BREAKING NEWS

২২ বৈশাখ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ৬ মে ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ভোটের শেষ লগ্নে হঠাৎই শ্বাসকষ্টে ভুগছেন মদন মিত্র, চলছে চিকিৎসা

Published by: Sulaya Singha |    Posted: April 17, 2021 7:17 pm|    Updated: April 17, 2021 7:26 pm

An Images

বুদ্ধদেব সেনগুপ্ত: ভোট মরশুমে প্রায় প্রতিদিনই তাঁকে ময়দানে নেমে প্রচার করতে দেখা গিয়েছে। কিন্তু নিজের কেন্দ্রের নির্বাচনের (Bengal Polls 2021) দিনই অসুস্থ হয়ে পড়লেন মদন মিত্র। হঠাৎই শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ায় তাঁকে অক্সিজেন দিতে হচ্ছে। দুই চিকিৎসকের তত্ত্বাবধানে চলছে তাঁর চিকিৎসা।

শনিবার সকালে দক্ষিণেশ্বর মন্দিরে পুজো দিয়ে বুথ পরিদর্শনে বেরিয়ে পড়েছিলেন কামারহাটির তৃণমূল প্রার্থী মদন মিত্র। হাতে পুজোর কাপড়, কপালে তিলক, চোখে সানগ্লাস, পরনে সাদা পাঞ্জাবি- নিজের চেনা মেজাজেই ধরা দিয়েছিলেন তিনি। আড়িয়াদহের বুথে পৌঁছতেই ছড়ায় উত্তেজনা। তাঁকে বুথে ঢুকতে বাধা দেওয়া হয় বলে অভিযোগ ওঠে। কেন্দ্রীয় বাহিনীর সঙ্গে সাময়িক বচসাও হয় মদনের। জানা যায়, তৃণমূল প্রার্থীর বুক পকেট সার্চ করতে যায় বাহিনী। আর এতেই মেজাজ হারান তিনি। বুথে মদনকে বলতে শোনা যায়, ‘মাই নেম ইজ মদন মিত্র। কাকে ভয় দেখাচ্ছো, মদন মিত্রকে (Madan Mitra)? পকেট সার্চ করছে!’ পকেট থেকে ঠাকুরের ছবি বের করে দেখান তিনি। ব্যঙ্গ করে বলেন, তাঁর বুক পকেটে অ্যাটম বোমা রয়েছে। এ নিয়ে ওই বুথ সাময়িকভাবে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে।

[আরও পড়ুন: মাঝরাস্তায় টাকা লুট করে চম্পট অ্যাম্বুল্যান্স চালকের, মৃত দাদাকে নিয়ে রাস্তায় পড়ে বোন]

কিন্তু একেবারে শেষ লগ্নে এসে অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। কেন হঠাৎ শারীরিক অবস্থার অবনতি হল তাঁর? তা খতিয়ে দেখছেন চিকিৎসকরা। কামারহাটি পার্টি অফিসে তাঁর চিকিৎসা চলে। তাঁর কোভিড টেস্ট করা হবে বলেও খবর।

ভ্যাপসা গরম আর করোনার চোখ রাঙানি উপেক্ষা করেই দিনের পর দিন প্রচার করেছেন মদন মিত্র। দিনে ১০-১২ কিলোমিটার হাঁটাও অভ্যাসে পরিণত হয়ে গিয়েছিল তাঁর। তিনি যে বেশ ফিট, তা তাঁর কথাবার্তাতেই স্পষ্ট। কিন্তু করোনার দাপটের মধ্যেই শ্বাসকষ্ট বাড়ায় চিন্তায় তৃণমূল কর্মী এবং তাঁর অনুরাগীরা।

[আরও পড়ুন: মিমিকে কাছে পেয়ে ভোট ছেড়ে সেলফিতে মজে পোলিং অফিসার, কড়া শাস্তি কমিশনের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement