BREAKING NEWS

০৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  রবিবার ২২ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বিয়ের দিনেই পাত্রের রহস্যমৃত্যু, বাড়ি থেকে উদ্ধার ঝুলন্ত দেহ

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: February 1, 2018 8:18 pm|    Updated: February 1, 2018 8:18 pm

Siliguri: Groom found hanging on marriage day

সঞ্জীব মণ্ডল, শিলিগুড়ি: বিয়ের দিনেই পাত্রের রহস্যমৃত্যু। ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল শিলিগুড়ি শহরে। বৃহস্পতিবার ভোরে ডাবগ্রামের সূর্যনগর এলাকায় উদ্ধার হয় জয়দেব ঘোষ (৪২) নামে ওই যুবকের দেহ। বাড়ির বারান্দায় মেলে দেহটি।

শিলিগুড়ি শহর সংলগ্ন ইস্টার্ন বাইপাসের আশিঘর এলাকার এক তরুণীর সঙ্গে এদিনই বিয়ে হওয়ার কথা ছিল ওই ব্যবসায়ী যুবকের। বাড়িতে মুদি দোকান রয়েছে তাঁর। জয়দেববাবুরা পাঁচ ভাই। তিন ভাই অন্য জায়গায় থাকেন। সূর্যনগরের বাড়িতে জয়দেববাবু-সহ দুই ভাই থাকতেন। পাড়ার প্রতিবেশীরাও জয়দেবকে ভাল মানুষ বলেই চেনেন বলে জানান স্থানীয় বাসিন্দা গণেশ ঘোষ। স্থানীয় কাউন্সিলর রিঙ্কি দাস বলেন, ‘এলাকায় ভাল লোক বলে পরিচিত ছিলেন জয়দেব। দেরিতে হলেও এই বিয়েতে উৎসাহ ছিল তাঁর। তবে কেন এমন কাণ্ড ঘটালেন তা বুঝতে পারছি না।’ পরিবার সূত্রে খবর, বিয়েতে নিজেই রাজি হয়েছিলেন জয়দেববাবু। কোনও মেয়ের সঙ্গে তাঁর সম্পর্কের কথা বাড়ির কারও জানা নেই বলে মৃতের ভাই ভোলা ঘোষের দাবি।

[ভিনরাজ্যে কাজে গিয়ে গৃহকর্ত্রীকে খুন, পুলিশের জালে জলপাইগুড়ির তিন যুবক ]

এদিকে বিয়ের দিন পাত্রের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধারে হতবাক পাত্রীর পরিবার। যদিও এনিয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাননি তাঁরা। এদিন ভোরে বিয়ের আচার অনুষ্ঠানের জন্য মা ছেলেকে ডাকতে গিয়ে দেখেন, বারান্দায় কিছু একটা ঝুলছে। কাছে যেতে চমকে ওঠেন তিনি। দেখেন, টিনের চালের বাটামের সঙ্গে দড়ি দিয়ে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় ঝুলছে ছেলের দেহ। খবর চাউর হতেই আশপাশের লোকজনের ভিড় জমে যায়। কান্নার রোল পড়ে। পরিবারের দাবি, বুধবার রাতেও সবকিছু ঠিকঠাক ছিল। বিয়ের সমস্ত আয়োজন সম্পূর্ণ। বাড়ি রঙ করা থেকে প্যান্ডেল বাঁধার কাজ শেষ। ছেলের বাড়ির তরফে মেয়েকে আশীর্বাদ হয়ে গিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে হঠাৎ কেন এমনটা ঘটল তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।

পুলিশ যুবকের দেহ উদ্ধার করে উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠালে এদিনই দেহটির ময়নাতদন্ত হয়। তবে কোনও সুইসাইড নোট মেলেনি। মৃতের পরিবারের সদস্যদের পাশাপাশি যে বাড়িতে তাঁর বিয়ে ঠিক হয়েছিল, প্রয়োজনে তাঁদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে পুলিশ জানিয়েছে। তবে কোনও কারণে ওই যুবক অবসাদে ভুগছিলেন, আর তারই জেরে এই আত্মহত্যা বলে বলে প্রাথমিকভাবে মনে করছে পুলিশ। এদিকে বিয়ের দিন পাত্রের অস্বাভাবিক মৃত্যুতে কনে যাতে লগ্নভ্রষ্টা না হন, সেজন্য তাঁকে বিয়ে করতে এগিয়ে আসেন স্থানীয় এক যুবক। বৃহস্পতিবার রাতেই ওই পাত্রীকে তিনি বিয়ে করবেন বলে জানান।

[মোবাইল ব্যবসার আড়ালে সাইকেল-বাইকের চোরাকারবার, জালে ২ অভিযুক্ত]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে