BREAKING NEWS

১৭  আষাঢ়  ১৪২৯  সোমবার ৪ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটবৃষ্টি, বামেদের নবান্ন অভিযান ঘিরে ধুন্ধুমার

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 22, 2017 8:58 am|    Updated: May 22, 2017 9:08 am

violence clashes broke out between cop-cpm supporters during 'Nabanna Abhiyan'

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ১৮ দফা দাবিতে বামেদের নবান্ন অভিযানকে কেন্দ্র করে সবরকম প্রস্তুতি নিয়েছিল পুলিশ। দিকে দিকে ব্যারিকেড গড়ে তোলা হয়েছিল। মোতায়েন করা হয়েছিল প্রচুর পুলিশকর্মী। বেলা গড়াতেই তা নিয়ে ধুন্ধুমার বাধল। শহর ও জেলার বিভিন্ন অঞ্চল থেকে মিছিল করে আসতে থাকেন বাম কর্মীরা। তাঁদের আটকানোর চেষ্টা করে পুলিশ। তাতেই রীতিমতো রণক্ষেত্রের চেহারা নিল শহরের বিভিন্ন অঞ্চল।

[ অভিযানের আগেই নবান্নে ঢোকার চেষ্টা, গ্রেপ্তার সুজন-সহ পাঁচ বাম বিধায়ক ]

এদিন অভিযান শুরু হওয়ার আগেই নবান্নে পৌঁছে যান সুজন চক্রবর্তী, তন্ময় ভট্টাচার্য-সহ পাঁচ বাম বিধায়ক। অভিযানের নির্ধারিত সময়ের আগেই পুলিশের নজর এড়িয়ে নবান্নে পৌঁছে যাওয়ার চেষ্টা করেন তাঁরা। যদিও পরে তাঁদের গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এরপর নির্ধারিত সময়েই শুরু হয় বামেদের অভিযান। শহর ও জেলা থেকে একে একে মিছিল আসতে থাকে নবান্নের দিকে। ব্যারিকেড ভেঙে এগনোর চেষ্টা করতে থাকেন বাম সমর্থকরা। মেয়ো রোডে গার্ডরেলে মিছিল আটকালে তা ভাঙার চেষ্টা করা হয়। জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদানে গ্যাস ছোড়ে পুলিশ। এদিকে বিভিন্ন অঞ্চলে পুলিশকে লক্ষ্য করে প্রবল ইটবৃষ্টিও চলে। হেস্টিংসেও একই অবস্থা। পুলিশের সঙ্গে বাম সমর্থকদের রীতিমতো খণ্ডযুদ্ধ বেধে যায়।  ডাফরিন রোডে ব্যারিকেড ভাঙতে চেষ্টা করেন সমর্থকরা। বেতড়ে উত্তেজিত বাম কর্মীদের আটকাতে ব্যবহার করা হয় জলকামান । কোথাও কোথাও পুলিশকে লাঠিচার্জও করতে হয়। কোথাও রাস্তায় বসেই বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে দেন বামকর্মীরা। বামেদের এই নবান্ন অভিযানকে কেন্দ্র করে রীতিমতো রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় শহর ও শহরতলীর বিভিন্ন অঞ্চল। লাঠিচার্জে  বেশ কয়েকজন বামকর্মী আহত হয়েছেন বলেও জানা যাচ্ছে। উত্তেজিত জনতাকে ঠেকাতে গিয়ে ফোরশোর রোডে আহত হয় পুলিশও।

সুদীপের জামিনের বিরোধিতায় সুপ্রিম কোর্টের পথে সিবিআই ]

এদিকে অভিযানের আগেই পাঁচ বিধায়কের গ্রেপ্তারির তীব্র প্রতিবাদ করেছেন সূর্যকান্ত মিশ্র। প্রতিবাদ করেছেন বিমান বসুও। তাঁদের দাবি, নবান্নে ঢোকার গণতান্ত্রিক অধিকার আছে বিধায়কদের। গ্রেপ্তার হওয়া বিধায়কদের নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেছেন তাঁরা। সূর্যকান্ত এদিন বলেন, প্রতিরোধ করলে তাঁরাও পাল্টা ব্যবস্থা নেবেন। তাতে যদি কিছু হয় তবে তার জন্য দায়ি থাকবে সরকার।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে