BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘মমতার পাশে আছি’, দলবদলের জল্পনায় জল ঢেলে ফেসবুকে পোস্ট শীলভদ্রর

Published by: Sayani Sen |    Posted: May 28, 2019 11:33 am|    Updated: May 28, 2019 11:33 am

An Images

শুভময় মণ্ডল: ভরাডুবির মাঝেই কি তবে দলবদল করতে চলেছেন বারাকপুরের তৃণমূল বিধায়ক শীলভদ্র দত্ত? সোমবার থেকে রাজনীতির অলিন্দে ঘুরপাক খাচ্ছিল এই প্রশ্নই৷ শোনা যাচ্ছিল, হয়তো মঙ্গলবার দিল্লিতে গেরুয়া শিবিরে আনুষ্ঠানিকভাবে যোগ দেবেন তিনি৷ কিন্তু সেই জল্পনায় জল ঢাললেন শীলভদ্র স্বয়ং৷ অসুস্থতার জন্য হাসপাতালে ভরতি থাকায় তাঁকে দেখা যাচ্ছে না বলেই সোশ্যাল মিডিয়ার একটি পোস্টের মাধ্যমে সাফ জানিয়ে দিলেন তিনি৷

[ আরও পড়ুন: মলয় ঘটকের বৌদি ও মেয়ের পচাগলা দেহ উদ্ধার, ছড়াল চাঞ্চল্য]

লোকসভা নির্বাচনে গোটা দেশেই গেরুয়া ঝড়৷ এ রাজ্যেও পর্যুদস্ত হয়েছে তৃণমূল৷ ১৮টি আসন নিজেদের ঝুলিতে ভরেছে বিজেপি৷ বারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রেও ভরাডুবি হয়েছে ঘাসফুল শিবিরের৷ পদ্ম শিবিরের সৈনিক অর্জুন সিংয়ের কাছে হেরে গিয়েছেন তৃণমূলের দীনেশ ত্রিবেদী৷ আবার ভাটপাড়া উপনির্বাচনেও রাজনীতিতে এক্কেবারে আনকোরা অর্জুনপুত্র পবন সিংয়ের কাছে পরাজিত দুঁদে রাজনীতিক মদন মিত্র৷ এই পরিস্থিতিতেই আবার তৃণমূলের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছেন মুকুল রায়ের ছেলে শুভ্রাংশু৷ দলবিরোধী কাজের ফলে ইতিমধ্যেই ৬ বছরের জন্য তাঁকে নির্বাসিত করেছে তৃণমূল৷ রাজনৈতিক অচলাবস্থার মাঝে বাবার পথে হেঁটে শুভ্রাংশুও হয়তো গেরুয়া শিবিরে যোগ দিতে চলেছেন বলেই জল্পনা মাথাচাড়া দিয়েছিল৷ সোমবারই দিল্লিতে পৌঁছে গিয়েছেন শুভ্রাংশু৷ শোনা গিয়েছিল, বাবা-ছেলের সঙ্গে দিল্লিতে গিয়েছেন বারাকপুরের বিধায়ক শীলভদ্র দত্ত এবং নোয়াপাড়ার বিধায়ক সুনীল সিং৷ রাজনীতিকদের অনেকেই বলছিলেন, হয়তো মঙ্গলবারই গেরুয়া শিবিরে নাম লেখাবেন ওই তিনজন৷

[ আরও পড়ুন: ‘যো জাহা মিলে উড়া দো’, প্রকাশ্যে অর্জুন সিংয়ের বিস্ফোরক হুমকি ভিডিও]

শীলভদ্র দত্ত মুকুল রায়ের অনুগামী হিসেবেই পরিচিত। মুকুলের সঙ্গে তিনি দল ছাড়েননি ঠিকই। কিন্তু মুকুলের সঙ্গে শীলভদ্রের সুসম্পর্কে কখনওই ছেদ পড়েনি৷ আর এই সুসম্পর্কই গেরুয়া শিবিরে যোগদানের জল্পনায় ইন্ধন জুগিয়েছে তা বলাই বাহুল্য৷ যদিও ফেসবুক পোস্টেই সেই জল্পনা ওড়ালেন শীলভদ্র দত্ত৷ তিনি লেখেন, ‘‘আমি ৫ দিন হাসপাতালে ভরতি৷ আমি মমতা ব্যানার্জীর দল করি৷ মমতা ব্যানার্জীর সাথে আছি এবং মমতা ব্যানার্জীর সাথেই থাকব৷’’ রাজনীতিকদের একাংশ বিধায়কের দাবি মেনে নিয়েছে৷ তবে এ নিয়ে মতবিরোধও কম নয়৷ অনেকেরই দাবি, শীলভদ্র দত্তের ফেসবুক পোস্টের কোনও সত্যতা নেই৷

এদিকে, আবার সুনীল সিং বারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংয়ের নিকটাত্মীয়। অর্জুন দল ছাড়ার পর থেকেই সুনীলেরও তৃণমূল ছাড়ার সম্ভাবনা মাথাচাড়া দিয়েছিল৷ সুনীল যদিও সেই জল্পনা নস্যাৎ করে জানিয়েছিলেন, তিনি তৃণমূলেই থাকছেন। কিন্তু সুনীলের ছেলে আদিত্য বিজেপিতে যোগদান করেছিলেন। ছেলের মতো তিনিও কি পদ্মশিবিরে নাম লেখাচ্ছেন, ক্রমশই জোরদার হয়েছিল সেই গুঞ্জনও৷ তবে সুনীল সিংয়ের ঘনিষ্ঠরা সেই গুঞ্জনকে আমল দিতে নারাজ৷ তাঁদের দাবি, সুনীল সিং দিল্লিতে যাননি৷ তিনিও কলকাতাতেই রয়েছেন।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement