BREAKING NEWS

১৬ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  শনিবার ৩০ মে ২০২০ 

Advertisement

ভাঙড় পরিস্থিতি কঠোর হাতেই সামলাচ্ছে প্রশাসন, ভোট নিয়ে মত পার্থর

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 14, 2018 1:13 pm|    Updated: May 14, 2018 1:13 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্কঃ ভাঙড়ের বিষয়ে পুলিশ শক্ত হাতে ব্যবস্থা নিয়েছে। ভাঙড় মানে শুধু একটা বা দুটো এলাকা নয়। অশান্তির বিক্ষিপ্ত যা ছবি দেখানো হচ্ছে তা সম্পূর্ণ নয়। ভোটের দিন সকাল থেকেই উত্তপ্ত ভাঙড় পরিস্থিতিকে এই ভাবেই ব্যাখ্যা করলেন তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

[লঙ্কা গুঁড়ো আর ভোজালি নিয়ে বুথে হামলার চেষ্টা কাঁথিতে, অভিযোগের তির বিজেপির দিকে]

পঞ্চায়েত ভোটের আগে থেকেই সংবাদ শিরোনামে ছিল ভাঙড়। জমি জীবিকা বাস্তুতন্ত্র ও পরিবেশ রক্ষা কমিটির এক সদস্যের খুনের ঘটনায় উত্তপ্ত হয়ে উঠেছিল এলাকা। অভিযোগের তির ছিল তৃণমূল নেতা তথা প্রাক্তন বিধায়ক আরাবুল ইসলামের দিকে। এরপরেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে তৎপর হয়েছিল প্রশাসন। গ্রেপ্তার করা হয়েছিল আরাবুলকে। কিন্তু মঙ্গলবার সকাল সাতটায় ভোট পর্বের শুরু থেকেই ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠে ভাঙড়। আরাবুল বাহিনীর সঙ্গে জমি জীবিকা বাস্তুতন্ত্র ও পরিবেশ রক্ষা কমিটির সংঘর্ষে উত্তেজনা ছড়ায় ভাঙড়ের পোলের হাট ২ অঞ্চলে। এছাড়া মাছিভাঙ্গায় বুথ দখলের অভিযোগ ওঠে আরাবুলের ভাই খুদে ও ছেলের বিরুদ্ধে। বিরোধীদের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়, গুন্ডাবাহিনী নিয়ে ৮৯, ৯০, ১০০ ও ১০২ নম্বর বুথ দখল করে ব্যাপক বোমাবাজি চালাচ্ছে তারা। কিছুক্ষণের জন্য বন্ধ হয়ে যায় ওই কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ। রাস্তা আটকে পুলিশের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে জমি রক্ষা কমিটির লোকেরা। ঘটনা সামাল দিতে এলাকায় নামে বিশাল পুলিশ বাহিনী, চলে পুলিশি টহল। আরাবুল বাহিনীর বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠলেও ভাঙড়ে দক্ষিণ গাজিপুরে সরিফুল মোল্লা নামে এক জমি আন্দোলনকারীকে এক নলা বন্দুক-সহ গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

[বুথ দখলকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্র কাঁকসা, ‘বহিরাগত’ তৃণমূল কর্মীদের বেধড়ক মার]

ঘটনার চিত্র প্রকাশ পাওয়ার পরেই তৎপর হয় রাজ্য নির্বাচন কমিশন। ভাঙড় কাণ্ডে এডিজি আইনশৃঙ্খলা অনুজ শর্মার কাছে রিপোর্ট তলব করেন নির্বাচন কমিশনার অমরেন্দ্র সিং।ভাঙড়ে প্রশাসনের সদর্থক ভূমিকার প্রশংসা করে তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানান, ভাঙড়ের পরিস্থিতির মোকাবিলা করবে পুলিশ ও প্রশাসন। দলের কারও বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছিল। মুখ্যমন্ত্রী নিজে নির্দেশ দিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করিয়েছেন। সরকার যে কোনও ভাবেই কোনও রকমের গণ্ডগোল বরবাস্ত করবে না তাও স্পষ্ট করে দিয়ে তৃণমূল মহাসচিবের বক্তব্য, ভাঙড়ের একটা পঞ্চায়েতে গন্ডগোল হয়েছে। বাকি এলাকায় শান্তিতে ভোট গ্রহণ চলছে। দু-একটি বিক্ষিপ্ত অশান্তি ছাড়া মোটের উপর ভোটগ্রহণ যে শান্তিপূর্ণ এমনটাই মত তাঁর। পাশাপাশি তিনি জানিয়ে দেন, সংবাদমাধ্যমের উপর আক্রমণও কোনওভাবেই মানছে না তৃণমূল কংগ্রেস।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement