BREAKING NEWS

১ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে নিরাপত্তারক্ষীদের মার, বিজেপি নেত্রীর পানশালায় অবাধে লুট দুষ্কৃতীদের

Published by: Sayani Sen |    Posted: July 31, 2020 8:56 am|    Updated: July 31, 2020 8:56 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ঠিক যেন হিন্দি সিনেমার দৃশ্য। রাত আটটা-সাড়ে আটটা নাগাদ আচমকাই পানশালায় ঢুকে পড়ল বেশ কয়েকজন। বের করল বন্দুক। নিরাপত্তারক্ষীদের মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে অবাধে চলল লুটপাট। ডাকাতির পর তড়িঘড়ি এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা। আসানসোলের কুলটি (Kulti) থানার ইসকো রোডের ঘটনায় স্তম্ভিত সকলেই। এলাকার নিরাপত্তা নিয়ে উঠছে প্রশ্নও।

ওই পানশালার মালিক স্থানীয় বিজেপি নেত্রী সুধা। তিনি জানান, প্রতিদিন ঠিক রাত আটটা-সাড়ে আটটা নাগাদ পানশালা বন্ধ করা হয়। বৃহস্পতিবার রাতে ঠিক পানশালা বন্ধের সময় দু’জন যুবক মদ কেনার নামে আসে। কিছু বুঝে ওঠার আগেই তারা বন্দুক বের করে ফেলে। নিরাপত্তারক্ষীর মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে ভিতরে নিয়ে যায়। প্রচণ্ড মারধরও করা হয়। অন্য কর্মীরা নিরাপত্তারক্ষীদের বাঁচাতে এগিয়ে আসে। অভিযোগ, ওই কর্মীদেরও বেধড়ক মারধর করা হয়। এরপর ক্যাশিয়ারকে ধাক্কা দিয়ে সরিয়ে দিয়ে ক্যাশ বাক্সের দখল নেয় তারা। নগদ টাকা লুট করে। সঙ্গে এক পেটি মদের বোতলও নিয়ে চম্পট দেয় দুষ্কৃতীরা। পানশালার মালিকের দাবি, কমপক্ষে ৩০-৩৫ হাজার টাকা লুট হয়েছে। এছাড়াও পানশালার কর্মীদের রুপোর গয়নাগাটিও লুট করেছে দুষ্কৃতীরা। 

[আরও পড়ুন: অনলাইন শপিং সাইটের আড়ালে অস্ত্র কেনাবেচা! ওয়েবসাইট থেকে ১০০ জনের হদিশ পেল STF]

এই ঘটনায় প্রশ্নের মুখে পুলিশি নিরাপত্তা। অনেকেই বলছেন, “এলাকার নিরাপত্তা ব্যবস্থা তেমন আঁটসাঁট হলে এমন কাণ্ড ঘটত না।” আতঙ্কেও দিন কাটাচ্ছেন অনেকেই। কুলটি থানার পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। ওই পানশালার সিসিটিভি ফুটেজে ধরা পড়েছে গোটা ঘটনা। তার সূত্র ধরেই দুষ্কৃতীদের চিহ্নিত করার চেষ্টা চলছে। এলাকায় জারি রয়েছে নাকা তল্লাশি। তবে এখনও দুষ্কৃতীদের গ্রেপ্তার করা যায়নি।

[আরও পড়ুন: তৃণমূল কার্যালয় থেকেই বীরভূমের লকডাউনের নির্ঘণ্ট ঘোষণা! ফের বিতর্কে অনুব্রত]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement