২ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

পুজোর বাজার মাতাতে আসছে তাঁত কাতান

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 12, 2016 10:25 am|    Updated: July 12, 2016 10:25 am

An Images

অভিজিত্‍ চক্রবর্তী: নামকরণের অপেক্ষায় কালনার তাঁত কাতান সিল্ক৷ পুজোর বাজার ধরতে এখন জোরকদমে সমুদ্রগড়, ধাত্রীগ্রাম, নান্দাই, শ্রীরামপুর প্রভৃতি এলাকায় চলছে তাঁত কাতান সিল্ক তৈরির কাজ৷ বাকি শুধু নতুন নামকরণ৷ সমুদ্রগড় তাঁত কাপড় হাটে গত এক মাসে তিন কোটি টাকার তাঁত কাতান সিল্ক বিক্রি হয়েছে৷ হাট সূত্রের খবর, ক্রেতারা কলকাতা, হাওড়়া, আসানসোল ও শিলিগুড়ির৷ পুজোর আগে স্টক করা হচ্ছে এই নতুন তাঁত কাপড়৷ এতকাল ব্যাঙ্গালোর সিল্ক ও পলিয়েস্টারের মধ্যে সীমাবদ্ধ ছিল কাতান সিল্ক৷ একই শিল্পকলায় এবার নতুন সুতোর মোড়কে তৈরি হচ্ছে খাস বাংলার তাঁত কাতান সিল্ক৷ দক্ষিণ ভারতের মাসলাইট কটন ও আধুনিক সিল্কের সংমিশ্রণে তৈরি এটি৷ দাম ১,০০০ হাজার থেকে ৪,০০০ টাকার মধ্যে৷ সমুদ্রগড় তাঁত কাপড় হাটের এক ব্যবসায়ী সুধীর কর্মকার বলেন, “পুজোর তিন-চার মাস আগে থাকতেই কলকাতার বড় বড় বস্ত্র প্রতিষ্ঠানগুলো কাপড় কিনে স্টক করা শুরু করে৷ এ বছর এই নতুন তাঁত কাতান সিল্কই বেশি কিনছে ওই সব প্রতিষ্ঠানগুলি৷”

katan1_web
বর্ধমান জেলা তথা রাজ্যের মধ্যে তাঁত সিল্ক বলয় হিসাবে পরিচিত কালনা মহকুমায় ২০ হাজারেরও বেশি তাঁত শ্রমিক কাজ করেন৷ এর মধ্যে সমুদ্রগড় ও ধাত্রীগ্রামের তাঁতের শাড়ি ভিন রাজ্য-সহ ভিন দেশে পাড়ি দেয়৷ নানা রাজ্যে কাপড়ের মধ্যেও বাংলার তাঁত কাপড় যেন আলাদা মাত্রা এনে দেয়৷ দূর দূরান্তের পাইকারি ক্রেতারা আসেন সমুদ্রগড় তাঁত কাপড় হাটে৷ তবে পুজোর তিন-চার মাস আগে থাকতে জমে ওঠে তাঁত হাট৷
সমুদ্রগড়ের তাঁত মহাজন রণজিৎ বসাক বলেন, “আগে ছিল কাতান সিল্ক৷ দামও ছিল বেশি৷ ওই কাপড় পরলে চর্মরোগ হওয়ার সম্ভাবনা থাকে৷ এবার কাতান সিল্ক তৈরি হচ্ছে মাসলাইট কটনে৷ এটা দক্ষিণ ভারতের সুতো৷ হাতে নিলেই বোঝা যাবে কত মোলায়েম সুতো৷ সিল্কটাও দক্ষিণ ভারতের৷ দুই-এর সংমিশ্রণে তৈরি বাংলার তাঁত কাতান সিল্ক৷ কলকাতার ছ’টি প্রতিষ্ঠান থেকে ২ কোটি টাকার অর্ডার পেয়েছি৷”
গত বছর পুজোর আগে সমুদ্রগড়ের তাঁত কাপড় হাট থেকে কাপড় কেনা শুরু করে তন্তুজ৷ তবে তারা এখনও তাঁত কাপড় সংগ্রহ নামেনি৷
নতুন তাঁত কাতান সিল্কে রয়েছে নানা বৈচিত্র্য৷ নকশায় টেক্কা দেবে অন্য কাপড়কে৷ স্থানীয় তাঁত মহাজন সন্তোষ বসাক, শঙ্কর বসাক, তাপস বসাকরা জানান, এক-একটা তাঁত কাতান তৈরি করতে তিন থেকে পাঁচদিন লাগে৷ ৮০ কাউণ্ট সুতোর কাপড় এগুলো৷ এই মুহূর্তে ২-৩ হাজার কলে তাঁত কাতান সিল্ক তৈরি হচ্ছে৷ সব মালের অর্ডারও ধরা আছে৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement