BREAKING NEWS

১০ মাঘ  ১৪২৮  সোমবার ২৪ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

‘তৃণমূল কর্মীদের স্রেফ ব্যবহার করছেন নেতারা, সতর্ক হোন’, ফের বেফাঁস রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: January 3, 2021 6:13 pm|    Updated: January 3, 2021 8:11 pm

Rajib Banerjee threats TMC leaders accussing them to 'use' the workers personally | Sangbad Pratidin

ফাইল

অরিজিৎ গুপ্ত, হাওড়া: দলের বিরুদ্ধে বেসুরো হতেই লাগাম টানার চেষ্টা করেছিল তৃণমূল শীর্ষ নেতৃত্ব। বনমন্ত্রী তথা ডোমজুড়ের বিধায়ক রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Rajib Banerjee) ডেকে আলোচনার দরজা খুলে দিয়েছিলেন তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। দু’দফার আলোচনার ফল কী হয়েছে, তা এখনও অস্পষ্ট। তবে এখনও যে দলীয় নেতাদের বিরুদ্ধে কথা বলতে এতটুকুও পিছপা হচ্ছেন না রাজীব, তা ফের বুঝিয়ে দিলেন রবিবার।

ডোমজুড়ের এক অনুষ্ঠানে দলের নেতাদের উদ্দেশে তাঁর বক্তব্য, ”তৃণমূল কর্মীদের স্রেফ সময়মতো নিজেদের কাজে ব্যবহার করা, তাদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করে যে নেতারা ঔদ্ধত্য দেখাচ্ছেন, তাঁদের আজ হুঁশিয়ারি দিয়ে গেলাম। মনে রাখবেন, আগামিদিনে আপনারা এই কর্মীদের দ্বারাই ক্ষমতাচ্যুত হবেন।”

[আরও পড়ুন: ‘দুর্নীতিগ্রস্ত, বিজেপি সমর্থনকারী’, রানাঘাটের পুর প্রশাসকের বিরুদ্ধে পোস্টার শহরজুড়ে]

রবিবার ডোমজুড়ের (Domjur) এক রক্তদান শিবিরের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে আমন্ত্রিত ছিলেন স্থানীয় বিধায়ক তথা রাজ্যের মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি সরাসরি একদল তৃণমূল নেতাকে টার্গেট করেন। বলেন, ”কোনও কোনও নেতা আছে, যাঁরা তৃণমূল কর্মীদের নাম করেন শুধু নিজেদের কাজে ব্যবহার করার জন্য। কর্মীরা কাছে গেলে তাঁদের সঙ্গে যে কী দুর্ব্যবহার করা হয়! আমার একেক সময়ে খুব খারাপ লাগে, যখন দেখি যে নেতারা শুধু কর্মীদের মনে করেন নিজেদের চাকরবাকর, শুধু নেতাদের কাজের জন্যই কর্মীরা রয়েছেন, বাড়ির কাজ করে দেবেন, নেতাদের মোটরসাইকেলে করে এখানে-ওখানে পৌঁছে দেবেন। আমি তাঁদের হুঁশিয়ারি দিয়ে যাচ্ছি, সতর্ক হোন। ভাববেন না যে তৃণমূল কর্মীরা সকলে বোকা, কিছু বোঝে না।” এরপর তাঁর আরও শ্লেষ, ”মনে রাখবেন, মানুষকে সাময়িকভাবে বোকা বানানো যায়। চিরকাল কাউকে বোকা বানানো যায় না।”

[আরও পড়ুন: পুরুলিয়ার হোমে যেতে বাধা, পুলিশের সঙ্গে বচসা-ব্যারিকেড ভাঙচুর লকেটের]

এদিনের বক্তব্যে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় নিজের বর্তমান রাজনৈতিক কেরিয়ারের জন্য তৃণমূলকে কৃতিত্ব দেননি। বরং বলেন, ”আজ আমি যা হয়েছি, বারবার বলি, তা আপানদের ভালবাসায়, ডোমজুড়বাসীর সমর্থনে। যতদিন রাজনীতি করব, আমি বলে যাচ্ছি, নিজেকে ঠকাব, তবু আপনাদের কাউকে কখনও ঠকাব না।”

দলবিরোধী এ ধরনের বক্তব্য রাজীবের নতুন নয়। আগেও বারবার দলের নেতাদের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছেন বলেই তাঁকে ডেকে আলোচনায় বসানো হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে শুভেন্দু অধিকারীর মতো তাঁরও দলবদলের সম্ভাবনা নিয়ে জল্পনা তুঙ্গে। রবিবার  তৃণমূল নেতাদের সরাসরি ‘হুঁশিয়ারি’ দিয়ে তিনি বুঝিয়ে দিলেন, তাঁর মানভঞ্জনে দলের চেষ্টা কিংবা সতর্কবার্তাকে পরোয়া করেন না। তিনি রয়েছেন নিজের পথেই।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে