১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সৌরভ মাজি ও চন্দ্রশেখর চট্টোপাধ্যায়: কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়কে নিগ্রহের ঘটনায় নাম জড়িয়েছে ছেলের। তারপর থেকেই আতঙ্কে দেবাঞ্জন বল্লভের পরিবার। বর্ধমান টাউন স্কুল চত্বরের আবাসনে থাকেন দেবাঞ্জনের বাবা চন্দনবাবু ও ক্যানসার আক্রান্ত মা রূপালীদেবী। চন্দনবাবু ওই স্কুলেই ১৯৯৪ সাল থেকে শিক্ষকতা করছেন। বৃহস্পতিবার রাতে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে বাবুল সুপ্রিয়কে নিগ্রহের ঘটনায় চন্দনবাবুর ছেলের নাম উঠে এসেছে। ছবিতে বারবার দেখা গিয়েছে সংস্কৃত কলেজের ভাষা বিজ্ঞানের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র দেবাঞ্জনকে। শুক্রবার বর্ধমানের ওই আবাসনে গিয়ে দেখা যায় বাড়ির ভিতরের দরজাটি ভিতর থেকে বন্ধ। একটি জানালা খোলা থাকলেও তা পরে বন্ধ করে দেওয়া হয়। অনেক ডাকাডাকি করলেও কেউ সাড়া দেননি। চন্দনবাবুর মোবাইলে বারবার ফোন করলেও ধরেননি।

[আরও পড়ুন: শাসকের রাজনৈতিক সৌজন্য, বিক্ষোভরত সিপিএম কর্মীদের গোলাপ উপহার বোরো চেয়ারম্যানের]

ঘনিষ্ঠমহল সূত্রে জানা গিয়েছে, টিভির পর্দায় কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে নিগ্রহের ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই আতঙ্কে রয়েছে ওই পরিবার। দেবাঞ্জনের কেরিয়ার শেষ হয়ে যাওয়ার আতঙ্ক গ্রাস করেছে তাঁদের। স্কুল সূত্রে জানা গিয়েছে, চন্দনবাবু স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছেন।

[আরও পড়ুন: লোধা সম্প্রদায়ের মন জয়ে পদক্ষেপ, চারটি গ্রামকে ‘আদর্শ’ হিসেবে গড়ে তুলবে প্রশাসন]

এদিকে, যাদবপুরে বাবুল সুপ্রিয়কে হেনস্তার প্রতিবাদে তাঁর সাংসদ এলাকায় বৃহস্পতিবার রাত থেকে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করেছে এবিভিপি, বিজেপি যুব মোর্চা ও বিজেপি নেতৃত্ব। বৃহস্পতিবার রাতে আসানসোল বাসস্ট্যান্ডে রাস্তা আবরোধ করে, টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ দেখিয়েছিল বিজেপি যুবমোর্চা। শুক্রবার রানিগঞ্জ থেকে শুরু হয় প্রতিবাদ আন্দোলন। ২ নম্বর জাতীয় সড়ক ধরে মিছিল করেন জামুড়িয়া-রানিগঞ্জের বিজেপি কর্মীরা। এদিন বিকেলে আসানসোল হটন রোডে বিক্ষোভ দেখান এবিভিপির কর্মীরা। অবরোধ করার চেষ্টা হয় কর্মীদের পক্ষ থেকে। পুলিশ অবরোধ তুলতে গেলে ধস্তাধস্তি বাধে। মিনিট ২০ পর অবরোধ তুলতে সমর্থ হয় আসানসোল দক্ষিণ থানার পুলিশ। রাত ৮টা নাগাদ বিজেপি যুবমোর্চা ও কুলটি বিজেপির পক্ষ থেকে নিয়ামতপুর মোড়ে জিটি রোডে বিক্ষোভ হয়। বিক্ষোভকারীরা এদিন রাস্তার উপর বসে পড়লে যান চলাচল ব্যাহত হয়। আধঘণ্টা পর নিয়ামতপুর ফাঁড়ির পুলিশ এসে অবরোধকারীদের হঠিয়ে দেয়।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং