২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বড়দিনের উপহার, দীর্ঘদিন পর দার্জিলিংয়ে চালু হচ্ছে পুরোদস্তুর টয়ট্রেন পরিষেবা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: December 9, 2017 4:58 am|    Updated: September 20, 2019 3:17 pm

An Images

নিজস্ব সংবাদদাতা, শিলিগুড়ি: শীতের পাহাড়ে পর্যটকদের জন্য বড়দিনের উপহার পুরো রুটের টয়ট্রেন। ২৭ ডিসেম্বর থেকে পাহাড়ে শুরু হচ্ছে পর্যটন উৎসব। এই উৎসবকে কেন্দ্র করে দেশ-বিদেশের পর্যটকরা ভিড় জমাতে চলেছেন শৈলশহরে। আর তার আগেই দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ হয়ে থাকা পর্যটকদের অন্যতম আকর্ষণের টয়ট্রেন শিলিগুড়ি থেকে দার্জিলিং পর্যন্ত পুরো পথে চালানোর উদ্যোগ নিয়েছে দার্জিলিং-হিমালয়ান রেল। ট্রায়াল রান শুরু হয়ে গিয়েছে। ১৫ ডিসেম্বরের পর তা পুরোদস্তুর চালু হয়ে যাবে। এমনটাই পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। কয়েকদিনের মধ্যেই টিকিট দেওয়া শুরু হবে বলে জানিয়েছেন ডিএইচআর-এর আধিকারিকরা। এই উদ্যোগে খুশি পর্যটন মহল।

[কুম্ভ মেলাকে বিশেষ সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের মর্যাদা দিল ইউনেসকো]

এদিকে পাহাড়ে পর্যটন উৎসব চলাকালীন টয়ট্রেনের বিশেষ জয়রাইডের জন্য আবেদন জানানো হয়েছে জিটিএ-র তরফে। এখন শুধু দার্জিলিং থেকে ঘুম সাত কিলোমিটার পথে টয়ট্রেনের জয়রাইড চলে। কার্শিয়াংয়ের গিদ্দা পাহাড়ে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর স্মৃতি বিজড়িত বাড়ি রয়েছে। পর্যটন উৎসবে সেখানে নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করছে জিটিএ। ফলে সেসময় পাহাড়ে আসা পর্যটকরা যাতে ঐতিহাসিক ওই বাড়িটি ঘুরে দেখার সুযোগ পান, সেকারণে কার্শিয়াং থেকে গিদ্দা পাহাড় পর্যন্ত স্পেশ্যাল জয়রাইড চালানোর আবেদন জানিয়েছে জিটিএ। পাশাপাশি টয়ট্রেনেই নাচ-গান-সহ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজনও করা হয়েছে।

[প্রশাসনের উদ্যোগে অনাথ ‘সূর্য’ পেল স্থায়ী ঠিকানা]

শীতে প্রচুর পর্যটক পাহাড় ও ডুয়ার্সে বেড়াতে আসছেন। এরই মধ্যে দার্জিলিংয়ে পর্যটন উৎসব বাড়তি উন্মাদনা যোগ করেছে। ট্যুর অপারেটর, হোটেল ব্যবসায়ী থেকে শুরু করে পর্যটন ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত সকলেরই আশা, পর্যটন উৎসবকে সামনে রেখে বড়দিন ও ইংরেজি নববর্ষে পাহাড়ে ভাল ব্যবসা হবে। ফলে এসময় পুরোপথে টয়ট্রেন চালু হলে তা যে পাহাড়ে আসা পর্যটকদের মধ্যে নতুন উন্মাদনা সৃষ্টি করবে, তাতে কোনও সন্দেহ নেই। দার্জিলিং-হিমালয়ান রেলের ম্যানেজিং ডিরেক্টর এমকে নার্জিনারি বলেন, চলতি মাসেই শিলিগুড়ি থেকে দার্জিলিং পুরোপথে নিয়মিত টয়ট্রেন চলবে। প্রসঙ্গত, চলতি বছরের ৮ জুন পাহাড়ে গুরুং বাহিনীর হিংসাত্মক আন্দোলনের সময় থেকেই টয়ট্রেন বন্ধ। সম্প্রতি আংশিকভাবে চালু হলেও পুরোপথে টয়ট্রেন না চলায় অখুশি পর্যটকরা। এবার আক্ষেপ মিটতে চলেছে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement