BREAKING NEWS

০৯ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

রাজ্যের প্রস্তাব মানল কমিশন, পঞ্চায়েত ভোট ১৪ মে

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: April 26, 2018 4:57 pm|    Updated: August 24, 2018 6:12 pm

SEC nod to state proposal, WB panchayat polls on May 14

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাজ্যের প্রস্তাবে সায় কমিশনের৷ এক দফাতেই হচ্ছে এবারের পঞ্চায়েত ভোট৷ ১৪ মে হবে নির্বাচন৷ ভোট গণনা ১৭ মে৷ রমজানের আগেই শেষ হচ্ছে ভোটপ্রক্রিয়া৷

আইনি জটিলতা কাটার পরও ভোটের দিনক্ষণ নিয়ে জটিলতা চলছিল৷ রাজ্য নির্বাচন কমিশন ও সরকারের মধ্যে মতানৈক্যের জেরে কিছুতে দিনস্থির হচ্ছিল না৷ তবে শেষমেশ রাজ্যের বিজ্ঞপ্তির সঙ্গে সহমত হল কমিশন৷ প্রস্তাব অনুযায়ী ১৪ মে এক দফাতেই হচ্ছে এবারের পঞ্চায়েত নির্বাচন৷

[  পঞ্চায়েত হিংসা নিয়ে দিল্লিতে দরবার রাজ্য বিজেপির ]

এর আগে তিন দফায় ভোটের নির্ঘণ্ট প্রকাশ করা হয়েছিল৷ তবে আইনি জটিলতায় শেষমেশ তা বাতিল করা হয়৷ আদালতের নির্দেশেই নয়া নির্ঘণ্ট তৈরির কাজ শুরু হয়৷ কিন্তু এক্ষেত্রে অসুবিধা হচ্ছিল একটাই৷ ১৬ মে রাত থেকে রমজান শুরু৷ রাজ্য চাইছিল রমজানের আগেই ভোট মিটিয়ে নিতে৷ তা জানানো হয়েছিল কমিশনকে৷ অন্যদিকে কমিশনও তা চাইছিল, তবে কমিশনের মত ছিল অন্তত দু-দফায় হোক নির্বাচন৷ কারণ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে একটা ধন্ধ থেকে যাচ্ছিল৷ রাজ্যে প্রায় ৫৮ হাজার বুথে নির্বাচন৷ রাজ্যের হাতে সশস্ত্র বাহিনী যা আছে তাতে প্রতি বুথে অন্তত ১ জন করেও নিরাপত্তারক্ষী দেওয়া যাবে কিনা তা নিয়ে সংশয় দানা বাঁধে৷ এদিকে আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী নিরাপত্তার বিষয়টি, কোথায় কত বাহিনী মোতায়েন হয়েছে তা কমিশনকে জানাতে হবে৷ ফলে খানিকটা দোটানায় পড়েছিল কমিশন৷ পঞ্চায়েত দপ্তরের ওএসডি সৌরভ দাসের সঙ্গে এ নিয়ে দফায় দফায় একাধিক দিন বৈঠক হয়৷ যদিও কোনও সামাধান সূত্র মেলেনি৷

[  বীরভূমে স্ক্রুটিনি শেষে উধাও ‘ভূতুড়ে প্রার্থী’, ভূত পালিয়েছে দাবি অনুব্রত মণ্ডলের ]

এরপর বৃহস্পতিবার বেলা তিনটের পর কমিশনকে বিজ্ঞপ্তি পাঠায় রাজ্য৷ জানানো হয়, ১৪ মে এক দফাতেই ভোট করাতে চাইছে রাজ্য৷ নিরাপত্তার পুরো দায়িত্ব রাজ্যেরই৷ সমস্ত স্পর্শকাতর জায়গায় সশস্ত্র বাহিনী থাকবে৷ কেন্দ্রীয় বাহিনীর সাহায্য না নিয়েও নিরাপত্তা নিশ্চিত করা যাবে৷ প্রয়োজন হলে ভিনরাজ্য থেকে বাহিনী চাওয়া হবে৷ দরকার হলে কলকাতা পুলিশকেও কাজে লাগানো হবে৷ নিরাপত্তার বিষয়টি নিয়ে রাজ্যের পুরো আশ্বাস পাওয়ার পরই রাজ্যের বিজ্ঞপ্তিতে সায় দিল কমিশন৷ ফলে এক দফাতে ১৪ মে হচ্ছে পঞ্চায়েত ভোট৷ ১৬ মে হবে পুনর্নিবাচন৷ ১৭ মে হবে ভোট গণনা৷

এদিকে এরপর কড়া প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন বিজেপি নেতা প্রতাপ বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তাঁর দাবি, রাজ্যে যে জঙ্গলরাজ চলছে এরপর আর তা বলার অপেক্ষা রাখে না৷ বিরোধী দলনেতা আব্দুল মান্নান জানান, নির্বাচনের নামে প্রহসন চলছে৷ আগে তিন দফায় ভোট ঘোষণা করেছিল রাজ্য৷ আর এখন একদিনেই নিরাপত্তা নিশ্চিত কীভাবে করে ফেলল? তাঁর দাবি, ভোট করার কী দরকার! না করেই তো বলে দিতে পারত এই আসনগুলিতে জয় হয়েছে৷ বাম নেতা তথা আইনজীবী বিকাশ ভট্টাচার্যের কথাতেও একই সুর৷ তিনি জানাচ্ছেন, আর আদালতে গিয়ে কোনও লাভ নেই৷ এবার গণতন্ত্র রক্ষায় সাধারণ মানুষকেই পথে নামতে হবে৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে