২৫ কার্তিক  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১২ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংগ্রাম সিংহরায়, শিলিগুড়ি: স্ট্রবেরি থেকে তৈরি জেলি, কেক, সন্দেশ, জুস, মিল্কশেক৷ এছাড়াও সঙ্গে রয়েছে খেত থেকে তুলে আনা গাছপাকা লাল স্ট্রবেরি। গোটা বাজার জুড়ে শুধুই  লাল। কোনওটা সিকিমের, কোনওটা রোহিনীর, আবার কোনওটা কালিম্পংয়ের৷ আর এই সব নিয়েই শিলিগুড়ি চার্চ রোডে ভেষজ হাটে রবিবার অনুষ্ঠিত হল স্ট্রবেরি উৎসব। এখানে ভিড় জমিয়েছিলেন শিলিগুড়ি ও পাহাড়ের  অগণিত স্ট্রবেরিপ্রেমী৷

[ফের তৃণমূল ও কংগ্রেসের সংঘর্ষে উত্তপ্ত চোপড়া, গুলিবিদ্ধ ২]

সিকিমের গ্যাংটক থেকে শিলিগুড়িতে স্ট্রবেরি উৎসবে যোগ দিতে এসেছিলেন এমবিএ পাশ তেনজিন তাশি। মোটা টাকার চাকরি ছেড়ে সিকিমের প্রত্যন্ত অঞ্চলে স্ট্রবেরি চাষে মনোনিবেশ করেছেন তিনি। তাঁর চাষ করা স্ট্রবেরি, সিকিম-সহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় পাঠানো হয়। এদিন তাঁর চাষ করা স্ট্রবেরির সম্ভার নিয়ে উৎসবে হাজির হয়েছিলেন তেনজিন। জানিয়েছেন, শুধু পাকা স্ট্রবেরিই নয়৷ স্ট্রবেরি ব্যবহার করেও আয়ের নতুন দিশা দেখাচ্ছেন তিনি। শিলিগুড়ি ও আশপাশের এলাকার স্ট্রবেরি চাষিরাও উৎসবে যোগ দিয়েছিলেন৷ শিলিগুড়ির মাটিগাড়ার পতিরামজোরের বাসিন্দা বিদ্যাসাগর ব্যাপারি এক বিঘা জমিতে পাঁচ হাজার স্ট্রবেরি গাছ লাগিয়েছেন। জানান, এই স্ট্রবেরি চাষ করে গত বছর লাভের মুখ দেখেছেন তিনি। এ বছরও মোটা টাকা লাভের আশা করছেন ওই কৃষক। তাঁর মতোই রোহিনীর দীনেশ দিয়ালি পাঁচ কাঠা জমিতে দেড় হাজার স্ট্রবেরি গাছ লাগিয়েছেন। তাঁর উৎপাদিত স্ট্রবেরিও আনা হয়েছিল এই উৎসবে। একইভাবে রাজাডাঙার অভিষেক আগরওয়াল, আলিপুরদুয়ারের কুমারগ্রামের দীপক মণ্ডল-সহ আরও অনেকেই হাজির হয়েছিলেন তাঁদের চাষ করা স্ট্রবেরির সম্ভার নিয়ে। পশ্চিমবঙ্গ বনউন্নয়ন নিগমের উদ্যোগে জলপাইগুড়ি চালসা লাগোয়া এলাকাতেও সম্প্রতি শুরু হয়েছে স্ট্রবেরি চাষ।

[বিস্ফোরক কিনে বোমা বাঁধার প্রস্তুতি, কবুল মহেশতলায় অগ্নিকাণ্ডে ধৃতদের]

শুধু স্ট্রবেরিকে কেন্দ্র করেই গড়ে উঠেছে একটি গোটা ইকো ভিলেজ। যার নাম দেওয়া হয়েছে স্ট্রবেরি গ্রাম। ভবিষ্যতে কমলালেবুর বিকল্প হিসেবে স্ট্রবেরি চাষ করে পাহাড়ের মানুষ আর্থিকভাবে লাভবান হতে পারেন বলে আশা করছেন স্ট্রবেরি উৎসবের মূল উদ্যোক্তা তথা পর্যটন পরামর্শদাতা রাজ বসু। তিনি জানান, স্ট্রবেরির মতো অন্যান্য লাভজনক ফসল নিয়ে প্রতিমাসে উৎসব করা হবে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং