।

[মেট্রোয় আত্মহত্যা রুখতে নয়া ব্যবস্থা, প্ল্যাটফর্মে বসছে স্ক্রিন ডোর]

মাংসের ঝাল ঝাল কষাই হোক বা সাধারণ আলু-ভাতে। সবেতেই পরিত্রাতা পিঁয়াজ। বারবার দাম বাড়ায় তাই রীতিমতো সিঁদুরে মেঘ দেখছেন ক্রেতারা। ভাতের পাতে একটুকরো কাঁচা পিঁয়াজও প্রায় ব্রাত্য হতে বসেছে সাধারণ মধ্যবিত্ত বাঙালির। পিঁয়াজ কাটার আগেই চোখে জল চলে আসছে। আপাতত তাই কোনওমতে অল্প পরিমাণ পিঁয়াজ কিনেই হেঁসেল ঠেলছে আমবাঙালি।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement