BREAKING NEWS

৫ মাঘ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১৯ জানুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

মানভঞ্জনের চেষ্টা নাকি সৌজন্য বিনিময়? মিহির গোস্বামী ও রবীন্দ্রনাথ ঘোষের সাক্ষাতে জল্পনা

Published by: Sayani Sen |    Posted: November 24, 2020 1:28 pm|    Updated: November 24, 2020 2:13 pm

An Images

বিক্রম রায়, কোচবিহার: দলের প্রতি যে ক্ষোভ তৈরি হয়েছে তা আগেই জানিয়েছেন। ক্ষোভের কারণও ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে বারবার উল্লেখ করেছেন কোচবিহার দক্ষিণের তৃণমূল বিধায়ক মিহির গোস্বামী (Mihir Goswami)। এই প্রেক্ষাপটেই বিধায়কের সঙ্গে দেখা করলেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। মঙ্গলবার সকালে একটানা প্রায় ৪০ মিনিট কথা হল দু’জনের। মানভঞ্জনের চেষ্টাতেই কী সাক্ষাৎ, তা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে চলছে জোর আলোচনা।

এর আগেও কোচবিহার (Cooch Behar) দক্ষিণের বিধায়কের বাড়িতে এসেছিলেন রবীন্দ্রনাথ ঘোষ (Rabindranath Ghosh)। তবে সেদিন বিধায়কের সঙ্গে দেখা হয়নি তাঁর। রাজনৈতিক মহলে প্রশ্ন উঠছে তবে কী মানভঞ্জনের জন্যই মঙ্গলবার মিহির গোস্বামীর বাড়িতে আবারও দেখা করতে আসেন রবীন্দ্রনাথ ঘোষ? যদিও সে বিষয়ে কোন মন্তব্য করতে চাননি মন্ত্রী। পরিবর্তে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী জানান, বিজয়া করতেই মূলত মিহির গোস্বামীর বাড়িতে এসেছিলেন। তবে সাক্ষাৎ হওয়ার পর নানা বিষয়ে কথা হয়েছে দু’জনের। ঠিক কী বিষয়ে কথা হয়েছে তা যদিও খোলসা করে বলেননি রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। মিহির গোস্বামীর দলের অভিমান প্রসঙ্গেও সেভাবে কিছু বলেননি মন্ত্রী। তবে তাঁর কথায়, “মিহিরদা পুরনো লোক। ছাত্র আন্দোলনের সঙ্গেও যুক্ত ছিলেন। তাই তিনি দলে থাকুন সেটাই চাইব।”

[আরও পড়ুন: ছত্রধর মাহাতোকে ‘বোকা’ বানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী, দাবি দিলীপ ঘোষের]

আগামী বছরই বিধানসভা নির্বাচন। তার আগে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব ক্রমশই জোরাল হচ্ছে। যা যথেষ্ট অস্বস্তিতে ফেলেছে ঘাসফুল শিবিরকে (TMC)। তাই তা মেটাতে তৎপর রাজ্য নেতৃত্ব। সূত্রের খবর, দিনকয়েক আগে মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ, বিনয়কৃষ্ণ বর্মন এবং জেলা তৃণমূল সভাপতি পার্থপ্রতিম রায়কে কলকাতায় ডেকে পাঠানো হয়। ওই বৈঠকে মিহির গোস্বামীর অভিমান প্রসঙ্গে আলোচনা হয়। যা মিটিয়ে নিতেও বলা হয়। সূত্রের খবর, রাজ্য নেতৃত্বের নির্দেশ পালনেই মিহির গোস্বামীর বাড়িতে রবীন্দ্রনাথ ঘোষ গিয়েছিলেন। তবে তাতে সংঘাত যে মেটেনি তা মিহির গোস্বামীর বক্তব্যেই স্পষ্ট। অবস্থান বদল করবেন না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন কোচবিহার দক্ষিণের তৃণমূল বিধায়ক। আগেই সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টের মাধ্যমে তাঁর মতামত স্পষ্ট করেছেন বলেও দাবি  মিহির গোস্বামীর।

[আরও পড়ুন: বাংলা দখলে মরিয়া বিজেপি, ডিসেম্বরের শুরুতেই রাজ্যে আসতে পারেন নাড্ডা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement