BREAKING NEWS

১৩ আশ্বিন  ১৪৩০  রবিবার ১ অক্টোবর ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

সংঘাতের মাঝেই কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগ নতুন VC’র, নিয়োগপত্র প্রত্যাখ্যান ২ উপাচার্যের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: June 2, 2023 9:03 pm|    Updated: June 2, 2023 9:03 pm

VC appointed by Governor at Kazi Nazrul University joins but other two VCs decline | Sangbad Pratidin

শেখর চন্দ্র, আসানসোল: রাজ্যে ১০টি বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্যদের নিয়োগ করেছেন রাজ্যপাল তথা বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য। দেওয়া হয়েছে নিয়োগপত্র। আবার শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু (Bratya Basu) টুইট করে উপাচার্যদের (VC) যোগদান করতে নিষেধ করেছেন। এই যাঁতাকলের মধ্য দিয়েই শুক্রবার কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্য হিসাবে যোগদান করলেন ডক্টর দেবাশিস বন্দ্যোপাধ্যায়। রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক দেবাশিস বন্দ্যোপাধ্যায় বৃহস্পতিবার নিয়োগ পাওয়ার পর শুক্রবারই আসানসোলে এসে পৌঁছন।

এর আগে দেবাশিসবাবু রাজ্যের বাইরে হায়দরাবাদ ও বেনারসে অধ্যাপনা করেছেন। বিদেশেও অধ্যাপনার অভিজ্ঞতা রয়েছে তাঁর। কিন্তু মাটির টানেই তিনি বারবার ফিরে এসেছেন বাংলায়। রাজ্য সরকারের প্রতি, রাজ্য শিক্ষা দপ্তরের প্রতি আস্থা ও বিশ্বাস রয়েছে দেবাশিসবাবুর। কিন্তু আচার্যের নির্দেশকে তিনি উপেক্ষা করতে পারেন না। তাই সংঘাতের পরিস্থিতির মধ্যে দিয়েই কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্য হিসেবে যোগদান করলেন ডক্টর দেবাশিস বন্দ্যোপাধ্যায়।

[আরও পড়ুন: বড়সড় দুর্ঘটনার কবলে করমণ্ডল এক্সপ্রেস, মালগাড়িতে ধাক্কা দিয়ে লাইনচ্যুত বেশ কয়েকটি বগি]

গত আড়াই মাস ধরে আসানসোল (Asansol) কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে অচল অবস্থা চলছে। উপচার্য ডক্টর সাধন চক্রবর্তীকে অপসারণের দাবিতে ছিল এই আন্দোলন। আন্দোলনের মূল পুরোধা ছিল ওয়েবকুপা। এনিয়ে তারা রাজ্যপালেরও দ্বারস্থ হয়েছিলেন। তারপরে রাজ্যপাল অপসারণ করেন সাধন চক্রবর্তীকে। সেই নিয়ে মামলা হাই কোর্টে (Calcutta HC) পৌঁছায়। বহু টানাপোড়েন চলে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সাধন চক্রবর্তীর হিসাবে উপাচার্য হিসাবে মেয়াদ শেষ হয়ে যায় ৩১ মে। বুধবার আচার্য তথা রাজ্যপাল রবীন্দ্রভারতীর ইংরেজি বিভাগীয় প্রধান ডক্টর দেবাশিস বন্দ্যোপাধ্যায়কে ডেকে পাঠান। বৃহস্পতিবার নিয়োগ দিয়ে দেন এবং শুক্রবারই যোগদান করলেন দেবাশিসবাবু। তিনি আশাবাদী, রাজ্য বনাম রাজ্যপালের এই সংঘাত কেটে যাবে। তাতে শিক্ষার পরিবেশ ঠিক থাকবে। তবে তাঁর এই নিয়োগ মেনে নেয়নি ওয়েবকুপা।

[আরও পড়ুন: RSS কর্মীর নালিশে কাজ, জামালপুরের সেতুতে আলোর ব্যবস্থা করলেন অভিষেক]

অন্যদিকে, দক্ষিণ দিনাজপুর (South Dinajpur) বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ করা হয়েছিল গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলার অধ্যাপককে। জানা গিয়েছে তিনি নিয়োগপত্রটি প্রত্যাখ্যান করে কাজে যোগ দেননি। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যও রাজ্যপালের নিয়োগপত্র পেয়েও যোগ দেননি বলে খবর।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে