BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৮  মঙ্গলবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

বিধায়কের ছবি ব্যবহার করে তৈরি ব্লু ফিল্ম! বিস্ফোরক অভিযোগ উদয়ন গুহর

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: January 2, 2021 1:53 pm|    Updated: January 2, 2021 2:33 pm

TMC MP Udayan Guha's morphed images circulated online| Sangbad Pratidin

বিক্রম রায়, কোচবিহার: সাইবার ক্রাইমের (Cyber Crime) শিকার দিনহাটার তৃণমূল বিধায়ক উদয়ন গুহ। ভিডিও কলের মাধ্যমে তাঁর ছবি সংগ্রহ করে তা ব্লু ফিল্মে ব্যবহারের মতো বিস্ফোরক অভিযোগ তুললেন তিনি। সেই ব্লু ফিল্ম আবার তাঁকে ব্ল্যাকমেলিংয়ের জন্য ব্যবহার করা হবে বলে হুমকি ফোনও পাচ্ছেন তিনি। কোচবিহার থানায় এই মর্মে অভিযোগ দায়ের করে সাংবাদিকদের সামনে গোটা বিষয়টি প্রকাশ্যে এনেছেন বিধায়ক। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। উদয়ন গুহর এভাবে সাইবার ক্রাইমের শিকার হওয়ার বিষয়টি আপাতত এলাকায় আলোচনার অন্যতম বিষয়বস্তু হয় উঠেছে।

দিনহাটার বিধায়ক উদয়ন গুহ (Udayan Guha) ‘ঠোঁটকাটা’ বলে পরিচিত বরাবর। দলকে অস্বস্তিতে ফেলে বারবারই নানারকম মন্তব্য করেছেন তিনি। সম্প্রতি কলকাতায় দলের নেতৃত্বের প্রতি তোপ দেগে ফেসবুকে পোস্ট করেন। পাশাপাশি আবার এও উল্লেখ করেন যে তিনি কোনওভাবেই ‘বেসুরো’ হচ্ছেন না। শুধু সমস্যার কথা তুলে ধরতে চাইছেন।

[আরও পড়ুন: নাড্ডার কনভয়ে হামলা থেকে শিক্ষা? ভিভিআইপি নিরাপত্তায় রাজ্যে আরও দুই কোম্পানি CRPF]

এহেন বিধায়কই কি না এবার বড়সড় সাইবার অপরাধের শিকার! শনিবার এ নিয়ে কোচবিহার থানায় অভিযোগ দায়ের করার পর তিনি নিজের দপ্তরে সাংবাদিক বৈঠক করেন। সেখানেই জানান যে তাঁর ছবি ব্যবহার করে ব্লু ফিল্ম তৈরি হচ্ছে। কীভাবে বুঝলেন যে তিনি নিজে এই অপরাধের শিকার? বিধায়কের কথায়, ”পুলিশ এখন নানাভাবে প্রচার করছে যে কোনও ভিডিও কল এলে তা থেকে সাবধান হতে। কারণ, ভিডিও কল রিসিভ করলে তাঁর ছবি সংগ্রহ করে তা দিয়ে ব্লু ফিল্ম তৈরি করা হচ্ছে। এই ঘটনার শিকার আমি নিজে। আমাকে ভিডিও কল করে টাকা চাওয়া হচ্ছে। বলা হচ্ছে যে টাকা না দিলে নাকি ওসব ব্লু ফিল্ম প্রকাশ করে আমার ইমেজ নষ্ট করা হবে।”

[আরও পড়ুন: রাজনৈতিক সংঘর্ষে দিনহাটায় চলল গুলি, জখম ব্যবসায়ী ও সিভিক ভলান্টিয়ার]

এমন নিন্দনীয় কাজে কারা জড়িত থাকতে পারে বলে সন্দেহ? দলের কেউ নাকি নিছকই সাইবার অপরাধীরা? সাংবাদিকদের এই প্রশ্নের উত্তরে উদয়ন গুহ দলের কারও জড়িত থাকার কথা পুরোপুরি উড়িয়ে দেন। বলেন, ”আমাকে হুমকি ফোনে বলা হয়েছে যে বিধায়ক তো দূরের কথা, এরপর আর আমি সরপঞ্চও হতে পারব না। এই ‘সরপঞ্চ’ কথাটা শুনে আমি বুঝলাম যে এরা বাংলার কেউ নয়। বাইরের কেউ এসব কাণ্ডে জড়িত এবং এটা একটা বড় চক্র। পুলিশেরও অনুমান, এ রাজ্যের বাইরে থেকে কেউ বা কারা এরকমভাবে আমার বিরুদ্ধে অপরাধের জাল বুনেছে।” অপরাধী কারা? খুঁজছে পুলিশ।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

×