BREAKING NEWS

১ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

টিনের চালে মাথার খুলি, ঘরের ভিতর হাড়গোড়, হাড়হিম করা কাণ্ড শিলিগুড়িতে

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: July 29, 2020 7:55 pm|    Updated: July 29, 2020 8:01 pm

An Images

ছবি: প্রতীকী

সংগ্রাম সিংহ রায়, শিলিগুড়ি: কয়েকদিন ধরেই বাড়ি থেকে দুর্গন্ধ বের হচ্ছিল। ওয়ার্ডের সাফাইকর্মীরা তল্লাশি চালাতেই বাড়ির টিনের চালের উপর থেকে উদ্ধার হল এক জোড়া মাথার খুলি, সঙ্গে কয়েকটি হাড়ও! বাড়ির ভিতর ঢুকতে দেখা গেল ছড়িয়ে রয়েছে আবর্জনা। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করেই বুধবার সকালে চাঞ্চল্য ছড়ায় শিলিগুড়ির (Siliguri) ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের সুভাষপল্লি এলাকায়।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, সুভাষপল্লির দীনবন্ধু মিত্র সরণির ওই বাড়ির বর্তমান মালিক ভিক্টর চক্রবর্তী। বছর পাঁচেক আগে ওই যুবকের বাবার মৃত্যু হয়েছে। নেই মা। স্ত্রী পেশায় রেলকর্মী ছিলেন। তবে বাড়িতে একাই থাকতেন ভিক্টর। খুব একটা মিশতেন না কারও সঙ্গে। আচরণও ছিল অদ্ভুত। এরই মাঝে আচমকা তাঁর বাড়ি থেকে দুর্গন্ধ পেতে শুরু করেন প্রতিবেশীরা। ক্রমশ বাড়তে থাকে গন্ধের তীব্রতা। সেই কারণেই বুধবার ভিক্টরের বাড়িতে তল্লাশি চালানো হয় ওয়ার্ডের কো-অর্ডিনেটর নিখিল সাহানির নেতৃত্বে। তখনই মেলে মাথার খুলি ও হাড়গোড়। কিন্তু কোথা থেকে এল ওই খুলি? রবিনসন স্ট্রিট কাণ্ডের পুনরাবৃত্তি নয় তো? এই সমস্ত প্রশ্নের উত্তর পেতে উদ্ধার হওয়া হাড় ও খুলিগুলি ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে, জানিয়েছেন শিলিগুড়ি পুলিশের এসিপি স্বপন সরকার।

[আরও পড়ুন: করোনায় মৃত্যু ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট দেবদত্তার, বন্ধুর নামেই বাংলোর নামকরণ রঘুনাথগঞ্জের বিডিও’র]

স্থানীয়দের কথায়, ভিক্টরের আচরণে অসংগতি ছিল। দেখলেই মানসিক রোগগ্রস্ত বলে মনে হতো। এমনকী ওই ব্যক্তি বাইরে থেকে আবর্জনা এনে ঘরে জমাতেন, একথাও জানিয়েছেন স্থানীয়রা। জানা গিয়েছে, ঘটনার রহস্যভেদ করার জন্য ভিক্টরকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে পুলিশ। কিন্তু তাঁর অসংলগ্ন কথাবার্তার কারণে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে তদন্তকারীদের। তবে শুধু বাতিকের কারণেই ওই ব্যক্তি আবর্জনা জমাতেন? নাকি এর পিছনে ছিল অন্য কোনও রহস্য? তা জানার চেষ্টা করছে পুলিশ।

[আরও পড়ুন: করোনা কেড়েছে জলসা, অর্কেস্ট্রার বেতাজ বাদশা এখন সিকিউরিটি গার্ড]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement